Category Archives: IPO Lottery Result

কাট্টলি টেক্সটাইলের আইপিও লটারির তারিখ নির্ধারণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) আবেদন শেষে লটারির তারিখ নির্ধারণ করেছে বস্ত্রখাতের কাট্টলি টেক্সটাইল লিমিটেড। আগামী ৪ অক্টোবর সকাল সাড়ে ১০ টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার, ইনস্টিটিউট, রমনা, ঢাকায় এ কোম্পানির আইপিও লটারি অনুষ্ঠিত হবে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, গত ২৮ আগস্ট থেকে ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ কোম্পানির আইপিও আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়। গত ২৬ জুন কাট্টলি টেক্সটাইল লিমিটেডকে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ৩ কোটি ৪০ লাখ সাধারণ শেয়ার ছেড়ে ৩৪ কোটি টাকা তোলার অনুমতি দেয় বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। উত্তোলিত টাকা দিয়ে কোম্পানিটি কারখানার ভবন নির্মান, কর্মচারীদের ডরমেটরি ভবন নির্মাণ, নতুন যন্ত্রপাতি ক্রয়, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩০ জুন ২০১৭ সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির পুনর্মূল্যায়ন ছাড়া শেয়ার প্রতি সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) হয়েছে ২০.৪৮ টাকা। আর শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৯৪ টাকা।

উল্লেখ, কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে এনআরবি ইকুইটি ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ; ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

 

ইন্দো বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালসের আইপিও লটারির ফলাফল প্রকাশ

 

পুঁজিবাজার থেকে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে অর্থ উত্তোলনকারী প্রতিষ্ঠান ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের আইপিও লটারি অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে সকাল সাড়ে ১০টায় এ ড্র’র অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে।

লটারির ড্র শেষে বিনিয়োগকারীদের জন্য ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। যার লিঙ্কনিচে দেয়া হলো।

স্টক এক্সচেঞ্জের ট্রেক হোল্ডার ও মার্চেন্ট ব্যাংকারদের তালিকা

সাধারণ বিনিয়োগকারী

ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারী

প্রবাসী বিনিয়োগকারী

ইলিজিবল ইনভেষ্টর

প্রসঙ্গত, কোম্পানির আইপিও আবেদন গত ৯ আগষ্ট শুরু হয়, যা শেষ হয় ১৬ আগস্ট। এছাড়া গত ১৬ জুলাই ইন্দোবাংলার আইপিওর সম্মতিপত্র পায় কোম্পানিটি।

এর আগে উচ্চ আদালত কোম্পানিটির আইপিও স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করেছে। ন্যাশনাল ব্যাংকের সঙ্গে কোম্পানির ঋণ সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানের পর এই সম্মতিপত্র পায় কোম্পানিটি।

কোম্পানিটির ৪ জন পরিচালক ঋণ খেলাপি হওয়ায় ন্যাশনাল ব্যাংকের পক্ষ থেকে বরিশালের অর্থ ঋণ আদালতে মামলা দায়ের করা হয়। এতে কোম্পানির আইপিও আবেদনে ৬ মাসের জন্য স্থগিতাদেশ দেয়া হয়েছিল।

এর আগে গত বছরের ৩ অক্টোবর বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ৬১৩ তম কমিশন সভায় কোম্পানিটিকে অর্থ উত্তোলনের অনুমোদন দেওয়া হয়।

ইন্দো-বাংলা ফার্মা আইপিওর মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে ২০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে এ অর্থ উত্তোলন করবে।

উত্তোলিত টাকায় অবকাঠামো নির্মাণ, মেশিনারিজ ক্রয় এবং আইপিও সংক্রান্ত খাতে ব্যয় করবে।

৩০ জুন ২০১৬ হিসাব বছর শেষে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ২.৬২ টাকা। শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ১১.৬৩ টাকা।

উল্লেখ্য, কোম্পানির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে আছে এএফসি ক্যাপিট্যাল, ইবিএল ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড এবং সিএপিএম অ্যাডভাইসরি লিমিটেড।

ইন্দো বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালসের আইপিও লটারির ফলাফল প্রকাশ

পুঁজিবাজার থেকে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে অর্থ উত্তোলনকারী প্রতিষ্ঠান ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের আইপিও লটারি অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে সকাল সাড়ে ১০টায় এ ড্র’র অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে।

লটারির ড্র শেষে বিনিয়োগকারীদের জন্য ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। যার লিঙ্ক দুপুর ১২টা নাগাদ আমাদের হাতে এসে পৌছবে বলে আশা প্রকাশ করছি।

স্টক এক্সচেঞ্জের ট্রেক হোল্ডার ও মার্চেন্ট ব্যাংকারদের তালিকা

সাধারণ বিনিয়োগকারী

ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারী

প্রবাসী বিনিয়োগকারী

ইলিজিবল ইনভেষ্টর

প্রসঙ্গত, কোম্পানির আইপিও আবেদন গত ৯ আগষ্ট শুরু হয়, যা শেষ হয় ১৬ আগস্ট। এছাড়া গত ১৬ জুলাই ইন্দোবাংলার আইপিওর সম্মতিপত্র পায় কোম্পানিটি।

এর আগে উচ্চ আদালত কোম্পানিটির আইপিও স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করেছে। ন্যাশনাল ব্যাংকের সঙ্গে কোম্পানির ঋণ সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানের পর এই সম্মতিপত্র পায় কোম্পানিটি।

কোম্পানিটির ৪ জন পরিচালক ঋণ খেলাপি হওয়ায় ন্যাশনাল ব্যাংকের পক্ষ থেকে বরিশালের অর্থ ঋণ আদালতে মামলা দায়ের করা হয়। এতে কোম্পানির আইপিও আবেদনে ৬ মাসের জন্য স্থগিতাদেশ দেয়া হয়েছিল।

এর আগে গত বছরের ৩ অক্টোবর বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ৬১৩ তম কমিশন সভায় কোম্পানিটিকে অর্থ উত্তোলনের অনুমোদন দেওয়া হয়।

ইন্দো-বাংলা ফার্মা আইপিওর মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে ২০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে এ অর্থ উত্তোলন করবে।

উত্তোলিত টাকায় অবকাঠামো নির্মাণ, মেশিনারিজ ক্রয় এবং আইপিও সংক্রান্ত খাতে ব্যয় করবে।

৩০ জুন ২০১৬ হিসাব বছর শেষে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ২.৬২ টাকা। শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ১১.৬৩ টাকা।

উল্লেখ্য, কোম্পানির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে আছে এএফসি ক্যাপিট্যাল, ইবিএল ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড এবং সিএপিএম অ্যাডভাইসরি লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ/ঢাকা, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সিলভা ফার্মার আইপিও লটারির ড্র সম্পন্ন: ফলাফল প্রকাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দেয়ার জন্য ওষুধ ও রসায়ন খাতের সিলভা ফার্মাসিটিক্যালস লিমিটেডের লটারির ড্র সম্পন্ন হয়েছে। ৩০ আগস্ট (বৃহস্পতিবার) সকাল সাড়ে ১০টায়, রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউট, আইইবি মিলনায়তন, রমনা, ঢাকায় এ লটারির ড্র’র সম্পন্ন হয়।

লটারি শেষে কোম্পানিটি বিজয়ীদের তালিকা প্রকাশ করেছে। ফলাফল জানতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন…….

ট্রেকহোল্ডার ও মার্চেন্ট ব্যাংকের তালিকা

সাধারণ বিনিয়োগকারীদের তালিকা

ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের তালিকা

প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের তালিকা

ইলিজিবল ইনভেষ্টরদের (প্রো রাটা অ্যালটমেন্ট) তালিকা

এর আগে গত ২৯ জুলাই থেকে ৫ আগষ্ট পর্যন্ত বিনিয়োগকারীরা এ কোম্পানির শেয়ারে আবেদন করেন। গত ১১ জুন বিএসইসির ৬৪৭তম কমিশন সভায় এ কোম্পানির আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়। কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ৩ কোটি সাধারণ শেয়ার ইস্যু করে ৩০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। উত্তোলিত অর্থে সিলভা ফার্মাসিউটিক্যালস মেশনারিজ ও যন্ত্রপাতি ক্রয়, কারখানা ভবন নিমার্ণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিওর খরচ বাবদ এ টাকা ব্যয় করবে।

৩০ জুন ২০১৭ সমাপ্ত হিসাব বছরে আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী পূনঃমূল্যায়ন ছাড়াই কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৬৪৮ টাকা। এছাড়া, ভারতি গড় হারে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.০৩ টাকা।

উল্লেখ্য, কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে প্রাইম ফাইন্যান্স ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড, ইম্পেরিয়াল ক্যাপিটাল লিমিটেড ও এসবিএল ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ; ৩০ আগস্ট ২০১৮

সিলভা ফার্মার আইপিও তালিকা প্রকাশ: আপনার আবেদন জমা পড়েছে কি?

নিজস্ব প্রতিবেদক: সিলভা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) ৫ আগস্ট শেষ হয়েছে। আগামী ৩০ আগস্ট বৃহস্পতিবার আইপিও লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হবে।

রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউট (আইইবি) মিলনায়তনে লটারি সম্পন্ন হওয়ার কথা রয়েছে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

নিম্নে কোম্পানির আইপিও লিষ্টের লিঙ্ক দেয়া হয়েছে। নিচের লিঙ্কে ক্লিক করে Ctrl+F প্রেস করে আপনার আইডি নম্বর বসিয়ে দিন। এতে অনেক খোঁজাখুজির ঝামেলা হবে না। এছাড়া তাড়াতাড়ি আপনার আইডি বের করতে পারবেন।

ডিএসই’র তালিকা…. ক্লিক করুন

সিএসই’র তালিকা…. ক্লিক করুন

জানা যায়, ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ৩ কোটি শেয়ার পুঁজিবাজারে ছেড়ে ৩০ কোটি টাকা উত্তোলন করছে সিলভা ফার্মাসিউটিক্যালস। উত্তোলিত অর্থ যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জামাদি ক্রয়, কারখানার ভবন নির্মাণ, ঋণ পরিশোধ ও আইপিও খাতে ব্যয় করা হবে।

৩০ জুন সমাপ্ত ২০১৭ হিসাব বছরে কোম্পানিটির পুনর্মূল্যায়ন ছাড়া শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৬ টাকা ৪৮ পয়সা। আর শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা শূন্য ৩ পয়সা।

কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে প্রাইম ফিন্যান্স ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড, ইম্পেরিয়াল ক্যাপিটাল লিমিটেড ও এসবিএল ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ; ২৯ আগস্ট ২০১৮

সিলভা ফার্মার আইপিও লটারির তারিখ নির্ধারণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) লটারির তারিখ নির্ধারণ করেছে ওষুধ ও রসায়ন খাতের সিলভা ফার্মাসিটিক্যালস লিমিটেড। আগামী ৩০ আগস্ট সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউট, কাকরাইল, ঢাকায় এ কোম্পানির আইপিও লটারি অনুষ্ঠিত হবে। কোম্পানির ইস্যু ম্যানেজার সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, গত ২৯ জুলাই থেকে ৫ আগষ্ট পর্যন্ত বিনিয়োগকারীরা এ কোম্পানির শেয়ারে আবেদন করেন। গত ১১ জুন বিএসইসির ৬৪৭তম কমিশন সভায় এ কোম্পানির আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়। কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ৩ কোটি সাধারণ শেয়ার ইস্যু করে ৩০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। উত্তোলিত অর্থে সিলভা ফার্মাসিউটিক্যালস মেশনারিজ ও যন্ত্রপাতি ক্রয়, কারখানা ভবন নিমার্ণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিওর খরচ বাবদ এ টাকা ব্যয় করবে।

৩০ জুন ২০১৭ সমাপ্ত হিসাব বছরে আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী পূনঃমূল্যায়ন ছাড়াই কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৬৪৮ টাকা। এছাড়া, ভারতি গড় হারে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.০৩ টাকা।

উল্লেখ্য, কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে প্রাইম ফাইন্যান্স ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড, ইম্পেরিয়াল ক্যাপিটাল লিমিটেড ও এসবিএল ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ; ২৪ আগস্ট ২০১৮

এমএল ডাইং‌য়ের আইপিও লটা‌রির ফলাফল প্রকাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: পুঁজিবাজার থেকে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে বস্ত্রখা‌তের এমএল ডাইং লি‌মি‌টেডের আইপিও লটা‌রির ড্র বিজয়ীদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউট, আইইবি মিলনায়তন, রমনা, ঢাকায় এ কোম্পানির আইপিও লটারি ড্র অনুষ্ঠিত হয়।

ফলাফল জানতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন…….

ট্রেকহোল্ডার কোড/মার্চেন্ট ব্যাংক সিরিয়াল নং

সাধারণ বিনিয়োগকারী

ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারী

প্রবাসী বিনিয়োগকারী

সকল ইলিজিবল ইনভেষ্টর (প্রো-রাটা অ্যালটমেন্ট)

লটা‌রির ড্র অনুষ্ঠা‌নে কোম্পা‌নির ব্যবস্থাপনা প‌রিচালক গোলাম আযম চৌধুরী, স্বাধ‌ীন প‌রিচালক সৈয়দ মোহাম্মদ তাজন ইসলাম, কোম্পা‌নি স‌চিব আ‌তিকুর রহমানসহ ইস্যু ম্যা‌নেজার, ডিএসই,‌সিএসই, সি‌ডি‌বিএল এবং বু‌য়ে‌টের প্র‌তি‌নিধিরা উপ‌স্থিত ছিলেন।

এর আগে গত ৮ জুলাই থেকে ১৯ জুলাই পর্যন্ত কোম্পানির আইপিও সাবস্ক্রিপশন অনুষ্ঠিত হয়। গত ১৫ মে এমএল ডাইংয়ের ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি সাধারণ শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে ২০ কোটি টাকা তোলার অনুমোদন দেয় কমিশন।

উত্তোলিত টাকা দিয়ে কোম্পানিটি যন্ত্রপাতি ও কলকব্জা ক্রয় এবং স্থাপনের পাশাপাশি আইপিওতে খরচ করবে।

৩০ জুন ২০১৭ সমাপ্ত হিসাব বছরে পুনর্মূল্যায়ন ছাড়া শেয়ার প্রতি নেট অ্যাসেট ভ্যালু হয়েছে ২৩.৭১ টাকা। আর শেয়ার প্রতি ভারিত গড় হারে আয় হয়েছে ২.৩৫ টাকা।

কোম্পানিটির বর্তমান পরিশোধিত মূলধন ১৪০ কোটি ৪১ লাখ টাকা। আর আইপিও এর মাধ্যমে কোম্পানিটি পুঁজিবাজারে ২ কোটি শেয়ার ছেড়ে ২০ কোটি টাকা সংগ্রহ করার অনুমোদন পেয়েছে। এ টাকা কোম্পানিটি যন্ত্রপাতি ও ইক্যুইপমেন্ট ক্রয়ে ১৭ কোটি ৮৩ লাখ টাকা এবং আইপিও খরচে বাকী টাকা ব্যয় করবে। আইপিও ফান্ড পাওয়ার ২১ মাসের মধ্যে এসব কার্যক্রম সম্পন্ন করবে কোম্পানিটি।

কোম্পানিটির ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছে এনবিএল ক্যাপিটাল এন্ড ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট লি: এবং রূপালী ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ; ০৯ আগস্ট ২০১৮

এমএল ডাইংয়ের আইপিও লটারি ফল মিলবে আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক: পুঁজিবাজার থেকে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে অর্থ উত্তোলনের অনুমোদন পাওয়া এমএল ডাইং লিমিটেডের আইপিও লটারির তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। আজ, ৯ আগষ্ট সকাল সাড়ে ১০টায় ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউট, আইইবি মিলনায়তন, রমনা, ঢাকায় এ কোম্পানির আইপিও লটারি অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে গত ৮ জুলাই থেকে ১৯ জুলাই পর্যন্ত কোম্পানির আইপিও সাবস্ক্রিপশন অনুষ্ঠিত হয়। পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৬৪৪তম কমিশন সভায় কোম্পানিটিকে আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়।
জানা গেছে, কোম্পানিটি পুঁজিবাজারে ২ কোটি সাধারণ শেয়ার ছেড়ে ২০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। এ জন্য প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ টাকা।

কোম্পানিটি উত্তোলিত অর্থে যন্ত্রপাতি ও কলকব্জা ক্রয় ও স্থাপন করবে। এছাড়া বাদবাকি অর্থে আইপিও খরচ বাবদ ব্যয় করবে।
৩০ জুন ২০১৭ সমাপ্ত বছরের আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী পুনঃমূল্যায়ন ছাড়া শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২৩.২৩.৭১ টাকা ও শেয়ার প্রতি মুনাফা (ইপিএস) গড় হারে হয়েছে ২.৩৫ টাকা।

উল্লেখ্য, কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পালন করছে এনবিএল ক্যাপিটাল অ্যান্ড ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড ও রূপালী ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ; ০৮ আগস্ট ২০১৮

ভিএফএস থ্রেড ডাইংয়ের আইপিও লটারির ফল আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক : ভিএফএস থ্রেড ডাইং লিমিটেডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) লটারি আজ, বৃহস্পতিবার (১৯ জুলাই) অনুষ্ঠিত হবে। সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউটে এ ড্র অনুষ্ঠিত হবে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, ভিএফএস থ্রেড ডাইং লিমিটেডের আইপিওতে ৪৫.৫৭ গুণ আবেদন জমা পড়েছে। গত ২৪ জুন থেকে কোম্পানিটির আইপিও আবেদন শুরু হয় যা চলে ২ জুলাই পর্যন্ত।

কোম্পানিটির শেয়ার কেনার জন্য মোট ১১ কোটি শেয়ারের জন্য ৫০১ কোটি ২৭ লাখ টাকার আবেদন পড়েছে।

এর আগে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৬৩৮তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন দিয়েছে।

ভিএফএস থ্রেড ডাইং লিমিটেড আইপিওর মাধ্যমে বাজার থেকে ২২ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। কোম্পানিটিকে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ইস্যু করার অনুমোদন দিয়েছে কমিশন।

৩০ জুন ২০১৭ সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৯ টাকা ৯০ পয়সা। এ সময়ের কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ২ টাকা শূন্য ২ পয়সা।

জানা যায়, এ টাকা দিয়ে কোম্পানিটি প্ল্যান্ট ও মেশিনারিজ ক্রয়, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ ও আইপিও খরচে ব্যয় করবে।

উল্লেখ, কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে সিটিজেন সিকিউরিটিজ লিমিটেড ও ফার্স্ট সিকিউরিটিজ ক্যাপিটাল অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ; ১৯ জুলাই ২০১৮

ভিএফএস থ্রেড ডাইংয়ের আইপিও লটারির তারিখ ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভিএফএস থ্রেড ডাইং লিমিটেডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) লটারি আগামী ১৯ জুলাই সকাল সাড়ে ১০টায় ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউট, আইইবি মিলনায়তন, রমনা, ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, গত ২৪ জুন থেকে ২ জুলাই পর্যন্ত এ কোম্পা‌নির আই‌পিও‌ আ‌বেদন অনুষ্ঠিত হয়। এর আ‌গে বিএসইসির ৬৩৮তম কমিশন সভায় এ আইপিও অনুমোদন দেওয়া হয়।

ভিএফএস থ্রেড ডাইংয়ে আপনার আবেদন জমা পড়েছে কি?
কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ইস্যু করে ২২ কোটি টাকা তুলবে। এ টাকা দিয়ে কোম্পানিটি প্ল্যান্ট ও মেশিনারিজ ক্রয়, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ ও আইপিও খরচে ব্যয় করবে।

৩০ জুন ২০১৭ সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৯.৯০ টাকা। এ সময়ের কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ২.০২ টাকা।

কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে সিটিজেন সিকিউরিটিজ লিমিটেড ও ফার্স্ট সিকিউরিটিজ ক্যাপিটাল অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।