Monthly Archives: November 2014

ন্যাশনাল ফিডের অ্যালটমেন্ট লেটার বিতরণ শুরু রোববার

ন্যাশনাল ফিড মিল লিমিটেডের অ্যালটমেন্ট লেটার বা বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ শুরু হবে আগামীকাল রোববার থেকে। ৩০ নভেম্বর রোববার থেকে ৪ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার পর্যন্ত রিফান্ড বিতরণের সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে। কোম্পানির সিএফও ফিরোজ আলম এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সিএফও জানান গেছে, প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ব্যাংক রশিদের বিনিময়ে বরাদ্দপত্র এবং রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে। আর এ বিতরণ হবে পল্টন কমিউনিটি সেন্টার ও ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থায়।

কোম্পানির সূত্রে জানা গেছে, রোববার আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক ও বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকের অনুমোদিত সকল শাখাসমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে বিতরণ করা হবে। একই দিনে ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থায়ও বিতরণ হবে।

সোমবার যমুনা ব্যাংক লিমিটেডের অনুমোদিত সকল শাখাসমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে বিতরণ করা হবে। একই দিনে ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থায় ইস্টার্ন ব্যাংক ও ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি) অনুমোদিত সকল শাখাসমূহতেও বিতরণ করা হবে ।

মঙ্গলবার পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে ওয়ান ব্যাংক লিমিটেডের কাওরান বাজার, মতিঝিল এবং প্রন্সিপাল শাখা অনুমোদিত সকল শাখার বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে। একই দিনে মার্কেন্টাইল ব্যাংক ও প্রাইম ব্যাংকের অনুমোদিত শাখাসমূহে বিতরণ হবে।

বুধবার পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে কাওরান বাজার, মতিঝিল শাখার এবং শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক অনুমোদিত শাখাসমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে। একই দিনে ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থায় সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক অনুমোদিত শাখাসমূহে বিতরণ করা হবে।

বৃহস্পতিবার স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক অনুমোদিত শাখাসমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে বিতরণ করা হবে। একই দিনে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক আউমোদিত অনিবাসী বাংলাদেশী (এনআরবি), সকল (মিউচ্যুয়াল ফান্ড এবং আই/এ হিসাবসমূহ) ও স্টক ব্রোকার্স (ডি.এসই/সিএসই) ও মার্চেন্ট ব্যাংকার্সদেরসমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থায় বিতরণ করা হবে।

উল্লেখ্য, যারা নির্ধারিত তারিখের মধ্যে রিফান্ড ওয়ারেন্ট সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হবে, তাদের নিজ ঠিকানায় কুরিয়ারের মাধ্যমে পাঠানো হবে। কোনো বিনিয়োগকারীর অ্যাকাউন্টে টাকা জমা না হলে আগামী ২০ থেকে ২৮ ডিসেম্বর মধ্যে নিচের ঠিকানায় যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। শুক্রবার ও সরকারী ছুটির দিন ছাড়া সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ৪টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় কচি কাঁচার মেলা, সেগুন বাগিচায় যোগাযোগ করতে হবে।

শেয়ারনিউজ২৪/আনিস/গমেজ/১৫.৫৫ঘ.

 

ন্যাশনাল ফিডের আইপিও লটারির ড্র আজ

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) আবেদন গ্রহণ শেষে আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দেয়ার জন্য ন্যাশনাল ফিড মিল লিমিটেডের লটারির ড্র আজ ২৭ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হবে। সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, আজ কোম্পানিটির লটারির ড্র রাজধানীর রমনায় অবস্থিত ইনষ্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স (আইইবি) এর সেমিনার হলে সকাল সাড়ে ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে।

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবে কোম্পানিটিতে ৮৪৪ কোটি ৪৬ লাখ ৩০ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়েছে। যা উত্তোলনকৃত অর্থের ৪৬.৯১ গুণ। এর মধ্যে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৫৫০ কোটি ৮২ লাখ ৫০ হাজার টাকার, ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৬১ কোটি ৮৩ লাখ ৪৫ হাজার টাকার, এনআরবি বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৩৩ কোটি ৬৫ লাখ ৩৫ হাজার টাকার এবং মিউচ্যুয়াল ফান্ড খাতের বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ১৯৮ কোটি ১৫ লাখ টাকার আবেদন জমা পড়েছে।

এর আগে কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদন ২৬ অক্টোবর ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত গ্রহণ করা হয়। তবে প্রবাসি বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ ছিলো ৮ নভেম্বর পর্যন্ত।

ন্যাশনাল ফিড শেয়ারবাজার থেকে ১৮ কোটি টাকা উত্তোলনের জন্য ১ কোটি ৮০ লাখ শেয়ার ছেড়েছে। এ জন্য প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ টাকা। ৫০০টি শেয়ারে মার্কেট লট নির্ধারণ করা হয়েছে।

আইপিওর মাধ্যমে উত্তোলিত অর্থ দিয়ে কোম্পানিটি ব্যবসায় সম্প্রসারণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ, চলতি মূলধন এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩১ ডিসেম্বর ২০১৩ সমাপ্ত অর্থবছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৮৬ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভি) হয়েছে ১৪.৫৫ টাকা।

কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পালন করছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড এবং পিএলএফএস ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১০.১৫ঘ.

 

ন্যাশনাল ফিডের আইপিও লটারির ড্র কাল

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) আবেদন গ্রহণ শেষে আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দেয়ার জন্য ন্যাশনাল ফিড মিল লিমিটেডের লটারির ড্র আগামী ২৭ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হবে। সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, এ দিন কোম্পানিটির লটারির ড্র রাজধানীর রমনায় অবস্থিত ইনষ্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স (আইইবি) এর সেমিনার হলে সকাল সাড়ে ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে।

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবে কোম্পানিটিতে ৮৪৪ কোটি ৪৬ লাখ ৩০ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়েছে। যা উত্তোলনকৃত অর্থের ৪৬.৯১ গুণ। এর মধ্যে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৫৫০ কোটি ৮২ লাখ ৫০ হাজার টাকার, ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৬১ কোটি ৮৩ লাখ ৪৫ হাজার টাকার, এনআরবি বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৩৩ কোটি ৬৫ লাখ ৩৫ হাজার টাকার এবং মিউচ্যুয়াল ফান্ড খাতের বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ১৯৮ কোটি ১৫ লাখ টাকার আবেদন জমা পড়েছে।

এর আগে কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদন ২৬ অক্টোবর ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত গ্রহণ করা হয়। তবে প্রবাসি বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ ছিলো ৮ নভেম্বর পর্যন্ত।

ন্যাশনাল ফিড শেয়ারবাজার থেকে ১৮ কোটি টাকা উত্তোলনের জন্য ১ কোটি ৮০ লাখ শেয়ার ছেড়েছে। এ জন্য প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ টাকা। ৫০০টি শেয়ারে মার্কেট লট নির্ধারণ করা হয়েছে।

আইপিওর মাধ্যমে উত্তোলিত অর্থ দিয়ে কোম্পানিটি ব্যবসায় সম্প্রসারণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ, চলতি মূলধন এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩১ ডিসেম্বর ২০১৩ সমাপ্ত অর্থবছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৮৬ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভি) হয়েছে ১৪.৫৫ টাকা।

কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পালন করছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড এবং পিএলএফএস ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১২.০০ঘ.

 

ন্যাশনাল ফিডের আইপিও লটারির ড্র বৃহস্পতিবার

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) আবেদন গ্রহণ শেষে আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দেয়ার জন্য ন্যাশনাল ফিড মিল লিমিটেডের লটারির ড্র আগামী ২৭ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হবে। সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, ওই দিন কোম্পানিটির লটারির ড্র রাজধানীর রমনায় অবস্থিতি ইনষ্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স (আইইবি) এর সেমিনার হলে সকাল সাড়ে ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে। প্রাথমিক গণ প্রস্তাবে কোম্পানিটিতে ৮৪৪ কোটি ৪৬ লাখ ৩০ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়েছে। যা উত্তোলনকৃত অর্থের ৪৬.৯১ গুণ। এর মধ্যে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৫৫০ কোটি ৮২ লাখ ৫০ হাজার টাকার, ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৬১ কোটি ৮৩ লাখ ৪৫ হাজার টাকার, এনআরবি বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৩৩ কোটি ৬৫ লাখ ৩৫ হাজার টাকার এবং মিউচ্যুয়াল ফান্ড খাতের বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ১৯৮ কোটি ১৫ লাখ টাকার আবেদন জমা পড়েছে।

এর আগে কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদন ২৬ অক্টোবর ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত গ্রহণ করা হয়। তবে প্রবাসি বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ ছিলো ৮ নভেম্বর পর্যন্ত।

ন্যাশনাল ফিড শেয়ারবাজার থেকে ১৮ কোটি টাকা উত্তোলনের জন্য ১ কোটি ৮০ লাখ শেয়ার ছেড়েছে। এ জন্য প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ টাকা। ৫০০টি শেয়ারে মার্কেট লট নির্ধারণ করা হয়েছে।

আইপিওর মাধ্যমে উত্তোলিত অর্থ দিয়ে কোম্পানিটি ব্যবসায় সম্প্রসারণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ, চলতি মূলধন এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩১ ডিসেম্বর ২০১৩ সমাপ্ত অর্থবছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৮৬ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভি) হয়েছে ১৪.৫৫ টাকা।

কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পালন করছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড এবং পিএলএফএস ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১৬.০০ঘ.

 

ইফাদ অটোসে আইপিও আবেদন শুরু

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) অনুমোদন পাওয়া ইফাদ অটোস লিমিটেডে আবেদন গ্রহণ শুরু হয়েছে আজ থেকে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদন গ্রহণ আজ শুরু হয়েছে যা শেষ হবে ২৭ নভেম্বর। তবে প্রবাসি বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ থাকবে ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

ইফাদ অটোস শেয়ারবাজারে ২ কোটি ১২ লাখ ৫০ হাজার শেয়ার ছেড়ে ৬৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা উত্তোলন করবে। এ জন্য ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সঙ্গে ২০ টাকা প্রিমিয়ামসহ প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩০ টাকা। ২০০টি শেয়ারে মার্কেট লট।

আইপিওর মাধ্যমে অর্থ উত্তোলন করে কোম্পানিটি ব্যবসা সম্প্রসারণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩০ জুন ২০১৪ সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫.১৬ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে (রিভেলুয়েশনসহ) ৪৪.১২ টাকা।

কোম্পানিটির আইপিওতে ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে বেনকো ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড এবং আলফা ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

এর আগে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫২৭ তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১০.৪৫ঘ.

জাহিন স্পিনিংয়ে আবেদন গ্রহণ শুরু ২৮ ডিসেম্বর

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে অর্থ উত্তোলেনর অনুমোদন পাওয়া জাহিন স্পিনিং লিমিটেডে আবেদন গ্রহণ শুরু হবে ২৮ ডিসেম্বর, রোববার। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদন গ্রহণ ২৮ ডিসেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ৪ জানুয়ারি। তবে প্রবাসি বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ থাকবে ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত।

কোম্পানিটি শেয়ারবাজারে ১ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ছেড়ে ১২ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। এ জন্য প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ টাকা।

৩০ জুন ২০১৪ সমাপ্ত অর্থবছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.০১ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভি) হয়েছে ১২.৫৯ টাকা।

আইপিওতে কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দিোয়ত্বে রয়েছে এমটিবি ক্যাপিটাল লিমিটেড।

এর আগে বিএসইসির ৫৩০ তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন করা হয়।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১৪.২০ঘ.

 

খান ব্রাদার্সের লেনদেন শুরু

প্রাথমিক গণ প্রস্তাব (আইপিও) প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়া খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেডের শেয়ার লেনদেন আজ ১৮ নভেম্বর, মঙ্গলবার থেকে দেশের উভয় শেয়াবাজারে শুরু হয়েছে। উভয় শেয়ারবাজারে কোম্পানিটি ‘এন’ ক্যাটাগরিতে লেনদেন শুরু হয়। ডিএসইতে ট্রেডিং কোড”KBPPWBIL” এবং ডিএসই কোম্পানি কোড: ৯৯৬৩৯। সিএসইতে কোম্পানিটির স্ক্রিপ আইডি:৩২০১৯ এবং স্ক্রিপ কোড: KBPPWBIL।

এদিকে কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ ৩০ জুন ২০১৪ সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ঘোষিত লভ্যাংশ অনুমোদনের জন্য বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) আগামী ২৯ ডিসেম্বর, দুপুর ২টায়, আইডিইবি ভবন, ১৬০/এ, কাকরাইল, ঢাকাতে অনুষ্ঠিত হবে। এ সংক্রান্ত রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ৮ ডিসেম্বর। সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা শেষে কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ১.৭১ টাকা এবং এনএভিপিএস হয়েছে ১৫.৮৫ টাকা।
এর আগে আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দেয়ার জন্য কোম্পানিটির আইপিও লটারির ড্র ২৫ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। আইপিওতে বরাদ্দ পাওয়া শেয়ার লটারি বিজয়ী বিনিয়োগকারীদের বেনিফিশিয়ারি ওনার্স (বিও) অ্যাকাউন্টে জমা হয়েছে।

এ কোম্পানিটির আইপিওতে মোট ৮৭২ কোটি ৫০ লাখ ৫৫ হাজার টাকার বা ৪৩.৬২ গুন আবেদন জমা পড়ে। এর মধ্যে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৫৭০ কোটি ৯৫ লাখ ৫০ হাজার টাকার, ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৬১ কোটি ৮৪ লাখ ৫৫ হাজার টাকার, মিউচ্যুয়াল ফান্ডে ১৯৮ কোটি ৯৯ লাখ টাকার এবং প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৪০ কোটি ৭১ লাখ ৫০ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়ে। কোম্পানিটি শেয়ারবাজার থেকে ২০ কোটি টাকা সংগ্রহের জন্য ২ কোটি শেয়ার ছেড়েছে। কোম্পানির প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ টাকা এবং মার্কেট লট ৫০০টি শেয়ারে।

স্থানীয় বিনিয়োগকারীরা ২৪ থেকে ২৮ আগস্ট পর্যন্ত এবং প্রবাসীরা ৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ কোম্পানির আইপিওতে আবেদন করার সুযোগ পান।

কোম্পানিটি মেশিনারিজ কেনা, বিল্ডিং নির্মাণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ ও চলতি মূলধন বাড়াবে শেয়ারবাজার থেকে অর্থ উত্তোলন করে।

এর আগে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫২১তম সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন দেওয়া হয়।

ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্বে পালন করে এএফসি ক্যাপিটাল লিমিটেড এবং সিএমএসএল ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১১.১০ঘ.

 

ইফাদ অটোসে আইপিও আবেদন শুরু রোববার

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) অনুমোদন পাওয়া ইফাদ অটোস লিমিটেডে আবেদন গ্রহণ শুরু হবে আগামী ২৩ নভেম্বর, রোববার থেকে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদন গ্রহণ ২৩ নভেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ২৭ নভেম্বর। তবে প্রবাসি বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ থাকবে ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

ইফাদ অটোস শেয়ারবাজারে ২ কোটি ১২ লাখ ৫০ হাজার শেয়ার ছেড়ে ৬৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা উত্তোলন করবে। এ জন্য ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সঙ্গে ২০ টাকা প্রিমিয়ামসহ প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩০ টাকা। ২০০টি শেয়ারে মার্কেট লট।

আইপিওর মাধ্যমে অর্থ উত্তোলন করে কোম্পানিটি ব্যবসা সম্প্রসারণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩০ জুন ২০১৪ সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫.১৬ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে (রিভেলুয়েশনসহ) ৪৪.১২ টাকা।

কোম্পানিটির আইপিওতে ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে বেনকো ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড এবং আলফা ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

এর আগে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫২৭ তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়।

শেয়ারনিউজ২৪/এস/১১.৩৫ঘ.