ইউনিক হোটেলের আইপিওতে দ্বিগুণ আবেদন

ইউনিক হোটেল অ্যান্ড রিসোর্টস লিমিটেডের (ওয়েস্টিন হোটেল) প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) দুই লাখ ৯ হাজার ৩৫০টি আবেদন জমা পড়েছে। কম্পানির ১৯৫ কোটি টাকার শেয়ারের বিপরীতে আগ্রহী বিনিয়োগকারীরা ৩৮৯ কোটি ৩১ লাখ ৮৪ হাজার ৭৫০ টাকার আবেদন জমা দিয়েছেন। কম্পানির পক্ষ থেকে আইপিও আবেদনের এই প্রাথমিক পরিসংখ্যান দেওয়া হয়েছে। কম্পানির তথ্যানুযায়ী, মিউচ্যুয়াল ফান্ড ও সাধারণ বিনিয়োগকারী মিলিয়ে মোট আবেদন জমা পড়েছে দুই লাখ পাঁচ হাজার ৩০৭টি আবেদন। আর প্রবাসী বাংলাদেশিরা চার হাজার ৪৩টি আবেদন জমা দিয়েছেন।
তথ্যমতে, ১০০টি শেয়ারে মার্কেট লট নির্ধারিত হওয়ায় সর্বমোট দুই লাখ ৬০ হাজার লট শেয়ার সাধারণ আবেদনকারীদের মধ্যে বরাদ্দ দেওয়া হবে। সেই হিসাবে নির্ধারিত লটের তুলনায় ইউনিক হোটেলের আইপিওতে কম আবেদন জমা পড়েছে। তবে মিউচ্যুয়াল ফান্ডগুলো বড় অঙ্কের শেয়ার পাওয়ার জন্য আবেদন করায় আর্থিক হিসাবে প্রায় দ্বিগুণ আবেদন জমা হয়েছে। এ কারণে মিউচ্যুয়াল ফান্ডগুলোয় শেয়ার বরাদ্দের জন্য শিগ্গিরই লটারির আয়োজন করা হবে।
পুঁজিবাজারে দুই কোটি ৬০ লাখ শেয়ার ছেড়ে কম্পানিটি বাজার থেকে মোট ১৯৫ কোটি টাকা সংগ্রহ করছে। আইপিওর মাধ্যমে বিক্রির জন্য কম্পানির ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে শেয়ারের বিপরীতে ৬৫ টাকা প্রিমিয়ামসহ মোট ৭৫ টাকা মূল্য অনুমোদন করেছে এসইসি। কম্পানির ১০০টি শেয়ারে একটি মার্কেট লট নির্ধারণ করা হয়েছে। ফলে আইপিও আবেদনের সঙ্গে বিনিয়োগকারীদের সাড়ে সাত হাজার টাকা জমা দিতে হয়েছে।
আইপিওতে শেয়ার বরাদ্দের জন্য গত ১৫ এপ্রিল থেকে ১৯ এপ্রিল পর্যন্ত স্থানীয় বিনিয়োগকারী এবং ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে আবেদনপত্র জমা নেওয়া হয়।

সূত্র: কালের কণ্ঠ, ৭ মে ২০১২