Monthly Archives: July 2018

VFS Thread Dyeing Ltd IPO result publish on 19th July 2018

VFS Thread Dyeing IPO Result 2018

Now a days almost every month ipo (initial public offering)) Share come in the Share Market. IPO Subscriber or Investors dedicated get their IPO Lottery in Every single Shares. But Unfortunately, many investors raise in share market. That’s its difficult to get their all ipo shares. Though, if anyone apply and submit more application, they have to chance get ipo. Actually, we have said it from previous report of share bazar. So, have a look detail of VFS Thread Dyeing Limited IPO Share and Lottery Draw.

VFS Thread Dyeing Limited Official Website is http://vfsthread.com (www vfs thread com). VFS Tread Dyeing Subscription will start from 24 June’18 and it was end on 2 July’18. According to latest news ews report, VFS Thread Dyeing Ltd IPO result publish on 19th July 2018.

এমএল ডাইংয়ের আইপিও আবেদন শুরু রোববার

নিজস্ব প্রতিবেদক: সম্প্রতি প্রাথমিক গণপ্রস্থাবের (আইপিও) অনুমোদন পাওয়া কোম্পানি এমএল ডাইংয়ের আইপিও চাঁদা গ্রহণ শুরু হবে আগামী ৮ জুলাই (রোববার)। যা চলবে আগামী ১৯ জুলাই পর্যন্ত। কোম্পানি সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

এর আগে গত ১৫ মে এমএল ডাইংয়ের ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি সাধারণ শেয়ার প্রাথমিক গণ প্রস্তাব (আইপিও) এর মাধ্যমে ইস্যু প্রস্তাব অনুমোদন দেয় কমিশন।

আইপিও এর মাধ্যমে কোম্পানিটি ২০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। উত্তোলিত টাকা দিয়ে কোম্পানিটি যন্ত্রপাতি ও কলকব্জা ক্রয় এবং স্থাপনের পাশাপাশি আইপিওতে খরচ করবে।

৩০ জুন ২০১৭ সমাপ্ত হিসাব বছরে পুনর্মূল্যায়ন ছাড়া শেয়ার প্রতি নেট অ্যাসেট ভ্যালু হয়েছে ২৩ টাকা ৭১ পয়সা। আর শেয়ার প্রতি ভারিত গড় হারে আয় হয়েছে ২ টাকা ৩৫ পয়সা।

উল্লেখ্য, কোম্পানিটি কোনো সম্পদ পূণর্মূল্যায়ন করেনি। কোম্পানির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে এনবিএল ক্যাপিটাল অ্যান্ড ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট ও রূপালী ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ; ০৬ জুলাই ২০১৮

আমান কটনের আইপিও লটারির চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ

আমান কটনের আইপিও লটারির চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ

পুঁজিবাজার থেকে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে আবেদন সংগ্রহ করা আমান কটন ফাইবার্সলিমিটেডের আইপিও লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হয়েছে। পুঁজিবাজার থেকে ৩০ কোটি টাকা উত্তোলনের অনুমোদন পাওয়া আমান কটনের প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) সাড়ে ১১ আবেদন জমা পড়েছে।সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তন, রমনা, ঢাকায় ড্র অনুষ্ঠান শুরু হয়।

লটারির ড্র শেষে বিনিয়োগকারীদের জন্য ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে।

জানা গেছে, কোম্পানিটির আইপিওতে দেশী বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ২৯২ কোটি ৩১ লাখ ৮৯ হাজার ২০০ টাকার, ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ২৯ কোটি ৪০ লাখ ৪ হাজার ৮০০ টাকার এবং বিদেশী বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ২৭ কোটি ৫২ লাখ ৮৪ হাজার ৮০০ টাকার আবেদন জমা পড়েছে। যা উত্তোলিত অর্থের চেয়ে ১১.৬৪ গুন। আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দেয়া জন্য লটারির ড্র ওইদিন সকাল সাড়ে ১০ টায় ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউট, আইইবি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে ৩ মে থেকে ১০ জুন পর্যন্ত কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদন গ্রহণ করা হয়।

জানা গেছে, কোম্পানিটি শেয়ারবাজার থেকে ৮০ কোটি টাকা উত্তোলনের জন্য ২ কোটি ৮ লাখ ৩৩ হাজার ৩৩৩টি শেয়ার ইস্যু করবে। এর মধ্যে ১ কোটি ২৫ লাখ শেয়ার ৪০ টাকা মূল্যে যোগ্য বিনিয়োগকারীদের নিকট ইস্যূ করা হবে। বাকি ৮৩ লাখ ৩৩ হাজার ৩৩৩টি শেয়ার ৩৬ টাকা মূল্যে (প্রাপ্ত মূল্য ১০ শতাংশ বাট্টায়) আইপিওতে ইস্যু করা হবে।

আইপিওর মাধ্যমে উত্তোলিত অর্থ দিয়ে কোম্পানিটি যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম ক্রয়, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিও খাতে ব্যয় করবে।

কোম্পানিটির ৩০ জুন ২০১৬ সমাপ্ত অর্থবছরের শেয়ার প্রতি আয় করে ৩.৩৮ টাকা। আর ২০১৭ সমাপ্ত অর্থবছরে করে ৩.৪৬ টাকা।

কোম্পানিটির ৩০ জুন ২০১৬ সমাপ্ত আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি নেট অ্যাসেট ভ্যালু (পুনর্মূল্যায়নসহ) হয় ৩৫.৬৩ টাকা। যা ২০১৭ সমাপ্ত অর্থবছরে ৩৯.১২ টাকায় এসে দাড়িয়েছে।

বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে বিডিং শেষ হওয়া আমান কটন ফাইবার্সের শেয়ারের কাট-অফ প্রাইস নির্ধারিত হয়েছিল ৪০ টাকা। সেই দামের ১০ শতাংশ কমে ৩৬ টাকা দরে আইপিওতে শেয়ার ইস্যু করা হয়।

আমান কটন ফাইবার্স লিমিটেডকে আইপিওতে আনতে ইস্যু ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড। আর ইস্যুর রেজিস্টারের দায়িত্বে আছে প্রাইম ব্যাংক ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড।

ভিএফএস থ্রেড ডাইংয়ের আইপিও আবেদনের শেষ দিন আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভিএফএস থ্রেড ডাইং লিমিটেডকে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) আ‌বেদন গত ২৪ জুন থেকে শুরু হয়েছে। বি‌নি‌য়োগকারীরা আজ ২ জুলাই পর্যন্ত এ কোম্পা‌নির আই‌পিও‌তে আ‌বেদন কর‌তে পার‌বেন। কোম্পা‌নি সূ‌ত্রে এ তথ্য জানা গে‌ছে।

এর আ‌গে বিএসইসির ৬৩৮তম কমিশন সভায় এ আইপিও অনুমোদন দেওয়া হয়।

কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ইস্যু করে ২২ কোটি টাকা তুলবে। এ টাকা দিয়ে কোম্পানিটি প্ল্যান্ট ও মেশিনারিজ ক্রয়, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ ও আইপিও খরচে ব্যয় করবে।

৩০ জুন ২০১৭ সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৯.৯০ টাকা। এ সময়ের কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ২.০২ টাকা।

কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে সিটিজেন সিকিউরিটিজ লিমিটেড ও ফার্স্ট সিকিউরিটিজ ক্যাপিটাল অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ; ০২ জুলাই ২০১৮

আমান কটনের আইপিও লটারির তারিখ পরিবর্তন

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামী ৩ জুলাই আমান কটন ফাইব্রাস এর আইপিও লটারির তারিখ নির্ধারণ করা হলেও অনিবার্য কারণবশত তারিখটি পরিবর্তন করেছে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ। আগামী ৩ জুলাইয়ের পরিবর্তে ৪ জুলাই বুধবার, সকাল সাড়ে ১০টায়, ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউট, আইইবি মিলনায়তন, রমনা, ঢাকায় এ কোম্পানি আইপিও লটারি অনুষ্ঠিত হবে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, কোম্পানিটির আইপিও আবেদন গত ৩ জুন থেকে ১০ জুন পর্যন্ত চলে। গত ৩ মে কোম্পানিটিকে আইপিও সাবস্ক্রিপশন শুরুর জন্য কনসেন্ট লেটার ইস্যু করবে বাংলাদেশ সিকিউরিটজ অ্যান্ড একচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। এর আগে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৬২৯তম সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন দেওয়া হয়।

এর আগে গত বছরের নভেম্বর মাসে আমান কটনের ইলেকট্রনিক বিডিং সম্পন্ন হয়। বিডিংয়ে ৪০ টাকা কাট অফ প্রাইস নির্ধারিত হয়। এর মধ্যে কাট অফ প্রাইসে যোগ্য প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের (ইআই) কাছে ১ কোটি ২৫ লাখ শেয়ার ইস্যু করা হবে। আর কাট অফ প্রাইসের ১০ শতাংশ কমে অর্থাৎ ৩৬ টাকায় ৮৩ লাখ ৩৩ হাজার ৩৩৩টি শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে বিক্রি করবে কোম্পানিটি।

পুঁজিবাজার থেকে সংগ্রহ করা অর্থের একটি বড় অংশ দিয়ে কারখানায় আধুনিক মেশিনারি স্থাপন করা হবে। এতে ব্যয় করা হবে ৪৯ কোটি ৩৭ লাখ ৯৮ হাজার টাকা। আইপিওতে উত্তোলিত বাকী অর্থ থেকে ১৭ কোটি ১২ লাখ টাকা ব্যয় হবে ঋণ পরিশোধে। ওয়ার্কিং মূলধন হিসাবে ব্যয় করা হবে ১০ কোটি টাকা। আর আইপিওতে ব্যয় হবে সাড়ে ৩ কোটি টাকা।

কোম্পানির প্রতিটি শেয়ারের অভিহিত মূল্য হবে ১০ টাকা।

৩০ জুন ২০১৬ সমাপ্ত হিসাব বছরের কোম্পানিটির স্থায়ী সম্পদের পুনর্মূল্যায়ণসহ নিট সম্পদ মূল্য হয়েছে ৩৫.৬৩ টাকা। বিগত ৫ বছরের আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি গড় আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩.৩৯ টাকা।

আমান কটন মূলত সুতা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান। কটন, পলিস্টার, সিল্কসহ অন্যান্য ফাইবার উৎপাদন করে তারা। গাজীপুরের শ্রীপুরে অবস্থিত আমান কটন ফাইব্রাসের কারখানায় ২০০৬ সালে পরীক্ষামূলক উৎপাদন শুরু হয়। আর ২০০৭ সালে পূর্ণাঙ্গ বাণিজ্যিক উৎপাদনে যায় তারা।

উল্লেখ, কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ; ১ জুলাই ২০১৮