Tag Archives: মিউচ্যূয়াল ফান্ড

মিউচ্যূয়াল ফান্ডের মার্জিন ঋণে এনএভির শর্ত বাতিল

মার্জিন ঋণ প্রদানের ক্ষেত্রে মিউচ্যূয়াল ফান্ড ইউনিটের বাজার মূল্য এর প্রকৃত সম্পদ মূল্যের (এনএভি) দেড় গুণের মধ্যে থাকার শর্ত প্রত্যাহার করেছে সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি)। গতকাল বুধবার অনুষ্ঠিত কমিশনের মুলতবি সভায় এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। আগামী ২ জানুয়ারি থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। এর ফলে মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মার্জিন ঋণ প্রদানের ৰেত্রে প্রতিবন্ধকতা দূর হলো। এনএভির ওপর ভিত্তি করে প্রতিদিনের বাজার মূল্য বিবেচনার জটিলতা কেটে যাওয়ায় মিউচু্যয়াল ফান্ডে মার্জিন ঋণ চালু করা সম্ভব হবে বলে একাধিক মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারেজ হাউসের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।
এসইসির মুখপাত্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী পরিচালক আনোয়ারুল কবীর ভুঁইয়া জনকণ্ঠকে বলেন, কমিশনের সিদ্ধানত্ম অনুযায়ী আগামী ২ জানুয়ারি থেকে মিউচু্যয়াল ফান্ডের ইউনিটের বিপরীতে মার্জিন ঋণ প্রদানে এএনভি বিবেচনা করার প্রয়োজন হবে না। ব্রোকারেজ হাউস ও মার্চেন্ট ব্যাংকগুলো মিউচু্যয়াল ফান্ড কেনার জন্য ১:১.৫ হারে মার্জিন ঋণ দিতে পারবে।
সভায় মিউচু্যয়াল ফান্ডের পেস্নসমেন্ট বরাদ্দের ৰেত্রে ব্যক্তি বিনিয়োগকারীদের সর্বোচ্চ সীমা ১০ লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে ২৫ লাখ করা হয়েছে। প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের পেস্নসমেন্ট বরাদ্দের ক্ষেত্রে কোন সীমা থাকছে না। এ ছাড়া এখন থেকে মিউচু্যয়াল ফান্ডগুলো বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে দরপ্রসত্মাব (বিডিং) প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। সম্পদ ব্যবস্থাপনা মিউচু্যয়াল প্রতিষ্ঠানগুলো তার আওতায় থাকা প্রতিটি মিউচু্যয়াল ফান্ডের জন্য আলাদা আলাদাভাবে দরপ্রসত্মাবের মাধ্যমে কোম্পানির শেয়ার বরাদ্দের জন্য আবেদন করতে পারবে।
মার্জিন ঋণের শর্ত তুলে দেয়ার পাশাপাশি পেস্নসমেন্ট বরাদ্দের সীমা বৃদ্ধি মিউচু্যয়াল ফান্ড খাতের বর্তমান সঙ্কট কাটাতে সহায়ক হবে বলে সংশিস্নষ্টরা মনে করেন। মার্জিন ঋণ প্রদানে শর্ত বেঁধে দেয়ার কারণেই মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারেজ হাউসগুলো এতদিন মিউচু্যয়াল ফান্ডে ঋণ দিতে অনীহা প্রকাশ করেছে। কারণ প্রতিদিন বাজার দরের সঙ্গে এনএভি হিসাব করে ঋণের যোগ্যতা নির্ধারণ করাকে অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানই ঝামেলাপূর্ণ বলে মনে করত। অন্যদিকে মার্জিন ঋণ না থাকায় বিনিয়োগকারীরাও মিউচু্যয়াল ফান্ডের প্রতি অনাগ্রহী হয়ে ওঠে। এ কারণেই বাজারে অধিকাংশ মিউচু্যয়াল ফান্ডের দর অস্বাভাবিক অবস্থানে নেমে আসে।
এনএভির শর্ত বাতিল করায় মিউচু্যয়াল ফান্ডে মার্জিন চালু করার বিষয়ে ইতিবাচক সিদ্ধানত্ম নেয়া সম্ভব হবে বলে মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারেজ হাউসের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। এ বিষয়ে জনতা ক্যাপিটাল এ্যান্ড ইনভেস্টমেট লিমিটেডের উপ-মহাব্যবস্থাপক মোঃ সাইফউল্যাহ জনকণ্ঠকে বলেন, মিউচু্যয়াল ফান্ডে মার্জিন ঋণ প্রদানে বাজার মূল্য এনএভির ১৫০ শতাংশের কম থাকার শর্তের কারণে অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানই এতদিন ঋণ পুরোপুরি বন্ধ রেখেছিল। কারণ কোন মিউচু্যয়াল ফান্ড ঋণ পাবে বা পাবে না_ প্রতিদিন সেই হিসাব করা কঠিন ও ঝামেলাপূর্ণ। এনএভির শর্ত তুলে দেয়ায় মিউচ্যুয়াল ফান্ডে ঋণ চালুর বিষয়ে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নেয়া সম্ভব হবে।

Source: The daily janakantha, 30 December, 2010