ওরিয়ন ফার্মার লেনদেন শুরু বুধবার

প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে টাকা উত্তোলনের পরে ওরিয়ন ফার্মা লিমিটেডের শেয়ার আগামীকাল বুধবার থেকে দেশের উভয় পুঁজিবাজারে লেনদেন হবে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
জানা গেছে, কোম্পানির লেনদেন ‘এন’ ক্যাটাগরিতে শুরু হবে। ওরিয়ন ফার্মার ডিএসই ট্রেডিং কোড হচ্ছে ‘ওআরআইওএনপিএইচএআরএম’ এবং ডিএসই কোম্পানি কোড হচ্ছে ১৮৪৮৬। গত ৬ মার্চ বিকেলে ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদের সভায় কোম্পানির লেনদেনের অনুমোদন দেয়া হয়। এর আগে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) এর অনুমোদন অনুসারে গত ৬ থেকে ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত প্রতিষ্ঠানের আইপিওতে আবেদন সংগ্রহ করা হয়। আর প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ ছিল ১৯ জানুয়ারি পর্যন্ত।
কোম্পানি বাজারে ৪ কোটি শেয়ার ছেড়ে ২৪০ কোটি টাকা সংগ্রহ করে। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সঙ্গে ৫০ টাকা প্রিমিয়ামসহ মোট ৬০ টাকা প্রাথমিক মূল্য নির্ধারণ করে দেয় বিএসইসি। মার্কেট লট নির্ধারণ করা হয়েছে ১০০টি শেয়ারে।
কোম্পানি সূত্রে জানা গেছে, ওরিয়ন ফার্মা বাংলাদেশে ১৯৬৫ সাল থেকে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। কোম্পানি আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন এবং এফডিএ স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী একটি নতুন ফ্যাক্টরি স্থাপন করতে যাচ্ছে, যা বর্তমানে প্রক্রিয়াধীন। নতুন ফ্যাক্টরিতে কাজ শুরু হলে কোম্পানির উৎপাদন কয়েক গুণ বাড়বে। বর্তমানে ওরিয়ন গ্রুপ ফার্মাসিউটিক্যালস ব্যবসা ছাড়াও বিদ্যুত উৎপাদন, ফ্লাইওভার নির্মাণ, কম্পোজিট টেক্সটাইল, এ্যাগ্রো-প্রোডাক্টসহ আরও অনেক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। এছাড়াও ওরিয়ন গ্রুপ বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় কয়লাভিত্তিক বিদ্যুত কেন্দ্র স্থাপন করতে যাচ্ছে। ৩১ ডিসেম্বর ২০১১ সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয় ৫ দশমিক ৫৭ টাকা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) হয় ৭৬ দশমিক ৮৭ টাকা। ইস্যু ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

দৈনিক জনকন্ঠ