Tag Archives: gph ispat

জিপিএইচ ইস্পাতের লেনদেন শুরু ১৯ এপ্রিল হতে

দেশের শেয়ারবাজারে আজ বৃহস্পতিবার থেকে জিপিএইচ ইস্পাত নামে নতুন আরেকটি কোম্পানির লেনদেন শুরু হচ্ছে।
এর আগে গত ফেব্রুয়ারি মাসে কোম্পানিটি প্রাথমিক গণপ্রস্তাব বা আইপিওর মাধ্যমে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করে। কোম্পানিটি দুই কোটি শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে মোট ৬০ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে।
১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সঙ্গে ২০ টাকা প্রিমিয়াম যুক্ত করে জিপিএইচ ইস্পাতের প্রতিটি শেয়ারের বিক্রয় মূল্য ধরা হয় ৩০ টাকা। এই কোম্পানির প্রতিটি মার্কেট লটে বা বাজারগুচ্ছে রয়েছে ৫০০টি শেয়ার।
এমএস রড ও এমএস বিলেট উৎপাদনকারী এই কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ৭০ কোটি টাকা। আইপিওর টাকা (প্রিমিয়াম বাদে) উত্তোলনের পর যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯০ কোটি টাকায়। কোম্পানিটি ২০০৮ সালে বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদনকার্যক্রম শুরু করে।
২০১১ সালের এপ্রিলে সমাপ্ত অর্থবছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় বা ইপিএস দেখানো হয়েছে তিন টাকা ৬৬ পয়সা। একই সময়ে শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদমূল্য (এনএভি) দেখানো হয় ১২ টাকা ২৩ পয়সা।

সূত্র: প্রথম আলো, ১৯ এপ্রিল, ২০১২

জিপিএইচ ইস্পাত ও পদ্মা ইসলামী বীমা কম্পানির লেনদেন শুরু ১৮ এপ্রিল

জিপিএইচ ইস্পাত ও পদ্মা ইসলামী জীবন বীমা কম্পানির লেনদেন শুরু হচ্ছে কাল থেকে। পদ্মা ইসলামী জীবন বীমা কম্পানি এক কোটি ২০ লাখ শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে ১২ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে। ২০১১ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত বছরের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী এই কম্পানির শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য বা ন্যাভ ৩৬ দশমিক ২৬ টাকা। এই কম্পানির ইস্যু ব্যবস্থাপক হিসেবে কাজ করেছে ইউনিয়ন ক্যাপিট্যাল।
এদিকে জিপিএইচ ইস্পাত ১০ টাকা প্রতিটি শেয়ারের জন্য ২০ টাকা প্রিমিয়াম নিয়েছে। এভাবে দুই কোটি শেয়ার ছেড়ে ৬০ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে কম্পানিটি।

সূত্র: কালের কণ্ঠ, এপ্রিল ১৭, ২০১২

জিপিএইচ ইস্পাতের দুই কোটি শেয়ার বিতরণ লটারির মাধ্যমে

দেশের অন্যতম বৃহৎ ইস্পাত প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেডের আইপিও লটারি ড্র অনুষ্ঠান গতকাল চট্টগ্রামের ‘দ্য কিং অব চিটাগাং’-এ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আইপিওতে ৬০ কোটি টাকার শেয়ার সাবস্ক্রিপশনের বিপরীতে ১৪৯ কোটি টাকার আবেদন জমা পড়ে। সাধারণ আবেদনকারীদের মধ্যে মোট শেয়ারের এক কোটি ৬০ লাখ শেয়ার, প্রবাসী আবেদনকারীদের ২০ লাখ শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডকে ২০ লাখ শেয়ার বরাদ্দ দেওয়া হয়।
লটারি অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম উপস্থিত সবাইকে স্বাগত জানিয়ে বক্তব্য দেন। লটারি অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ব্যুরো অব রিসার্চ, টেস্টিং অ্যান্ড কনসালটেশন (বিআরটিসি)।

সূত্র: কালের কণ্ঠ, ৮ মার্চ ২০১২

GPH Ispat IPO lottery held

GPH Ispat Ltd. IPO Lottery was conducted at “The King of Chittagong” at Chittagong City Wednesday.

GPH received Tk. 1.49 billion against Tk.600 million, though its subscription received, when the stock market was running at lowest index in recent years.

Before conduct of IPO Lottery Mr. Mohammed Jahangir Alam, Managing Director of GPH Ispat Ltd. has been given his welcome speech to the participant.

The IPO Lottery was conducted under the management of the Bureau of Research, testing and Consultation (BRTC). BRTC is the consultation wing of the Bangladesh University of Engineering & Technology (BUET)

Board of Directors, Group Executive Director, Company secretary of GPH Ispat Ltd., CEO & Directors of Chittagong Stock Exchange Limited, Officials of DhakaStock Exchange Limited , High officials of AAA Consultants & Financial Advisers Ltd., Officials of Satcom IT Limited, Auditors and Bankers were present the occasion

The Lottery and subsequent task were completed efficiently and the results were posted on the board at the venue.

1,60,00,000 shares were allocated for Resident Bangladeshi 20,00,000 Shares for Non Resident Bangladeshi and 20,00,000 shares for Mutual funds.

Source: The Financial Express, March 8, 2012

জিপিএইচ ইস্পাতের আইপিও লটারির ড্র ৭ মার্চ

জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল। চট্টগ্রামের দ্য কিং অব চিটাগাং কমিউনিটি সেন্টারে এ ড্র অনুষ্ঠিত হবে। জিপিএইচ ইস্পাত ২ কোটি শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে ৬০ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে।
কোম্পানি ইস্যু ব্যবস্থাপক সূত্রে জানা যায়, জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেডের আইপিওতে নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২ দশমিক ৪৯ গুণ বেশি আবেদন জমা পড়েছে। কোম্পানির ৬০ কোটি টাকার শেয়ারের বিপরীতে ১৪৯ কোটি ৩৬ লাখ ২৫ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়ে।
১০ টাকা অভিহিত মূল্যের প্রতিটি শেয়ারের জন্য ২০ টাকা প্রিমিয়ামসহ মোট ৩০ টাকা নেয়া হয়েছে। ৫০০ শেয়ারের প্রতি লটের জন্য ১৫ হাজার টাকা জমা দিতে হয়েছে। সর্বশেষ আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী, গত ডিসেম্বর পর্যন্ত কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ৩ টাকা ৬৬ পয়সা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) ১২ টাকা ২৩ পয়সা।
জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেডের অনুমোদিত মূলধন ১০০ কোটি টাকা এবং পরিশোধিত মূলধন ৭০ কোটি টাকা। আইপিও প্রক্রিয়াশেষে পরিশোধিত মূলধন ৯০ কোটি টাকায় উন্নীত হবে। আইপিওর মাধ্যমে সংগৃহিত বেশিরভাগ অর্থ কোম্পানির ঋণ পরিশোধে ব্যয় হবে। শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্তির জন্য ট্রিপল এ কনসালট্যান্ট লিমিটেড এ কোম্পানির ইস্যু ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করছে।
সর্বমোট ৪০ হাজার আবেদনকারী জিপিএইচ ইস্পাতের শেয়ার বরাদ্দ পাবেন। এর মধ্যে স্থানীয় বিনিয়োগকারীদের জন্য নির্ধারিত রয়েছে ১ কোটি ৬০ লাখ বা ৩২ হাজার লট। মিউচুয়াল ফান্ডের জন্য সংরক্ষিত ২০ লাখ বা ৪ হাজার লট। এ ছাড়া প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য ২০ লাখ বা ৪ হাজার লট শেয়ার সংরক্ষিত রয়েছে।
কোম্পানির দেয়া তথ্য অনুযায়ী, স্থানীয় বিনিয়োগকারীদের কোটায় ৮২ কোটি ৮০ লাখ ৬০ হাজার টাকা, প্রবাসী কোটায় ৭ কোটি ৬৭ লাখ ১০ হাজার টাকা এবং মিউচুয়াল ফান্ড কোটায় ৫৮ কোটি ৮৮ লাখ ৫৫ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়েছে।
প্রসঙ্গত, আইপিওতে শেয়ার বরাদ্দের জন্য গত ২ থেকে ৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত স্থানীয় বিনিয়োগকারী এবং ১৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে আবেদনপত্র জমা নেয়া হয়।

সূত্র: বণিক বার্তা, মার্চ ৬, ২০১২

জিপিএইচ ইস্পাতের আইপিওতে আড়াই গুণ আবেদন

৬০ কোটি টাকার বিপরীতে জমা পড়েছে ১৪৯ কোটি ৩৬ লাখ টাকা

জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২ দশমিক ৪৯ গুণ আবেদন জমা পড়েছে। কোম্পানির ৬০ কোটি টাকার শেয়ারের বিপরীতে আগ্রহী বিনিয়োগকারীরা মোট ১৪৯ কোটি ৩৬ লাখ ২৫ হাজার টাকার আবেদন জমা দিয়েছেন। কোম্পানির পক্ষ থেকে আইপিও আবেদনের এই চূড়ান্ত পরিসংখ্যান দেয়া হয়েছে।
জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেড ২ কোটি শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে ৬০ কোটি টাকা সংগ্রহ করছে। কোম্পানির ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের প্রতিটি শেয়ারের জন্য ২০ টাকা প্রিমিয়ামসহ মোট ৩০ টাকা নেয়া হচ্ছে। ফলে ৫০০ শেয়ারের প্রতি লটের জন্য আবেদনপত্রের সঙ্গে ১৫ হাজার টাকা জমা দিতে হয়েছে। আইপিওতে শেয়ার বরাদ্দের জন্য গত ২ থেকে ৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত স্থানীয় বিনিয়োগকারী এবং ১৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে আবেদনপত্র জমা নেয়া হয়েছে।
৫০০ শেয়ারে মার্কেট লট নির্ধারিত হওয়ায় সর্বমোট ৪০ হাজার আবেদনকারী জিপিএইচ ইস্পাতের শেয়ার বরাদ্দ পাবেন। এরমধ্যে স্থানীয় বিনিয়োগকারীদের জন্য নির্ধারিত রয়েছে ১ কোটি ৬০ লাখ বা ৩২ হাজার লট শেয়ার। মিউচ্যুয়াল ফান্ডের জন্য সংরক্ষিত রয়েছে ২০ লাখ বা ৪ হাজার লট শেয়ার। এছাড়া প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য ২০ লাখ বা ৪ হাজার লট শেয়ার সংরক্ষিত রয়েছে।
কোম্পানির দেয়া তথ্য অনুযায়ী, স্থানীয় বিনিয়োগকারী কোটায় ৮২ কোটি ৮০ লাখ ৬০ হাজার টাকা, প্রবাসী কোটায় ৭ কোটি ৬৭ লাখ ১০ হাজার টাকা এবং মিউচ্যুয়াল ফান্ড কোটায় ৫৮ কোটি ৮৮ লাখ ৫৫ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়েছে।
জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেডের বর্তমান অনুমোদিত মূলধন ১০০ কোটি টাকা এবং পরিশোধিত মূলধন ৭০ কোটি টাকা। আইপিও প্রক্রিয়া শেষে পরিশোধিত মূলধন ৯০ কোটি টাকায় উন্নীত হবে। আইপিওর মাধ্যমে সংগৃহীত অর্থের সিংহভাগ কোম্পানির ঋণ পরিশোধে ব্যয় হবে। শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্তির জন্য ট্রিপল এ কনসালট্যান্ট লিমিটেড এই কোম্পানির ইস্যু ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করছে।
সর্বশেষ আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী গত ডিসেম্বর পর্যন্ত কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৩ টাকা ৬৬ পয়সা। একই সময় পর্যন্ত কোম্পানির শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) ১২ টাকা ২৩ পয়সা।

সূত্র: দৈনিক জনকণ্ঠ, ৫ মার্চ ২০১২

IPO subscription of GPH Ispat begins

Subscription to the initial public offering (IPO) of steel manufacturer GPH Ispat kicked off on Thursday.

The IPO subscription will remain open until February 9 for resident Bangladeshis and February 18 for non-resident Bangladeshis.

The company is raising Tk 60 crore from public through issuing two crore ordinary shares of Tk 10 each at an offer price of Tk 30 each, including Tk 20 as premium.

Earlier, on November 29 of last year, GPH received approval from the Securities and Exchange Commission for the IPO using fixed price method.

The Chittagong-based company will use the IPO proceedings to repay loans and pay taxes.

AAA Consultants and Financial Advisers is the issue manager of the IPO.

As per the latest financial report, earnings per share of the company is Tk 3.66 whereas net asset value per share is Tk 12.23.

The company is engaged in the manufacturing process of producing MS billet from steel scrap and MS rod from MS billet.

Source: The Daily Star, February 5, 2012