Tag Archives: mobil

আবারো এমজেএল’র তালিকাভুক্তির সময় বাড়ল

ঢাকা, ১৩ এপ্রিল (শীর্ষ নিউজ ডটকম): আবারো মোবিল যমুনা লুব্রিকেন্টস (এমজেএল) বাংলাদেশ লিমিটেডের তালিকাভুক্তির সময় বাড়াল সিকিউরিটিজ এন্ড এঙ্চেঞ্জ কমিশন (এসইসি)।এসইসি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে এসইসি সূত্রে জানা যায়।
এ নিয়ে এমজেএল’র তালিকাভুক্তির মেয়াদ দ্বিতীয় বারের মত বাড়ানো হলো। এবার সময় বাড়ানো হয়েছে এক সপ্তাহ। এসইসি’র এ সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ২১ এপ্রিল প্রতিষ্ঠানটির তালিকাভুক্তির মেয়াদ শেষ হবে।
এর আগে গত ২৭ মার্চ এমজেএল’র তালিকাভুক্তির মেয়াদ দু’সপ্তাহ বাড়ায় এসইসি। সে মোতাবেক আগামীকাল শেষ হচ্ছে তালিকাভুক্তির সময়।
নিয়মানুসারে ৭৫ দিনের মধ্যে তালিকাভুক্তি বাধ্যতামূলক। সে অনুসারে ৩১ মার্চ এমজেএল’র তালিকাভুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা থাকা সত্ত্বেও দু’দফা সময় বাড়াল এসইসি।
উল্লেখ্য, চলতি সপ্তাহের রোববার ঢাকা স্টক এঙ্চেঞ্জের (ডিএসই) বোর্ড সভায় এমজেএলকে তালিকাভুক্ত না করা সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তবে একই দিন চিটাগাং স্টক এঙ্চেঞ্জের (সিএসই) লিস্টিং কমিটির বৈঠকে এমজেএলকে তালিকাভুক্ত করার বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। লিস্টিং কমিটির বৈঠক থেকে তা বোর্ডে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

Source: sheershanews.com, 13 April, 2011

এমজেএল ও এমআই সিমেন্টকে তালিকাভুক্ত করবে না ডিএসই

ঢাকা, ২৪ মার্চ (শীর্ষ নিউজ ডটকম): মবিল যমুনা বাংলাদেশ (এমজেএল) ও এমআই সিমেন্ট কোম্পানির তালিকাভুক্তির অনুমোদন দেবে না ঢাকা স্টক এঙ্চেঞ্জ(ডিএসই)। আজ বৃহস্পতিবার ডিএসই’র বোর্ড সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডিএসই’র সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আহসানুল ইসলাম টিটো। লেনদেন চালুর ৬ মাস পর্যন্ত কোম্পানির শেয়ারের বরাদ্দ মূল্যের চাইতে বাজার দর কমে গেলে কোম্পানির শেয়ার প্রিমিয়ামের হিসাব থেকে প্রাইমারি শেয়ারহোল্ডারদের ক্ষতিপূরণের প্রস্তাব আইন সিদ্ধ না হওয়ায় ডিএসই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা গেছে।
টিটো শীর্ষ নিউজ ডটকমকে জানান, পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিকিউরিটিজ এন্ড এঙ্চেঞ্জ কমিশন (এসইসি) যে শর্তে এমজেএল ও এমআই সিমেন্টের তালিকাভুক্তির জন্য ডিএসইকে চিঠি দিয়েছে তা আইনসিদ্ধ না হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। রোববার এ দুটি কোম্পানির তালিকাভুক্তি না দেয়ার বিষয়টি এসইসিকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়ে দেয়া হবে বলেও তিনি জানান।
বরাদ্দ মূল্যের তুলনায় বাজার মূল্য কমে গেলে প্রাইমারি শেয়ারহোল্ডারদের ক্ষতিপূরণ দেয়ার শর্তে ২২ মার্চ এমজেএল’র তালিকাভুক্তির অনুমোদন দেয় এসইসি। এ কোম্পানির তালিকাভুক্তির জন্য সেদিনই ডিএসইতে চিঠি পাঠায় এসইসি। একই শর্তে এমআই সিমেন্ট কোম্পানিও ক্ষতিপূরণ দেয়ার অঙ্গীকার করে বুধবার এসইসিতে চিঠি পাঠায়। এমজেএল’র তালিকাভুক্তির বিষয়ে এসইসির চিঠি পাওয়ার পরই ডিএসই’র তালিকাভুক্তি কমিটি কোম্পানি আইন বিষয়ে কয়েকজন আইন বিশেষজ্ঞের মতামত নেয়। আইনজীবীরা জানান, শেয়ার প্রিমিয়াম হিসাব থেকে ক্ষতিপূরণের বিষয়টি আইনসিদ্ধ নয়। এ অবস্থায় ডিএসই’র তালিকাভুক্তি কমিটি বুধবার ওই শর্তে কোম্পানি দু’টিকে তালিকাভুক্ত না করার বিষয়ে মতামত প্রদান করে। আজ ডিএসই’র বোর্ড সভায় চূড়ান্তভাবে কোম্পানি দুটিকে তালিকাভুক্ত না করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। টিটো জানান, ডিএসই এ শর্তে কোম্পানি দুটিকে তালিকাভুক্তি দেবে না। এখন পরবর্তী সিদ্ধান্ত এসইসিকেই নিতে হবে।

Source: sheershanews.com

মবিল যমুনার তালিকাভুক্তির সময় বাড়ানোর আবেদন নাকচ এসইসি’র

ঢাকা: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির সময় বাড়ানোর জন্য গত সপ্তাহে করা মবিল যমুনা কোম্পানির আবেদন নাকচ করেছে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি) ।

শেয়ার বাইব্যাকের শর্ত নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হওয়ায় তালিকাভুক্তির সময় বাড়ানোর জন্য কোম্পানিটি এ আবেদন করে।

রোববার দুপুর ১২টায় এক জরুরি বৈঠক ডেকে আবেদন নাকচ করার সিদ্ধান্ত নেয় কমিশন।

বৈঠক সূত্র জানায়, কোম্পানির আইপিও আবেদন গ্রহণের তারিখ থেকে ৭৫ দিনের মধ্যে এসইসিতে তালিকাভুক্ত হতে হয়।

এ নিয়ম অনুযায়ী আগামি ২২ মার্চ এ কোম্পানির তালিকাভুক্তির সময়সীমা শেষ হবে। এই সময়ের মধ্যে তালিকাভুক্ত হতে না পারলে কোম্পানিকে আইপির টাকা ফেরত দিতে হবে।

কিন্তু অর্থন্ত্রণালয়ের বেঁধে দেয়া শর্ত অনুযায়ী তালিকাভুক্তির পর শেয়ারের দর ফেসভ্যালুর নিচে নেমে গেলে ৬ মাস পর্যন্ত শেয়ার কেনার নিশ্চয়তা দিতে হবে। এই শর্ত কোম্পানিটির পক্ষে পূরণ করা সম্ভব হচ্ছে না।

এছাড়া শর্তে প্রাইমারি বিনিয়োগকারীদের শেয়ার বাইব্যাক করার কথা উল্লেখ রয়েছে। কিন্তু লেনদেনের ক্ষেত্রে প্রাইমারি এবং সেকেন্ডারি বিনিয়োগকারীদের আলাদা করা সম্ভব নয়।

ফলে ডিএসই ও এসইসি এ  শর্ত মেনে কোম্পানিটিকে তালিকাভুক্ত করতে রাজি হচ্ছে না। এরই পরিপ্রেক্ষিতে কোম্পানিটি তালিকাভুক্তির সময় বাড়ানোর আবেদন করে।

Source: banglanews24.com

Price discovery of Mobil Jamuna Lubricants

Bidding of MJL Ltd. will take place from 07 November 2010 at 11L00 AM to 10 November 2010 at 4:00 PM round the clock. Period for depositing bid money will be from 02 November 2010 to 10 November 2010.

The size of the public offer is of 40,000,000 ordinary shares of Tk 10/- each. Indicative price for the issue in Tk. 127/- per share including a premium of 117/- per share. Price band for bidding will be 20% upward or downward band of indicative price (e.e. Tk. 101.60 to 152.40).

Prime finance & investment ltd is the issue manager and Grameen capital management ltd is the registrar to the issue.

Source:Own Correspondence, bdipo.com

একটি আইপিও, দুটি রাইট শেয়ারের অনুমোদন

ঢাকা, ৩ অক্টোবর (শীর্ষ নিউজ ডটকম): বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে খুব শীঘ্রই পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হতে যাচ্ছে মবিল যমুনা লুব্রিকেন্ট বাংলাদেশ লিমিটেড (এমজেএল)। রোববার সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (এসইসি) সাপ্তাহিক সভায় এ কোম্পানির আইপিও (প্রাথমিক গণ প্রস্তাব) অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এছাড়া কমিশনের সভায় এক্সিম ব্যাংক
ও অগ্নি সিস্টেম লিমিটেডের রাইট শেয়ারের প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এসইসির মুখপাত্র ও নির্বাহি পরিচালক আনোয়ারুল কবীর ভূঁইয়া সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।
মবিল যমুনা লুব্রিকেন্ট বাংলাদেশ লিমিটেড (এমজেএল) পুঁজিবাজারে শেয়ার ছাড়ার মাধ্যমে ৫০৮ কোটি টাকা সংগ্রহ করার প্রস্তাব দিয়েছে। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের ৪ কোটি শেয়ার ছাড়বে কোম্পানিটি। প্রতিটি  শেয়ারের নির্দেশক মূল্যের প্রস্তাব করা হয়েছে ১২৭ টাকা। পুঁজিবাজার থেকে সংগৃহীত টাকা দিয়ে গুলশানে এক বিঘা জমি ক্রয়, প্ল্যান্ট নির্মাণ, খুলনার লিক্যুইফাইড পেট্রোলিয়াম গ্যাস ম্যানুফ্যাক্‌চার লিমিটেডের জন্য ট্যাংকার ক্রয় করবে প্রতিষ্ঠানটি। ২০০৯ সালের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী মবিল যমুনার ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের শেয়ার প্রতি আয় হচ্ছে ২.৪৫ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ হচ্ছে ১১.৭৩ টাকা। বর্তমানে এ কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন হচ্ছে ১৪০ কোটি টাকা। প্রাইম ফাইন্যান্স এ কোম্পানির ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করবে।
রোববার কমিশনের সভায় পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত কোম্পানি এক্সিম ব্যাংক ও অগ্নি সিস্টেম লিমিটেডের রাইট শেয়ার প্রস্তাবের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এদুটি প্রতিষ্ঠানের প্রতি দুটি সাধারণ শেয়ারের বিপরীতে একটি রাইট শেয়ার পাওয়া যাবে। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের এক্সিম ব্যাংকের শেয়ারে কোন প্রিমিয়াম হবেনা। তবে অগ্নি সিস্টেমের ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের প্রতিটি রাইট শেয়ারের দর হবে ২০ টাকা (১০ টাকা প্রিমিয়াম)।
এছাড়া রোববার ব্যাংকগুলো থেকে ব্রোকারেজ হাউজ ও মার্চেন্ট ব্যাংকের পৃথকীকরণের সময়সীমা আবারো বাড়িয়েছে এসইসি। কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পৃথকীকরণের সময়সীমা ১ অক্টোবরের পরিবর্তে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। তবে এই সময়ের মধ্যে ব্যাংকগুলো তাদের ব্রোকারেজ হাউজ ও মার্চেন্ট ব্যাংক পৃথক করতে ব্যর্থ হলে সংশ্লি্ষ্ট প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে এসইসি ব্যবস্থা নেবে বলে আনোয়ারুল কবীর ভূঁইয়া জানান। সেক্ষেত্রে ব্যাংকগুলোর অধীনস্ত মার্চেন্ট ব্যাংক অথবা ব্রোকারেজ হাউজগুলো তাদের গ্রাহকদের ঋণ প্রদান বন্ধ করে দেয়া হবে বলে এসইসির মুখপাত্র জানান।