Monthly Archives: April 2012

Summit Purbanchol Power gets nod for IPO

The Securities and Exchange Commission yesterday approved the IPO prospectus of Summit Purbanchol Power Company Ltd, a subsidiary of Summit Power Ltd, to raise Tk 135 crore from public.

The approval came at a meeting of the stockmarket regulator with SEC Chairman Prof M Khairul Hossain in the chair.

Using the fixed price method, Summit Purbanchol Power Company will float three crore ordinary shares of Tk 10 each at an offer price of Tk 45, including a premium of Tk 35, the SEC said in a statement.

With the proceedings from the IPO (initial public offering), the company will pay off its liabilities that are in the form of preference shares.

The company’s earnings per share is Tk 5.18, while the net asset value per share is around Tk 21, according to its 2010 financial statements.

Summit Purbanchol Power Company has two power plants — Rupganj Power Plant in Narayanganj and Jangalia Power Plant in Comilla, each of which generates 33MW power.

It will be the 14th company to be listed on the stockmarket in the fuel and power category.

Prime Finance Capital Management Ltd is the issue manager of the Summit Purbanchol Power Company’s IPO.

At yesterday’s meeting, the SEC also approved rights offer of two listed companies — Information Services Network Ltd and Tallu Spinning Mills Ltd.

Information Services Network will issue 99.04 lakh ordinary shares of Tk 10 each totalling Tk 9.90 crore.

The company, which will offer one rights share for each existing share, will raise the capital to introduce WiFi mesh technology, expand services and increase cash flow.

BRAC-EPL Investments Ltd will be the issue manager and underwriter for Information Services Network’s rights issue.

Tallu Spinning Mills will issue 4.28 crore ordinary shares of Tk 10 each totalling Tk 42.80 crore.

The spinning mill offered two rights share for existing one.

The company will raise the capital to meet its working capital requirement and repay bank loans.

Banco Financial and Investment Ltd will be the issue manager and underwriter for Tallu Spinning Mills’ rights issue.

Source: The Daily Star, April 25, 2012

সামিট পূর্বাঞ্চল পাওয়ার কোম্পানির আইপিও অনুমোদন

বিদ্যুত খাতের সামিট পূর্বাঞ্চল পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেডকে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়ার অনুমতি দিল বাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা। প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি বাজারে তালিকাভুক্ত হবে। মঙ্গলবার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (এসইসি) নিয়মিত সভায় এ অনুমোদন দেয়া হয়। এসইসির মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক সাইফুর রহমান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা যায়।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সামিট পূর্বাঞ্চল পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড তিন কোটি শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে ১৩৫ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে। এ ক্ষেত্রে কোম্পানির ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের প্রতিটি শেয়ারের দাম ধরা হয়েছে ৪৫ টাকা। প্রতিটি শেয়ারের জন্য ৩৫ টাকা প্রিমিয়াম নেয়া হবে। প্রতিষ্ঠানটি ১৩৫ কোটি টাকা উত্তোলন করে প্রিফারেন্স শেয়ারের আংশিক (অর্থাৎ ১২৯ কোটি ৮৮ লাখ ৩৬ হাজার ৩৪৪ টাকা রিডিমশন করবে। প্রাইম ফাইন্যান্স ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড প্রতিষ্ঠানটির আইপিওর ইস্যু ব্যবস্থাপক হিসেবে কাজ করছে।
এসইসির সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, প্রত্যেকটি ইস্যুয়ার কোম্পানির পরিচালকদের আগামী ২১ মের মধ্যে দুই শতাংশ শেয়ার অর্জনের বাধ্যবাধকতা সংক্রান্ত কমিশনের গত বছরের ২২ নবেম্বর প্রকাশিত এসইসির প্রজ্ঞাপন পরিপালনের লক্ষ্যে কমিশনের আদেশ নম্বর এসইসি/সিএমআরআরসিডি/২০০৮-১৭৮/৬৮০ তারিখ ১৫/০১.২০০৮ (জেড গ্রুপের কোম্পানির উদ্যোক্তা পরিচালকদের শেয়ার লেনদেন না করার বিষয়ে উভয় স্টক এক্সচেঞ্জকে প্রদানকৃত নির্দেশনা) উল্লিখিত তারিখ অর্থাৎ আগামী ২১ মে তারিখ পর্যন্ত স্থগিত করার সিদ্ধান্ত আজকের সভায় গৃহীত হয়।

সূত্র: দৈনিক জনকণ্ঠ, ২৫ এপ্রিল ২০১২

এনসিসিবিএল মিউচ্যুয়াল ফান্ড-১-এর আইপিও লটারি ২৩ এপ্রিল

আইপিও-র মাধ্যমে “এনসিবিএল মিউচ্যুয়াল ফান্ড-১”-এর শেয়ার আবেদন গ্রহণ ১লা এপ্রিল, ২০১২ (অনাবাসী বাংলাদেশীদের জন্য ১০ এপ্রিল ২০১২ পর্যন্ত) তারিখে সমাপ্তিতে একশত ভাগের বেশি আবেদন জমা পড়েছে। আবেদনকারীদের ইউনিট বরাদ্দ দেয়ার লক্ষ্যে ২৩ এপ্রিল ২০১২ সোমবার (সন্ধ্যা ৭.৩০ মিনিটে) ইমানুয়্যালস বেনকুয়্যেট হল, বাড়ি-৪, সড়ক-১৩৪-১৩৫, গুলশান-১, ঢাকা-য় লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

সূত্র: সংবাদ বিজ্ঞপ্তি, এল আর গ্লোবাল বাংলাদেশ এ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড

Lottery of NCCBL Mutual Fund-1 to be held on April 23

The subscription of public issue of units of the “NCCBL Mutual Fund-1” for TK. 50.00 crore was closed on April 1,2012 and April 10, 2012 for Resident Bangladeshi and Non Resident Bangladeshi respectively. The fund has been subscribed at Initial Public Offering (IPO) by more than hundred percent. The lottery for allotment of “NCCBL Mutual Fund-1” of public offer will be held at 7.30 P.M on Monday, April 23, 2012 at Emmanuelle’s Banquet Hall, House#4, Road#134-135, Gulshan-1, Dhaka.

Source: Press release of LR Global Bangladesh Asset Management Company Limited

আইপিওতে আবেদন দুই কোটায় করলে বাতিল

পুঁজিবাজারে অস্থিরতার সময় ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা আইপিওতে কোটা বরাদ্দ পেতে চাইলে কেবল সংশ্লিষ্ট কোটায় আবেদন করতে হবে।

কেউ একই সঙ্গে ‘সাধারণ’ ও ‘ক্ষতিগ্রস্ত’ কোটায় আবেদন করলে তা বাতিল হয়ে যাবে।

মঙ্গলবার পুঁজিবাজার সংক্রান্ত একটি বিশেষ কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান কমিটির প্রধান মো. ফায়েকুজ্জমান।

সকালে ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) সম্মেলন কক্ষে বিশেষ স্কিম প্রণয়ন কমিটির এই বৈঠক হয়।

গত ২৩ নভেম্বর এসইসির পুঁজিবাজারের জন্য বিশেষ প্রণোদনা প্যাকেজের অংশ হিসেবে ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের জন্য বিশেষ স্কিম প্রণয়ন কমিটি গঠন করা হয়।

আইসিবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. ফায়েকুজ্জামান বলেন, ”গত ১৫ এপ্রিল ক্ষতিগ্রস্তদের তথ্য জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিল। নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই প্রায় সব মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারেজ হাউজ তথ্য সরবরাহ করেছে কমিটিকে।”

তথ্য যাচাই-বাছাই করে চূড়ান্ত তালিকা প্রস্তুত করে এসইসিতে জমা দেওয়ার শেষ দিন ৩০ এপ্রিল বলে জানান তিনি।

“তবে আমরা আগামী সাত দিনের মধ্যেই সমস্ত তথ্য এসইসির কাছে জমা দিয়ে দেব।”

এর আগে গত ৪ মার্চ ১০ লাখ টাকার নিচে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগকারীদের ৫০ শতাংশ সুদ মওকুফের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে সরকার। পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্তদের আইপিওতে ২০ শতাংশ কোটা বরাদ্দেরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সূত্র: বিডিনিউজ টুয়েন্টিফোর, এপ্রিল ১৭, ২০১২

জিপিএইচ ইস্পাতের লেনদেন শুরু ১৯ এপ্রিল হতে

দেশের শেয়ারবাজারে আজ বৃহস্পতিবার থেকে জিপিএইচ ইস্পাত নামে নতুন আরেকটি কোম্পানির লেনদেন শুরু হচ্ছে।
এর আগে গত ফেব্রুয়ারি মাসে কোম্পানিটি প্রাথমিক গণপ্রস্তাব বা আইপিওর মাধ্যমে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করে। কোম্পানিটি দুই কোটি শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে মোট ৬০ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে।
১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সঙ্গে ২০ টাকা প্রিমিয়াম যুক্ত করে জিপিএইচ ইস্পাতের প্রতিটি শেয়ারের বিক্রয় মূল্য ধরা হয় ৩০ টাকা। এই কোম্পানির প্রতিটি মার্কেট লটে বা বাজারগুচ্ছে রয়েছে ৫০০টি শেয়ার।
এমএস রড ও এমএস বিলেট উৎপাদনকারী এই কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ৭০ কোটি টাকা। আইপিওর টাকা (প্রিমিয়াম বাদে) উত্তোলনের পর যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯০ কোটি টাকায়। কোম্পানিটি ২০০৮ সালে বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদনকার্যক্রম শুরু করে।
২০১১ সালের এপ্রিলে সমাপ্ত অর্থবছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় বা ইপিএস দেখানো হয়েছে তিন টাকা ৬৬ পয়সা। একই সময়ে শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদমূল্য (এনএভি) দেখানো হয় ১২ টাকা ২৩ পয়সা।

সূত্র: প্রথম আলো, ১৯ এপ্রিল, ২০১২

সাবমেরিন কেবল কোম্পানির আইপিওর লটারি অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেডের (বিএসসিসিএল) প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) লটারি ড্র বুধবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল ১১টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে এ লটারি ড্র হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএসসিসিএলের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মনোয়ার হোসাইন, পরিচালক কর্নেল শাহরিয়ার আহমেদসহ ডিএসই, সিএসই, এসইসি ও সিডিবিএলের প্রতিনিধিরা।
নির্ধারিত সংখ্যার তুলনায় কম আবেদন জমা পড়ায় লটারি ছাড়াই বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেডের (বিএসসিসিএল) প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) শেয়ার পেয়েছেন সাধারণ ও বিদেশী বিনিয়োগকারীরা। তবে এ কোম্পানির আইপিওতে সামগ্রিকভাবে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২ দশমিক ৩৪ গুণ বেশি আবেদন জমা পড়েছে।
আগামী ২৪, ২৫ ও ২৬ এপ্রিল এ শেয়ারের এ্যালটমেন্ট লেটার বরাদ্দ দেয়া হবে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে ঢাকা জেলা ক্রীড়া সমিতিতে এ এ্যালটমেন্ট দেয়া হবে।
এ কোম্পানিতে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের জন্য মোট ৮৪ কোটি টাকার শেয়ার নির্ধারিত থাকলেও আবেদন জমা পড়েছে ৭৫ কোটি ২৫ লাখ ৭৫ হাজার টাকা। অন্যদিকে প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ কোটি ৫০ লাখ টাকার শেয়ারের বিপরীতে আবেদন জমা পড়েছে ৫ কোটি ২২ লাখ ২০ হাজার টাকার। তবে মিউচ্যুয়াল ফান্ড কোটায় ১০ কোটি ৫০ লাখ শেয়ারের জন্য ১৬৯ কোটি ৮০ লাখ ৮৮ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়েছে। সব মিলিয়ে ১০৮ কোটি ৫০ লাখ টাকার শেয়ারের বিপরীতে আগ্রহী বিনিয়োগকারীরা ২৫৩ কোটি ৭৮ লাখ ৪৩ হাজার টাকার আবেদন জমা দিয়েছেন।
১০০ শেয়ারে মার্কেট লট নির্ধারিত হওয়ায় মোট ৩ লাখ আবেদনকারী সাবমেরিন কেবলের শেয়ার বরাদ্দ পাচ্ছেন। এর মধ্যে স্থানীয় বিনিয়োগকারীদের জন্য নির্ধারিত ২ কোটি ৪০ লাখ, মিউচ্যুয়াল ফান্ডের জন্য সংরক্ষিত ৩০ লাখ এবং প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য ৩০ লাখ শেয়ার সংরক্ষিত ছিল।
কোম্পানির ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের প্রতিটি শেয়ারে ২৫ টাকা প্রিমিয়ামসহ ৩৫ টাকা মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে কোম্পানির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য ১০ লাখ শেয়ার সংরক্ষিত রয়েছে। কোম্পানিটি ৩ কোটি ১০ লাখ শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে ১০৮ কোটি ৫০ লাখ টাকা সংগ্রহ করছে। ইতোমধ্যে কোম্পানিটিকে সেকেন্ড সাবমেরিন করার জন্য বিটিআরসি থেকে অনুমোদন দেয়া হয়েছে।
সাবমেরিন কেবল কোম্পানি প্রতিষ্ঠার প্রথম তিন বছরেই লভ্যাংশ দিয়ে আসছে। ২০০৯ সালে ১০ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড (শেয়ার লভ্যাংশ), ২০১০ সালে ৩০ শতাংশ স্টক, ২০১১ সালে ২০ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড দিয়েছে।
কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

সূত্র: দৈনিক জনকণ্ঠ, ১৯ এপ্রিল, ২০১২

সাবমেরিন ক্যাবলের আইপিও ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে

বিডিআইপিও-তে সাবমেরিন ক্যাবলের আইপিও ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। সহজে ও স্বল্প সময়ে ফলাফল জানবার জন্য ক্লিক করুন http://new.bdipo.com/companies/40/results/search

সূত্র: নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিআইপিও.কম