Monthly Archives: December 2014

রিফান্ড ও এলোটমেন্ট পাঠিয়েছে সি অ্যান্ড এ

প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) লটারির পর রিফান্ড ওয়ারেন্ট এবং এলোটমেন্ট লেটার পাঠিয়েছে সি অ্যান্ড এ টেক্সটাইল লিমিটেড। সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, আইপিও লটারিতে যেসব আবেদনকারী লটারিতে শেয়ার বরাদ্দ পায়নি তাদের টাকা পাঠানো হয়েছে আর শেয়ার বরাদ্দদের বরাদ্দপত্র পাঠিয়েছে বলে কোম্পানিটি জানিয়েছে।

কোম্পানিটি জানিয়েছে ৭ লাখ ৮৮ হাজার ৩২৯টি আবেদনের রিফান্ড ওয়ারেন্ট এবং বরাদ্দপত্র অনলাইনের মাধ্যমে, ৬ লাখ ৩৯ হাজার ৪২টি রিফান্ড ওয়ারেন্ট এবং বরাদ্দপত্র হাতে হাতে এবং ১৪ হাজার ৬৯৯টি রিফান্ড ওয়ারেন্ট এবং বরাদ্দপত্র কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে পাঠিয়েছে।

গত ১৯ ডিসেম্বর বাংলা কুরিয়ার সার্ভিস, ভিশন এক্সপ্রেস লিমিটেড, আর.এম. কুরিয়ার, টপ এক্সপ্রেস এবং কন্টিনেন্ট এক্সপ্রেসের মাধ্যমে পাঠানো হয়েছে।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১২.৪৫ঘ

 

বাংলাদেশ স্টিলে আইপিও আবেদন শুরু ১ ফেব্রুয়ারি

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) অনুমোদন পাওয়া বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেডে আবেদন গ্রহণ শুরু হবে ১ ফেব্রুয়ারি থেকে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদন গ্রহণ ১ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে শেষ হবে ৫ ফেব্রুয়ারি। তবে প্রবাসি বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ থাকবে ১৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

কোম্পানিটি শেয়ারবাজারে ১ কোটি ৭৫ লাখ শেয়ার ছেড়ে আইপিওর মাধ্যমে ৬১ কোটি ২৫ লাখ টাকা উত্তোলন করবে। এ জন্য ১০ টাকা ফেসভ্যালুর সঙ্গে ২৫ টাকা প্রিমিয়ামসহ প্রতিটি শেয়ারের নির্দেশক মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩৫ টাকা।

আইপিওর মাধ্যমে অর্থ উত্তোলন করে কোম্পানিটি ঋণ পরিশোধ ও আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩১ ডিসেম্বর ২০১৩ সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫.০৬ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভি) হয়েছে ৫২.০৯ টাকা।

আইপিও ব্যবস্থাপনায় কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে রয়েছে অ্যালায়েন্স ফাইন্যান্স সার্ভিসেস লিমিটেড।

এর আগে বিএসইসির ৫৩৩ তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও’র অনুমোদন দেয়া হয়।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১৪.০০ঘ.

 

রোববার থেকে ইফাদের অ্যালোটমেন্ট বিতরণ শুরু

ইফাদ অটোস লিমিটেডের অ্যালোটমেন্ট লেটার বা বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ শুরু হবে আগামীকাল ২৮ ডিসেম্বর রোববার। কোম্পানি উপ-ব্যবস্থাপক নাফিজুর ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
কোম্পানি সূত্রে জানা গেছে, রোববার থেকে শুরু করে পহেলা জানুয়ারি বৃহস্পতিবার পর্যন্ত রিফান্ড বিতরণের সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রতিদিন সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত ব্যাংক রশিদের বিনিময়ে বরাদ্দপত্র এবং রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে।
জানা গেছে, পল্টন কমিউনিটি সেন্টার ও ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থায় বরাদ্দপত্র এবং রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে ।
রোববার ব্যাংক এশিয়ার নিচে উল্লিখিত শাখাসমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে বিতরণ করা হবে। শাখাগুলো হচ্ছে-বসুন্ধরা কর্পোরেট, ধানমন্ডি, গুলশান, এমসিবি বনানী, এমসিবি দিলকুশা, মিরপুর, মিডফোর্ড, মগবাজার, মহাখালি, নর্থসাউথ রোড, পল্টন এবং প্রিন্সিপাল অফিস শাখা। ওইদিন ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থায় বিতরণ করা হবে ব্র্যাক ব্যাংক অনুমোদিত সকল শাখাসমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট।
সোমবার ব্যাংক এশিয়া অনুমোদিত উপরে উল্লিখিত শাখা ছাড়া অনুমোদিত সকল শাখার বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে বিতরণ করা হবে। ওইদিন পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে ঢাকা ব্যাংকের অনুমোদিত সকল শাখার রিফান্ড বিতরণ করা হবে।
একইদিনে ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থায় ডিএসই, সিএসই অনুমোদিত স্টক ব্রোকার্স, মার্চেন্ট ব্যাংকার্স ও ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি) অনুমোদিত সকল শাখাসমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে।
মঙ্গলবার পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে মার্কেন্টাল ব্যাংক ও প্রিমিয়ার ব্যাংক অনুমোদিত সকল শাখার বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে। একই দিনে ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থায় সাউথইস্ট ব্যাংকের কর্পোরেট ও প্রিন্সিপাল শাখা ছাড়া অনুমোদিত শাখাসমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে।
বুধবার পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে ন্যাশনাল ব্যাংক অনুমোদিত শাখাসমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে। ওইদিন ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থায় সাউথইস্ট ব্যাংকের শুধুমাত্র কর্পোরেট ও প্রিন্সিপাল শাখার এবং দি সিটি ব্যাংকের অনুমোদিত শাখার রিফান্ড বিতরণ করা হবে।
বৃহস্পতিবার পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক অনুমোদিত শাখাসমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে। ওইদিন ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থায় ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক অনুমোদিত সকল শাখার রিফান্ড বিতরণ করা হবে। একই জায়গায় (মিউচ্যুয়াল ফান্ড এবং আই/এ হিসাবসমূহ) এবং এনআরবি ফান্ডের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড বিতরণ করা হবে।
কিন্তু যারা নির্ধারিত তারিখের মধ্যে রিফান্ড ওয়ারেন্ট সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হবে, তাদের নিজ ঠিকানায় কুরিয়ারের মাধ্যমে পাঠানো হবে।

তবে যেসব বিনিয়োগকারী এবি ব্যাংক লিমিটেড, আল-আরফা ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, আল-ফালাহ ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড, ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড, কমার্শিয়াল ব্যাংক অব সিলন পিএলসি, ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড, ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড, ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড, এক্সিম ব্যাংক লিমিটেড, ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, যমুনা ব্যাংক লিমিটেড, মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেড, মিউচুয়্যাল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড, ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড, ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান, এনসিসি ব্যাংক লিমিটেড, ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড, প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড, প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড, শাহাজালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড, স্ট্যান্ডার্ড চার্টাড ব্যাংক, স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া, দি সিটি ব্যাংক ট্রাস্ট ব্যাংক এবং ওরি ব্যাংকে যাদের অ্যাকাউন্ট আছে তাদের নিজ নিজ অ্যাকাউন্টে রিফান্ড জমা হয়ে যাবে। তবে প্রবাসী বিনিয়োগকারীরা এ সুযোগ পাবে না।
এছাড়াও কোনো বিনিয়োগকারীর অ্যাকাউন্টে টাকা জমা না হলে আগামী ১৫ থেকে ২০ জানুয়ারি মধ্যে নিচের ঠিকানায় যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। শুক্রবার ও সরকারী ছুটির দিন ছাড়া সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ৪টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় কচি কাঁচার মেলা, সেগুন বাগিচায় যোগাযোগ করতে হবে।
শেয়ারনিউজ২৪/এজেড/গমেজ/১৬.৩১ঘ.

 

আজ থেকে জাহিন স্পিনিংয়ে আবেদন

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে অর্থ উত্তোলেনর অনুমোদন পাওয়া জাহিন স্পিনিং লিমিটেডে আবেদন গ্রহণ শুরু আজ ২৮ ডিসেম্বর, রোববার থেকে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদন গ্রহণ আজ শুরু হয়ে শেষ হবে ৫ জানুয়ারি। তবে প্রবাসি বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ থাকবে ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত।

কোম্পানিটি শেয়ারবাজারে ১ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ছেড়ে ১২ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। এ জন্য প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ টাকা।

৩০ জুন ২০১৪ সমাপ্ত অর্থবছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.০১ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভি) হয়েছে ১২.৫৯ টাকা।

আইপিওতে কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে এমটিবি ক্যাপিটাল লিমিটেড।

এর আগে বিএসইসির ৫৩০ তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন করা হয়।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১০.৩০ঘ.

 

রোববার থেকে জাহিন স্পিনিংয়ে আবেদন

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে অর্থ উত্তোলেনর অনুমোদন পাওয়া জাহিন স্পিনিং লিমিটেডের আবেদন গ্রহণ শুরু হবে ২৮ ডিসেম্বর, রোববার। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদন গ্রহণ ২৮ ডিসেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ৪ জানুয়ারি। তবে প্রবাসি বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ থাকবে ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত।

কোম্পানিটি শেয়ারবাজারে ১ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ছেড়ে ১২ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। এ জন্য প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ টাকা।

৩০ জুন ২০১৪ সমাপ্ত অর্থবছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.০১ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভি) হয়েছে ১২.৫৯ টাকা।

আইপিওতে কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে এমটিবি ক্যাপিটাল লিমিটেড।

এর আগে বিএসইসির ৫৩০ তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন করা হয়।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১৬.৪৫ঘ.

 

বাংলাদেশ স্টিলের প্রসপেক্টাস অনুমোদন

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) অনুমোদন পাওয়া বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেডের প্রসপেক্টাস অনুমোদন করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এর আগে বিএসইসির ৫৩৩ তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও’র অনুমোদন দেয়া হয়।

আইপিও’র মাধ্যমে কোম্পানিটি শেয়ারবাজারে ১ কোটি ৭৫ লাখ শেয়ার ছেড়ে আইপিওর মাধ্যমে ৬১ কোটি ২৫ লাখ টাকা উত্তোলন করবে। এ জন্য ১০ টাকা ফেসভ্যালুর সঙ্গে ২৫ টাকা প্রিমিয়ামসহ প্রতিটি শেয়ারের নির্দেশক মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩৫ টাকা।

আইপিওর মাধ্যমে অর্থ উত্তোলন করে কোম্পানিটি ঋণ পরিশোধ ও আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩১ ডিসেম্বর ২০১৩ সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫.০৬ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভি) হয়েছে ৫২.০৯ টাকা।

আইপিও ব্যবস্থাপনায় কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে রয়েছে অ্যালায়েন্স ফাইন্যান্স সার্ভিসেস লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১১.৪৫ঘ.

 

ইফাদ অটোসের লটারির ড্র চলছে

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবে (আইপিও) আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দেয়ার জন্য ইফাদ অটোস লিমিটেডের লটারির ড্র চলছে। লটারির ড্র সকাল সাড়ে ১০টায়, রাজধানীর রমনাতে অবস্থিত ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

কোম্পানিটির আইপিওতে গত ২৩ থেকে ২৭ নভেম্বর পর্যন্ত আবেদন গ্রহণ করা হয়। তবে প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ ছিলো ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

জানা গেছে, কোম্পানিটির আইপিওতে ১ হাজার ২৩ কোটি ৩৯ লাখ ৫০ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়েছে। এর মধ্যে সাধারণ কোটায় ৭০২ কোটি ৬৩ লাখ ৬০ হাজার টাকার, ক্ষতিগ্রস্ত কোটায় ৭৮ কোটি ২৮ লাখ ৬২ হাজার টাকার, মিউচ্যুয়াল ফান্ড কোটায় ১৮৫ কোটি ৫৭ লাখ ৬৪ হাজার টাকার এবং প্রবাসি বিনিয়োগকারী কোটায় ৫৬ কোটি ৮৯ লাখ ৬৪ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়েছে। যা কোম্পানির উত্তোলনকৃত টাকর ১৬.০৫ গুণ।

ইফাদ অটোস শেয়ারবাজার থেকে ৬৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা উত্তোলনের জন্য ২ কোটি ১২ লাখ ৫০ হাজার শেয়ার ছেড়েছে। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সঙ্গে ২০ টাকা প্রিমিয়ামসহ প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩০ টাকা। ২০০টি শেয়ারে মার্কেট লট।

আইপিওর মাধ্যমে অর্থ উত্তোলন করে কোম্পানিটি ব্যবসা সম্প্রসারণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩০ জুন ২০১৪ সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫.১৬ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে (রিভেলুয়েশনসহ) ৪৪.১২ টাকা।

কোম্পানিটির আইপিওতে ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে বেনকো ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড এবং আলফা ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

এর আগে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫২৭ তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১০.৩৫ঘ.

ইফাদ অটোসের লটারির ড্র কাল

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবে (আইপিও) আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দেয়ার জন্য ইফাদ অটোস লিমিটেডের লটারির ড্র আগামীকাল ২৪ ডিসেম্বর, বুধবার অনুষ্ঠিত হবে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, কোম্পানিটির আইপিও লটারির ড্র সকাল সাড়ে ১০টায়, রাজধানীর রমনাতে অবস্থিত ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে অনুষ্ঠিত হবে।

কোম্পানিটির আইপিওতে গত ২৩ থেকে ২৭ নভেম্বর পর্যন্ত আবেদন গ্রহণ করা হয়। তবে প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ ছিলো ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

জানা গেছে, কোম্পানিটির আইপিওতে ১ হাজার ২৩ কোটি ৩৯ লাখ ৫০ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়েছে। এর মধ্যে সাধারণ কোটায় ৭০২ কোটি ৬৩ লাখ ৬০ হাজার টাকার, ক্ষতিগ্রস্ত কোটায় ৭৮ কোটি ২৮ লাখ ৬২ হাজার টাকার, মিউচ্যুয়াল ফান্ড কোটায় ১৮৫ কোটি ৫৭ লাখ ৬৪ হাজার টাকার এবং প্রবাসি বিনিয়োগকারী কোটায় ৫৬ কোটি ৮৯ লাখ ৬৪ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়েছে। যা কোম্পানির উত্তোলনকৃত টাকর ১৬.০৫ গুণ।

ইফাদ অটোস শেয়ারবাজার থেকে ৬৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা উত্তোলনের জন্য ২ কোটি ১২ লাখ ৫০ হাজার শেয়ার ছেড়েছে। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সঙ্গে ২০ টাকা প্রিমিয়ামসহ প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩০ টাকা। ২০০টি শেয়ারে মার্কেট লট।

আইপিওর মাধ্যমে অর্থ উত্তোলন করে কোম্পানিটি ব্যবসা সম্প্রসারণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩০ জুন ২০১৪ সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫.১৬ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে (রিভেলুয়েশনসহ) ৪৪.১২ টাকা।

কোম্পানিটির আইপিওতে ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে বেনকো ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড এবং আলফা ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

এর আগে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫২৭ তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১০.৪৫ঘ.

ইফাদ অটোসের আইপিও লটারি বুধবার

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবে (আইপিও) আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দেয়ার জন্য ইফাদ অটোস লিমিটেডের লটারির ড্র আগামী ২৪ ডিসেম্বর, বুধবার অনুষ্ঠিত হবে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, ওই দিন কোম্পানিটির আইপিও লটারির ড্র সকাল সাড়ে ১০টায়, রাজধানীর রমনাতে অবস্থিত ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে অনুষ্ঠিত হবে।

কোম্পানিটির আইপিওতে গত ২৩ থেকে ২৭ নভেম্বর পর্যন্ত আবেদন গ্রহণ করা হয়। তবে প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ ছিলো ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

জানা গেছে, কোম্পানিটির আইপিওতে ১ হাজার ২৩ কোটি ৩৯ লাখ ৫০ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়েছে। এর মধ্যে সাধারণ কোটায় ৭০২ কোটি ৬৩ লাখ ৬০ হাজার টাকার, ক্ষতিগ্রস্ত কোটায় ৭৮ কোটি ২৮ লাখ ৬২ হাজার টাকার, মিউচ্যুয়াল ফান্ড কোটায় ১৮৫ কোটি ৫৭ লাখ ৬৪ হাজার টাকার এবং প্রবাসি বিনিয়োগকারী কোটায় ৫৬ কোটি ৮৯ লাখ ৬৪ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়েছে। যা কোম্পানির উত্তোলনকৃত টাকর ১৬.০৫ গুণ।

ইফাদ অটোস শেয়ারবাজার থেকে ৬৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা উত্তোলনের জন্য ২ কোটি ১২ লাখ ৫০ হাজার শেয়ার ছেড়েছে। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সঙ্গে ২০ টাকা প্রিমিয়ামসহ প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩০ টাকা। ২০০টি শেয়ারে মার্কেট লট।

আইপিওর মাধ্যমে অর্থ উত্তোলন করে কোম্পানিটি ব্যবসা সম্প্রসারণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩০ জুন ২০১৪ সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫.১৬ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে (রিভেলুয়েশনসহ) ৪৪.১২ টাকা।

কোম্পানিটির আইপিওতে ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে বেনকো ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড এবং আলফা ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

এর আগে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫২৭ তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১০.৫৫ঘ.