Monthly Archives: August 2014

সোমবার লেনদেনে তুং হাই নিটিং

প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) প্রক্রিয়া শেষ হওয়ায় সোমবারে (১লা সেপ্টেম্বর) শেয়ারবাজারে স্বাভাবিক লেনদেন করবে তুং হাই নিটিং অ্যান্ড ডাইং লিমিটেডের শেয়ার। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্র ধেথকে এ তথ্য জানা গেছে
তথ্য মতে, সোমবার ‘এন’ ক্যাটাগরির আওতায় তুং হাইয়ের শেয়ার লেনদেন শুরু হবে। পরবর্তী বার্ষিক সাধারণ সভার (এজিএম) পূব পর্যন্ত শেয়ারটি ‘এন’ ক্যাটাগরিতে থাকবে। ডিএসইতে এ কোম্পানির ট্রেডিং কোড “TUNGHAI” এবং কোম্পানি কোড ১৭৪৬৩। এর আগে গত ১৪ আগস্ট তুং হাইকে শেয়ার লেনদেন করার অনুমোদন দেয় ডিএসই। গত ১৯ জুন তুং হাইয়ের আইপিও লটারি অনুষ্ঠিত হয়। ১৮ মে থেকে ২২ মে পর্যন্ত স্থানীয় বিনিয়োগকারীদের আইপিও আবেদন গ্রহণ করা হয়। তবে প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ ছিল ৩১ মে পর্যন্ত।
এদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) তুং হাইকে তালিকাভুক্তির অনুমোদন দিয়েছে। তবে লেনদেন শুরুর তারিখ এখনও জানানো হয়নি।

১ সেপ্টেম্বর তুং হাই নিটিংয়ের লেনদেন শুরু

থমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) প্রক্রিয়া শেষ হওয়ায় আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে তুং হাই নিটিংয়ের শেয়ার লেনদেন শুরু হবে বলে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

এ দিন ‘এন’ ক্যাটাগরির আওতায় এ শেয়ারের লেনদেন শুরু হবে। পরবর্তী বার্ষিক সাধারণ সভার (এজিএম) আগ পর্যন্ত শেয়ারটি ‘এন’ ক্যাটাগরিতে থাকবে। ডিএসইতে এ কোম্পানির ট্রেডিং কোড হবে “TUNGHAI” এবং কোম্পানি কোড হবে ১৭৪৬৩।

এর আগে গত ১৪ আগস্ট তুং হাই নিটিংকে শেয়ার লেনদেন করার অনুমোদন দেয় ডিএসই।

গত ১৯ জুন তুং হাই নিটিং অ্যান্ড ডাইং লিমিটেডের আইপিও লটারি অনুষ্ঠিত হয়। ১৮ মে থেকে ২২ মে পর্যন্ত স্থানীয় বিনিয়োগকারীদের আইপিও আবেদন গ্রহণ করা হয়। তবে প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ ছিল ৩১ মে পর্যন্ত।

উল্লেখ্য, ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) এ কোম্পানিকে তালিকাভুক্তির অনুমোদন দিয়েছে। তবে লেনদেন শুরুর তারিখ এখনও জানানো হয়নি।

 

ফারইস্ট নিটিং লেনদের শুরু আজ

আজ বৃহস্পতিবার শুরু হচ্ছে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া ফারইস্ট নিটিং অ্যান্ড ডাইয়িং ইন্ডাস্ট্রিজের শেয়ার লেনদেন। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, ফারইস্ট নিটিংয়ের আবেদনের প্রেক্ষিতে আগামী বৃহস্পতিবার কোম্পানিটির লেনদেন শুরুর তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের বিও হিসাবে লটারিতে বরাদ্দ পাওয়া শেয়ার জমা করেছে। আর গত ১৪ আগস্ট ডিএসইতে তালিকাভুক্ত হয় ফার ইস্টনিটিং।

সম্প্রতি আইপিও প্রক্রিয়া শেষ করেছে ফার ইস্টনিটিং। আইপিওতে কোম্পানিটি ২ কোটি ৫০ লাখ শেয়ার ইস্যু করে। এর মাধ্যমে বাজার থেকে সংগ্রহ করে ৬৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা। আইপিওতে নির্ধারিত সংখ্যার চেয়ে বেশী আবেদন জমা পড়ায় লটারির মাধ্যমে শেয়ার বরাদ্দ দেওয়া হয়। গত ১৭ জুলাই ওই লটারি অনুষ্ঠিত হয়। আইপিওতে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের শেয়ারে ১৭ টাকা করে প্রিমিয়াম নিয়েছে কোম্পানিটি। আর অফার প্রাইস ছিল ২৭ টাকা।

উল্লেখ্য, গত ৫ বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী ৩০ জুন ২০১৩ শেষ হওয়া অর্থ বছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২.৫৪ টাকা। আর শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৯.০৮ টাকা। 

ফারইস্ট নিটিং লেনদের শুরু আগামীকাল

আগামীকাল, বৃহস্পতিবার শুরু হচ্ছে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া ফারইস্ট নিটিং অ্যান্ড ডাইয়িং ইন্ডাস্ট্রিজের শেয়ার লেনদেন। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, ফারইস্ট নিটিংয়ের আবেদনের প্রেক্ষিতে আগামী বৃহস্পতিবার কোম্পানিটির লেনদেন শুরুর তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের বিও হিসাবে লটারিতে বরাদ্দ পাওয়া শেয়ার জমা করেছে। আর গত ১৪ আগস্ট ডিএসইতে তালিকাভুক্ত হয় ফার ইস্টনিটিং।

সম্প্রতি আইপিও প্রক্রিয়া শেষ করেছে ফার ইস্টনিটিং। আইপিওতে কোম্পানিটি ২ কোটি ৫০ লাখ শেয়ার ইস্যু করে। এর মাধ্যমে বাজার থেকে সংগ্রহ করে ৬৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা। আইপিওতে নির্ধারিত সংখ্যার চেয়ে বেশী আবেদন জমা পড়ায় লটারির মাধ্যমে শেয়ার বরাদ্দ দেওয়া হয়। গত ১৭ জুলাই ওই লটারি অনুষ্ঠিত হয়। আইপিওতে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের শেয়ারে ১৭ টাকা করে প্রিমিয়াম নিয়েছে কোম্পানিটি। আর অফার প্রাইস ছিল ২৭ টাকা।

উল্লেখ্য, গত ৫ বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী ৩০ জুন ২০১৩ শেষ হওয়া অর্থ বছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২.৫৪ টাকা। আর শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৯.০৮ টাকা। 

ফারইস্ট নিটিং লেনদের শুরু বৃহস্পতিবার

আগামী ২৮ আগস্ট, বৃহস্পতিবার শুরু হচ্ছে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া ফারইস্ট নিটিং অ্যান্ড ডাইয়িং ইন্ডাস্ট্রিজের শেয়ার লেনদেন। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) একটি দায়িত্বশীল সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

জানা গেছে, ফারইস্ট নিটিংয়ের আবেদনের প্রেক্ষিতে আগামী বৃহস্পতিবার কোম্পানিটির লেনদেন শুরুর তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের বিও হিসাবে লটারিতে বরাদ্দ পাওয়া শেয়ার জমা করেছে। আর গত ১৪ আগস্ট ডিএসইতে তালিকাভুক্ত হয় ফার ইস্টনিটিং।

সম্প্রতি আইপিও প্রক্রিয়া শেষ করেছে ফার ইস্টনিটিং। আইপিওতে কোম্পানিটি ২ কোটি ৫০ লাখ শেয়ার ইস্যু করে। এর মাধ্যমে বাজার থেকে সংগ্রহ করে ৬৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা। আইপিওতে নির্ধারিত সংখ্যার চেয়ে বেশী আবেদন জমা পড়ায় লটারির মাধ্যমে শেয়ার বরাদ্দ দেওয়া হয়। গত ১৭ জুলাই ওই লটারি অনুষ্ঠিত হয়। আইপিওতে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের শেয়ারে ১৭ টাকা করে প্রিমিয়াম নিয়েছে কোম্পানিটি। আর অফার প্রাইস ছিল ২৭ টাকা।

উল্লেখ্য, গত ৫ বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী ৩০ জুন ২০১৩ শেষ হওয়া অর্থ বছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২.৫৪ টাকা। আর শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৯.০৮ টাকা।

১১ সেপ্টেম্বর ওয়েস্টার্ন মেরিনের আইপিও লটারি

আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দিতে আগামী ১১ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) লটারির ড্র। কোম্পানি সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র মতে, শেয়ারবাজারে ৪ কোটি ৫০ লাখ শেয়ার ছেড়ে ১৫৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা সংগ্রহ করার কথা রয়েছে ওয়েস্টার্ন মেরিনের। আরআইপিওতেজমা পড়েছে ৪২২ কোটি ৮০ লাখ ৫২ হাজার ৫০০ টাকার আবেদন। সে হিসেবে ২.৬৮ গুণ আবেদন জমা পড়েছে। যাকোম্পানির মোট চাহিদার আড়াই গুণ।

আর এ জন্য আগামী ১১ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটে আইপিও লটারির ড্র অনুুষ্ঠিত হবে।

তবে প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের কোটার সব আবেদন হাতে না পৌঁছানোয় হিসাব সামান্য বাড়তে পারে বলেও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

কোম্পানিটি আইপিওতে ফেসভ্যালু ১০ টাকার সঙ্গে ২৫ টাকা প্রিমিয়াম নিয়েছে। এ শেয়ারের মার্কেট লট ১০০টিতে।

উল্লেখ্য, ওয়েস্টার্ন মেরিনের আইপিওতে সাধারণ বিনিয়োগকারীরা গত ১০ থেকে ১৪ আগস্ট পর্যন্ত আবেদন করার সুযোগ পান। আর প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য আবেদনের শেষ সময় ছিল ২৪ আগস্ট।

 

রোববার খান ব্রাদার্সের আইপিও আবেদন শুরু

রোববার শুরু হচ্ছে খান ব্রাদার্স পিপিওভেন ব্যাগ লিমিটেডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) আবেদন। কোম্পানি সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

এর আগে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫২১তম সভায় এ কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন দেওয়া হয়।

আগামীকাল, রোববার শুরু হয়ে এ আইপিও আবেদন বৃহস্পতিবার (২৮আগস্ট) পর্যন্ত চলবে। তবে প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য এই সুযোগ থাকবে ৬ সেপ্টেম্বর, শনিবার পর্যন্ত। 

আইপিওতে ২ কোটি শেয়ার ইস্যু করবে কোম্পানিটি। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে শেয়ার ছাড়বে কোম্পানিটি। আইপিও’র শেয়ারে কোনো প্রিমিয়াম নিচ্ছে না খান ব্রাদার্স।

আইপিও’র মাধ্যমে কোম্পানিটি বাজার থেকে ২০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। শেয়ারবাজার থেকে উত্তোলিত টাকা কোম্পানিটি মেশিনারিজ কেনা, বিল্ডিং নির্মাণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ ও চলতি মূলধন সংস্থানে কাজে লাগাবে বলে জানা গেছে।

৩০ জুন ২০১৩ সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত হিসাবসহ বিগত পাঁচ বছরের শেয়ার প্রতি আয়ের (ইপিএস) ছিল ০.৮৭ টাকা। আর শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য বা (এনএভি) ছিল ১৪.৬৯ টাকা। ২০১৩ সালে কোম্পানির ইপিএস দাঁড়ায় ১.৬৭ টাকা।

উল্লেখ্য, খান ব্রাদার্সের ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছে দুটি কোম্পানি। এগুলো হচ্ছে- এএফসি ক্যাপিটাল লিমিটেড এবং সিএমএসএল ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

মঙ্গলবার আরএসআরএমের রিফান্ড বিতরণ শুরু

রতনপুর স্টিল রি-রোলিং মিল লিমিটেডের (আরএসআরএম) অ্যালটমেন্ট লেটার বা বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ শুরু হবে মঙ্গলবার। ২১ আগস্ট, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত রিফান্ড বিতরণ করা হবে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। 

জানা গেছে, সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ব্যাংক রশিদের বিনিময়ে বরাদ্দপত্র এবং রিফান্ড ওয়ারেন্ট ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থা ঝিলপাড় ও পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে বিতরণ করা হবে।

১৯ আগস্ট মঙ্গলবার ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থা বিতরণ করা হবে ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ, ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড এবং ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেডের অনুমোদিত সব শাখায় বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট।

এদিন পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে বিতরণ করা হবে আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেড ও মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেডের অনুমোদিত সব শাখার বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট। 

২০ আগস্ট বুধবার ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থা বিতরণ করা হবে সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড ও ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড এবং জনতা ব্যাংক লিমিটেডের অনুমোদিত সব শাখার বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট।

ওইদিন পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে বিতরণ করা হবে ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড, ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড এবং এনসিসি ব্যাংক লিমিটেড অনুমোদিত সব শাখার বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট।

২১ আগস্ট বৃহস্পতিবার ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থা বিতরণ করা হবে দি সিটি ব্যাংক লিমিটেড, প্রবাসী বাংলাদেশিদের (এনআরবি) সব মিউচুয়্যাল ফান্ড এবং আই/এ বিনিয়োগ হিসাবগুলোর বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট।

একই দিনে পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে বিতরণ করা হবে ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড, ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড এবং প্রাইম ব্যাংক অনুমোদিত সব শাখার বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট।

প্রত্যেক বিনিয়োগকারী তাদের নিজ নিজ ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে রিফান্ড ওয়ারেন্ট সংগ্রহ করতে পারবেন। যেসব বিনিয়োগকারীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে অনলাইন সুবিধা চালু নেই তাদের উপোরক্ত ঠিকানা থেকে রিফান্ড সংগ্রহ করতে হবে।

এদিকে যেসব বিনিয়োগকারী এবি ব্যাংক লিমিটেড, আল-আরফা ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, আল-ফালাহ ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড, ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড, কমার্শিয়াল ব্যাংক অব সিলন পিএলসি, ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড, ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড, ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড, এক্সিম ব্যাংক লিমিটেড, ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, যমুনা ব্যাংক লিমিটেড, মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেড, মিউচুয়্যাল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড, ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড, ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান, এনসিসি ব্যাংক লিমিটেড, ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড, প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড, প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড, শাহাজালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড, স্ট্যান্ডার্ড চার্টাড ব্যাংক, স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া, দি সিটি ব্যাংক ট্রাস্ট ব্যাংক এবং উড়ি ব্যাংকে যাদের অ্যাকাউন্ট আছে তাদের নিজ নিজ অ্যাকাউন্টে রিফান্ড জমা হয়ে যাবে। তবে প্রবাসী বিনিয়োগকারীরা এ সুযোগ পাবে না। 

খুলনা প্রিন্টিংয়ের লেনদেন শুরু আজ

প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে অর্থ সংগ্রহ করার পর খুলনা প্রিন্টিংয়ের শেয়ারের লেনদেন আজ স্টক এক্সচেঞ্জে শুরু হবে। কোম্পানিটির ট্রেডিং কোড কেপিপিএল, কোম্পানি কোড ১৯৫১১। এন ক্যাটাগরির কোম্পানি হিসেবে এ শেয়ারের লেনদেন শুরু হবে। প্রতিষ্ঠানটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ৪ কোটি শেয়ার ছেড়ে ৪০ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে বলে জানা গেছে।

এদিকে হিসাব বছরের প্রথম নয় মাসে খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং লিমিটেডের মুনাফা বেড়েছে ২৩ শতাংশ। সম্প্রতি কোম্পানিটি তাদের তৃতীয় প্রান্তিকের (জুলাই-মার্চ) মাসের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রকাশ করলে এমনটিই দেখা গেছে। প্রতিবেদন অনুসারে কোম্পানিটির হিসাব বছরের প্রথম নয় মাসে নেট মুনাফা হয়েছে ৬ কোটি ৪৮ লাখ ৯০ হাজার টাকা, যা আগের বছর একই সময় ছিল ৫ কোটি ২৬ লাখ ১০ হাজার টাকা। এ সময় কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ৪৬ পয়সা, যা আগের বছর একই সময় ছিল ১ টাকা ৯৯ পয়সা।

অন্যদিকে জানুয়ারি-মার্চ সময়ে কোম্পানিটির নেট মুনাফা হয়েছে ৪ কোটি ২৫ লাখ টাকা, যা আগের বছর একই সময় ছিল ২ কোটি ৭৭ লাখ ৭০ হাজার টাকা। এ সময় কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৬১ পয়সা, যা আগের বছর একই সময় ছিল ১ টাকা ৫ পয়সা।

প্রসঙ্গত, কেপিপিএলের আইপিও কার্যক্রম নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়। বিএসইসি কর্তৃক আইপিও অনুমোদনের পর একটি অনলাইন সংবাদ মাধ্যমে কেপিপিএলের প্রকাশিত প্রসপেক্টাসের বিভিন্ন অসঙ্গতি তুলে ধরে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। পরবর্তী সময়ে একটি জাতীয় দৈনিকেও এ কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদন ও পরিচালনা পর্ষদের চার সদস্যের স্থায়ী নিবাস সম্পর্কে দেয়া তথ্য নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। তবে বিভিন্ন গণমাধ্যমে কোম্পানির বিভিন্ন অসঙ্গতি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ হলেও বিএসইসি থেকে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।

পরবর্তীতে ৭ মে এক আদেশে কেপিপিএলের চাঁদা গ্রহণ দুই সপ্তাহের জন্য স্থগিতের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। আইপিওর জন্য প্রকাশিত প্রসপেক্টাসে মিথ্যা তথ্য দেয়ার অভিযোগে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। এসব প্রতিবেদন যুক্ত করে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. রায়হানুল মোস্তফা জনস্বার্থে রিট আবেদন করেন। রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে কোম্পানিটির আইপিও-সংক্রান্ত সব কার্যক্রম স্থগিতের নির্দেশ দেন বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার ও বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ। একই সঙ্গে এ কোম্পানির আইপিও আবেদন সংগ্রহে পরবর্তী কার্যক্রম বন্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণে কেন নির্দেশনা দেয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুলও জারি করেন হাইকোর্ট।

ইস্যু ব্যবস্থাপক সোনালী ইনভেস্টমেন্টের আপিল আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে চেম্বার আদালত হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করেন। পরবর্তীতে কেপিপিএল আইপিও-সংক্রান্ত কার্যক্রম সম্পন্ন করে।