Monthly Archives: August 2012

আইপিও সূচক চালু প্রক্রিয়ায় সিএসই

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ইসলামিক শরিয়া অনুযায়ী পরিচালিত কোম্পানিগুলো নিয়ে একটি ইসলামিক সূচক চালু করার প্রক্রিয়া শুরু করেছে দেশের অন্যতম পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই)।

একই সঙ্গে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের মাধ্যমে (আইপিও) পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত নতুন কোম্পানিগুলোর নিয়ে স্বতন্ত্র আরেকটি সূচক চালু করারও পরিকল্পনাও রয়েছে স্টক এক্সচেঞ্জটির।

বৃহস্পতিবার বাংলানিউজের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন সিএসই’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) সৈয়দ সাজিদ হোসেন।

আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে সূচক দুটির বিষয়ে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনে (এসইসি) প্রস্তাবনা পাঠানো হবে বলেও আশা করছেন তিনি।

এ বিষয়ে সিএসই’র সিইও সৈয়দ সাজিদ হোসেন বলেন, শরিয়াহ্ অনুযায়ী পরিচালিত অনেক ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বীমা কোম্পানি পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়েছে। এসব কোম্পানি সম্পর্কে সাধারণ বিনিয়োগকারী তথা ধর্মীয় মন-মানসিকতা সম্পন্ন বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ রয়েছে। তারা যেন এ সকল প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে সঠিকভাবে জানতে পারেন সে জন্যই ইসলামিক ইনডেক্স নামক এ সূচকটি চালু করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

সূচক প্রণয়নে অগ্রগতি সম্পর্কে তিনি বলেন, এরইমধ্যে সিএসই’র পক্ষ থেকে শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের শরীয়া বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করা হয়েছে। শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের বোর্ডের সুপারিশ অনুযায়ী একটি ইসলামিক ইনডেক্স সম্পর্কিত সাব-কমিটি গঠনেরও প্রক্রিয়া শুরু করেছে সিএসই। সে হিসেবে আগামী দু সপ্তাহের মধ্যে সিএসই বোর্ডে এ সংক্রান্ত কয়েকটি বৈঠক হওয়ার পরে এসইসিতে প্রস্তাব দেওয়া সম্ভব হবে বলে আশা করছেন ।

এছাড়া আইপিও সূচক চালুর বিষয়ে তিনি বলেন, যে সকল কোম্পানিগুলো স্টক এক্সচেঞ্জে নতুন তালিকাভুক্ত হবে সে সকল কোম্পানিকে এ সূচকের আওতায় নেওয়া হবে। আর লেনদেন শুরু হওয়ার পরে দুই বছর নতুন তালিকাভুক্ত কোম্পানিকে আইপিও সূচকে রাখা হবে।

প্রসঙ্গত, পৃথিবীর গুরুত্ব পূর্ণ পুঁজিবাজার গুলোতে বেশ কয়েকটি সূচক চালু রয়েছে। বাংলাদেশের পার্শবর্তী দেশ ভারতের বোম্বে স্টক এক্সচেঞ্জেও (বিএসই) বিএমই আইপিও সূচক রয়েছে।

সেনসেক্স মূল সূচকের পাশাপাশি খাত ভিত্তিক সূচক ছাড়াও বড় মূলধনী কোম্পানি, ছোট মূলধনী কোম্পানিভিত্তিক সূচক রয়েছে বোম্বে স্টক এক্সচেঞ্জে।

এদিকে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ডিএসই সাধারণ সূচক ও ডিএসই সার্বিক সূচক নামে দুটি সূচক চালুর রয়েছে। ডিএসই-৩০ সূচক নামে একটি সূচক প্রণয়নের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আর সিএসইতে তিনটি সূচক রয়েছে। এগুল হল- সিএসই সিলেকটিভ ইনডেক্স বা এসইসি-৩০, সিএসই সিলেকটিভ ক্যাটাগরিস ইনডেক্স বা সিএসসিএক্স এবং সিএসই অল শেয়ার প্রাইস ইনডেক্স বা সিএএসপিআই।

উল্লিখিত ইসলামিক ও আইপিও সূচক দুইটি সূচক চালু হলে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে সূচকের সংখ্যা দঁড়াবে পাঁচটিতে।

সূত্র: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম, ৩১ অগাস্ট ২০১২

বিও অ্যাকাউন্টের নবায়ন ফি নেবে না ডিএসই

পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের বেনিফিশিয়ারি ওনার্স (বিও) অ্যাকাউন্ট নবায়নে ফি নেবে না ডিএসই। ডিএসইর সভাপতি রকিবুর রহমান বলেন, সাধারণ বিনিয়োগকারীদের বিও অ্যাকাউন্ট নবায়নে ধার্য বার্ষিক না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদ। বিষয়টি সেন্ট্রাল ডিপোজেটরি অব বাংলাদেশ লিমিটেডকে (সিডিবিএল) তাদের অংশের ফি না নেওয়ার অনুরোধ জানানো হবে। প্রস্তাবে সিডিবিএলও সম্মত হবে বলে আশা করেন তিনি। একই সঙ্গে সরকার ও এসইসিকে অনুরোধ করব, তাদের অংশেরটা না নেওয়ার জন্য। এভাবে ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের ক্ষতির সামান্য অংশ পুষিয়ে দেওয়া সম্ভব হবে বলে মন্তব্য করেন ডিএসইর সভাপতি।
উল্লেখ্য, বিও অ্যাকাউন্ট নবায়নের জন্য বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে বার্ষিক ৫০০ টাকা আদায় করা হয়। বার্ষিক ফি দিতে ব্যর্থ হলে তার হিসাব বন্ধ হয়ে যায়। রকিবুর রহমান বলেন, যদি সরকার ও অন্য প্রতিষ্ঠানগুলো আমাদের প্রস্তাবে রাজি হয়, তবে ভবিষ্যতে বিনিয়োগকারীদের বিও হিসাব নবায়ন করার জন্য আর ফি দিতে হবে না।

সূত্র: কালের কণ্ঠ, ২৮ আগষ্ট ২০১২

DSE for total exemption of BO renewal fees

Dhaka Stock Exchange (DSE) has taken a number of initiatives, including total exemption of existing renewal fees for BO accounts and the re-structuring of listed companies’ category based on performance, officials said.

DSE President Rakibur Rahman said the move has been taken from DSE end to ease investors’ participation in the stock market and boost the performance of listed companies respectively.

“It’s not logical to close an investor’s BO account due to his failure in depositing renewal fees, although his shares are stored in the account,” Rahman told the FE.

An investor has to pay Tk 500 to re-new his account in June-July of every year. Normally, an investor’s BO account is made suspended for non-payment of renewal fee. And the account is closed if it holds no share.

Among the renewal fee of Tk 500, the government gets Tk 200, Central Depository Bangladesh Limited (CDBL) Tk 150, the SEC Tk 50 and depository participants (DPs) Tk 100.

Presently, there are over 2.38 million active BO accounts as on August 27, 2012. Within last two months over 0.4 million accounts were closed for non-payment of account renewal fees and due to sluggish trend in secondary market. Investors are also listless to the shares sold through the IPO (initial public offering) market.

However, if the average number of BO accounts is around 2.0 million, the renewal fees amounting to Tk 1.0 will to be exempted every year in accordance with DSE proposal.

The DSE president said their board has already approved the exemption the fee of Tk 100 charged by the DPs.

Asked whether other stakeholders, who also get a portion from BO account renewal fees, would be agreed with their proposal, the DSE president said they would request them to consider the issue.

“We are in the board of CDBL. It will be easier for us to make agree the CDBL for giving exemption to the renewal fees of BO accounts,” DSE president Mr. Rahman said.

He said the DSE would also request the SEC and the government to exempt their portions in account renewal fees.

“All the stakeholders will be benefited if investors’ participation increases through significant amount of active BO accounts,” Rahman said.

However, a DSE official said the CDBL will have to reform its rules for giving exemption to the BO account renewal fees.

Source: The Financial Express, August 28 2012

Otobi offers IPOs with excess premium

Otobi has sought approval for making Initial Public Offerings (IPOs) to collect funds from the market with excess premium, alleged market-related sources.

Otobi, the famous furniture manufacturing company, made the appeal to stock market watchdog – the Securities and Exchange Commission (SEC) seeking its permission for offering primary shares to raise its paid-up capital.

A banglanews24.com report says, the IPO application at present is under consideration of the SEC.

Sources said, Otobi placed the IPO application on April 26 last at the Dhaka Stock Exchange (DSE) but the DSE authority sent it to SEC without scrutinizing.

As per the proposal, the company intended to release 40 million shares in the market with a proposed value of Tk 45 per share, including premium of Tk 35 per share.

In total, the company will collect Tk 1.8 billion from the market, they added.

As per the audit report of the company, submitted at the DSE, Earning Per Share (EPS) was shown Tk 2.93.

Commenting on this, DSE President Rakibur Rahman said: “A company certainly can add premium to its primary shares, but the financial condition of the company must be seen first. On the other hand, charging excess premium discourages the investors and while lower premium encourages them.”

“The company that wants to enter the market with premium can be brought under safety net. This will ensure security of the investors,” he added.

Bangladesh Share Market Investors Oikya Parishad International Affairs Secretary ANM Ataullah said, “We are always against offering shares with excess premium. We learnt that furniture making company Otobi has applied for IPO approval with a premium of Tk 35 per share, which is under SEC’s consideration now.”

In the current market situation, the investors are not ready to accept Otobi’s IPOs with excess premium.

Syhafiullah, a share investor said: “The SEC should not approve proposal of any company who wants to make money with excess premium.”

Source: Daily Sun, 25 August 2012

অতিরিক্ত প্রিমিয়ামে অটবির আইপিও!

অতিরিক্ত প্রিমিয়াম ধরে পুঁজিবাজার থেকে টাকা সংগ্রহ করতে অটবি কোম্পানি শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি) বরাবর আইপিও আবেদন করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

ফার্নিচার কোম্পানিটির বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করেছেন বিনিয়োগকারীসহ বাজার সংশ্লিষ্টরা। অটবির আইপিও আবেদনটি এখন এসইসির বিবেচনাধীন রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গত ২৬ এপ্রিল অটবি কর্তৃপক্ষ প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) আবেদন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসইতে) জমা দেয়। ডিএসই অটবির দেওয়া তথ্য যাচাই-বাছাই না করেই এসইসির কাছে পাঠায়। এখন এসইসি বিষয়টি বিবেচনা করবে।

জানা যায়, কোম্পানিটি বাজারে মোট ৪ কোটি শেয়ার ছাড়বে। কোম্পানির শেয়ার প্রতি প্রস্তাবিত মূল্য ধরা হয়েছে ৪৫ টাকা। এর মধ্যে প্রতিটি শেয়ারের ফেস ভ্যালু ধরা হয়েছে ১০ টাকা। আর শেয়ার প্রতি প্রিমিয়াম ধরা হয়েছে ৩৫ টাকা।

বাজার থেকে অটবি কোম্পানি মোট ১৮০ কোটি টাকা তুলে নেওয়ার জন্য এই আবেদন করেছে।

ডিএসইতে জমা দেওয়া কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদনে শেয়ার প্রতি আয় দেখানো হয়েছে ২ দশমিক ৯৩ টাকা।

এ বিষয়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রেসিডেন্ট রকিবুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, “একটি কোম্পানি বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে প্রিমিয়াম নিতেই পারে। তবে দেখতে হবে কোম্পানির আর্থিক অবস্থা কেমন। এছাড়া অতিরিক্ত প্রিমিয়াম নিলে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ কমে এবং কম প্রিমিয়াম নিলে আগ্রহ বাড়ে।“

তিনি আরও বলেন, “কোনো কোম্পানি প্রিমিয়াম নিয়ে বাজারে আসতে চাইলে তাদের সেফটি নেটের আওতায় আসা উচিত। এতে বিনিয়োগকারীরা রক্ষা পায়। অর্থাৎ অতিরিক্ত প্রিমিয়াম নিয়ে বাজারে এলে এক বছরের মধ্যে যদি শেয়ারের মূল্য অফার মূল্যের চেয়ে কমে যায় তবে তা বাইব্যাক করে নিতে হবে।“

ডিএসইর প্রেসিডেন্ট বলেন, “অতিরিক্ত প্রিমিয়াম নিলে বিনিয়োগকারীদের জন্য ৩০ শতাংশ শেয়ার এবং কম প্রিমিয়াম নিলে ৫০ শতাংশ শেয়ার রাখা উচিত।“

বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আ ন ম আতাউল্লাহ নাইম বাঙলানিউজকে বলেন, “আমরা সব সময় অতিরিক্ত প্রিমিয়াম নেওয়ার বিরুদ্ধে। আমরা জেনেছি ফার্নিচার কোম্পানি অটবি ৩৫ টাকা প্রিমিয়াম নিয়ে বাজার থেকে টাকা তোলার প্রস্তাব করেছে। যা এখন এসইসির বিবেচনাধীন রয়েছে। আমরা এর আগেও এসইসির কাছে অতিরিক্ত প্রিমিয়াম নিয়ে আইপিও অনুমোদন না দেওয়ার প্রস্তাব করেছি। বর্তমান বাজারে এই অতিরিক্ত প্রিমিয়াম নিয়ে আইপিও অনুমোদন করলে বিনিয়োগকারীরা তাতে সাড়া দেবে না।“

তিনি আরও বলেন, “মন্দা বাজারে এর আগেও অতিরিক্ত প্রিমিয়াম নিয়ে কয়েকটি কোম্পানি আইপিও ছেড়েছে। কিন্তু তাদের আইপিওতে বিনিয়োগকারীরা সাড়া দেয়নি। ফলে তাদের আইপিও আন্ডার সাবসক্রাইব হয়েছে।“

এ বিষয়ে বিনিয়োগকারী শফিউল্লাহ বাংলানিউজকে বলেন, “এই মন্দা বাজারে যেসব কোম্পানি অতিরিক্ত প্রিমিয়াম নিয়ে বাজার থেকে টাকা সংগ্রহ করতে চায় তাদের অনুমোদন দেওয়া উচিত নয়।“

তিনি আরও বলেন, “সম্প্রতি এসইসি কয়েকটি কোম্পানিকে অতিরিক্ত প্রিমিয়াম নিয়ে বাজার থেকে অনুমোদন দিয়েছে। এসব কোম্পানিগুলোর শেয়ার বর্তমানে প্রস্তাবিত মূল্যের কম দামে বিক্রি হচ্ছে। যার ফলে আইপিওর প্রতি বিনিয়োগকারীরা আস্থা হারাচ্ছে।“

তিনি আরও বলেন, “বিনিয়োগকারীদের আস্থার অভাবে অতিরিক্ত প্রিমিয়াম নেওয়া কোম্পানিগুলো বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে তাদের টার্গেটের তুলানায় কম সাড়া পাচ্ছে। ডিএসইতে সদ্য তালিকাভুক্ত হওয়া কয়েকটি কোম্পানির আইপিও আবেদনে শেয়ারের সংখ্যার তুলনায় কম আবেদন জমা পড়েছে।“

সুতরাং ধারণা করা হচ্ছে, বর্তমান বাজার পরিস্থিতিতে অটবির অতিরিক্ত প্রিমিয়াম নিয়ে বাজার থেকে টাকা তোলার প্রস্তাবে বিনিয়োগকারীদের তেমন সাড়া পাওয়া যাবে না।

সূত্র: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম, আগস্ট ২২, ২০১২

রেইমার কেমিক্যালকে ১০ কোটি টাকা মূলধন বাড়ানোর অনুমোদন

রেইমার কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডকে ১০ কোটি টাকা মূলধন বাড়ানোর অনুমোদন দিয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জে কমিশন (এসইসি)।

মঙ্গলবার কমিশনের ৪৪২তম নিয়মিত সভায় এ অনুমোদন দেওয়া হয়।

বুধবার কমিশনের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সাইফুর রহমান স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রাপ্ত তথ্যমতে, রেইমার কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডকে ১ কোটি সাধারণ শেয়ার ছাড়ার মাধ্যমে এ মূলধন উত্তোলনের অনুমোদন দেওয়া হয়।

রেইমার কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্ত নয় এমন একটি প্রতিষ্ঠান।

সূত্র: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম, আগস্ট ০৮, ২০১২

অর্গন ডেনিমসের আইপিও স্থগিত

অর্গন ডেনিমস লিমিটেড কম্পানির আইপিওর পুঁজিবাজার থেকে টাকা সংগ্রহ স্থগিত করেছে নিয়ন্ত্রণ সংস্থা সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি)।
বুধবার এসইসির ৪৪২তম কমিশন সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এর আগে কমিশন সামিট পূর্বাঞ্চল পাওয়ার কম্পানি লিমিটেড এবং এনভয় টেক্সটাইল কম্পানির আইপিও আবেদন স্থগিত করে।

সূত্র: কালের কণ্ঠ, ৯ আগষ্ট ২০১২

Argon Denims IPO subscription postponed

The securities regulator has postponed the public subscription of Argon Denims following an appeal made by the company.

“We postponed the IPO subscription of Argon Denims scheduled from September 9 as the company feared under-subscription due to overall situation of the stock market,” an official of SEC said Wednesday.

Argon is the third IPO which failed to begin subscription on scheduled date. Earlier Summit Purbanchol Power and Envoy Textiles faced the similar fate in last month (July).

Source: The Financial Express, August 9, 2012