Monthly Archives: December 2011

জিপিএইচ ইস্পাত ২ ফেব্রুয়ারি থেকে আইপিও আবেদন জমা নেবে

আগামী ২ ফেব্রুয়ারি’১২ সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) আবেদনপত্র গ্রহণ করবে জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেড। আগ্রহী বিনিয়োগকারীরা ৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আবেদনপত্র জমা দিতে পারবেন। তবে প্রবাসী বাংলাদেশীদের (এনআরবি) জন্য ১৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কোম্পানির প্রধান কার্যালয়ে আবেদনপত্র পৌঁছানোর সুযোগ থাকবে।

পুঁজিবাজারে ২ কোটি শেয়ার ছেড়ে জিপিএইচ ইস্পাত মোট ৬০ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে। প্রতিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের শেয়ারের বিপরীতে কোম্পানিটি ২০ টাকা প্রিমিয়ামসহ মোট ৩০ টাকা নেবে। এ কোম্পানির ইস্যূ ব্যবস্থাপক হিসাবে কাজ করছে ট্রিপল এ কনসালট্যান্ট লিমিটেড।

জানা গেছে, জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেডের বর্তমান অনুমোদিত মূলধন ১০০ কোটি টাকা এবং পরিশোধিত মূলধন ৭০ কোটি টাকা। আইপিও প্রক্রিয়া শেষে পরিশোধিত মূলধন ৯০ কোটি টাকায় উন্নিত হবে। আইপিওর মাধ্যমে সংগৃহীত অর্থের সিংহভাগ কোম্পানির ঋণ পরিশোধে ব্যয় করা হবে বলে জানা গেছে।

সর্বশেষ আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী গত ডিসেম্বর পর্যন্ত কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৩ টাকা ৬৬ পয়সা। একই সময় পর্যন্ত কোম্পানির শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) ১২ টাকা ২৩ পয়সা।

সূত্র:শেয়ারনিউজ২৪.কম, ডিসেম্বর ১৪, ২০১১

IDLC- Butterfly IPO deal signed

Butterfly Marketing Limited Wednesday signed an agreement with IDLC Investments Limited to raise capital through an Initial Public Offering (IPO). IDLC Investments will act as Manager to the Issue in this regard.

Butterfly Marketing Limited is one of the oldest & larger players in the Bangladesh consumer electronics & home appliance sector. IDLC Investments Limited is a fully owned subsidiary of IDLC Finance Limited and, with 45+ staff, exclusive offices in Motijheel and a product portfolio catering to both institutional and retail clientele, is the largest investment bank in the country.

IDLC Investments has managed majority of multi-national company IPOs held in Bangladesh in last decade and also has the distinction of pioneering the Book-Building IPO process in 2010.

M. A. Mannan, Managing Director of Butterfly Marketing Limited and Md. Moniruzzaman, Managing Director of IDLC Investments Limited signed the contract. Selim R. F. Hussain, Chairman of IDLC Investments Limited and other senior officials of both organizations were also present on the occasion.

Source: banglanews24.com, December 07, 2011

আইডিএলসি ও বাটারফ্লাই মার্কেটিং এর মধ্যে আইপিও চুক্তি

ইনিশিয়াল পাবলিক অফারিং (আইপিও) এর মাধ্যমে মূলধন বৃদ্ধি করার উদ্দেশ্যে আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড এর সাথে বুধবার চুক্তি স্বাক্ষর করেছে বাটারফ্লাই মার্কেটিং লিমিটেড। আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টস এক্ষেত্রে ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করবে।

বাটারফ্লাই মার্কেটিং লিমিটেড বাংলাদেশের কনস্যুমার ইলেকট্রনিকস এবং হোম অ্যাপ্লায়েন্স খাতে, অন্যতম পুরানো এবং বৃহৎ প্রতিষ্ঠান। আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড, আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেড এর একটি সম্পূর্ণ মালিকানাধীন অঙ্গপ্রতিষ্ঠান। প্রাতিষ্ঠানিক ও ব্যক্তি খাতে সেবা প্রদানের পারদর্শীতা সম্পন্ন এই প্রতিষ্ঠানটি দেশের সর্ববৃহৎ ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক। গত এক দশকে আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টস, বাংলাদেশে কর্মকান্ড পরিচালনাকারী অধিকাংশ বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানের আইপিও ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলো। এছাড়াও প্রতিষ্ঠানটি ২০১০ সালে প্রথমবারের মতো বুক-বিল্ডিং পদ্ধতির আইপিও তে ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করেছে।

বাটারফ্লাই মার্কেটিং লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক, এম এ মান্নান এবং আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক, মো: মনিরুজ্জামান স্বীয় প্রতিষ্ঠানের পক্ষ হতে এই চুক্তি স্বাক্ষর করেন। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড এর চেয়ারম্যান সেলিম আর এফ হুসেইন এবং উভয় প্রতিষ্ঠানের অন্যান্য উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা।

সূত্র: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম, ডিসেম্বর ০৮, ২০১১

সায়হাম কটন মিলসের আইপিও অনুমোদন

সায়হাম কটন মিলস লিমিটেডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) অনুমোদন দিয়েছে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন(এসইসি)।

বুধবার এসইসির ৪০৯তম নিয়মিত কমিশন সভায় এ অনুমোদন দেওয়া হয়।

সভা শেষে এসইসির দায়িত্বপ্রাপ্ত মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সাইফুর রহমান সাংবাদিকদের এ তথ্যা জানান।

তিনি বলেন, ‘কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের উদ্দেশ্যে বাজারে ৪ কোটি ৭৫ লাখ শেয়ার ছেড়ে মোট ৯৫ কোটি টাকা উত্তোলন করবে।’

এর প্রেক্ষিতে কোম্পানিটির শেয়ারের মোট মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২০ টাকা। এর মধ্যে প্রিমিয়াম ধরা হয়েছে ১০ টাকা।

কোম্পানিটির ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছে লংকা-বাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড।

তিনি আরও বলেন, ‘কোম্পানিটি বাজার থেকে অর্থ উত্তোলনের মাধ্যমে ভূমি উন্নয়ন, আবাসন ও যন্ত্রাংশ ক্রয়ে ব্যাবহার করবে।’

কোম্পানিটির এসইসির কাছে জমা দেওয়া সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী নিট সম্পদমূল্য (এনএভি) ১৪.৭৩ টাকা।

সূত্র: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম, ডিসেম্বর ০৭, ২০১১

Saiham Cotton IPO gets regulatory nod

SEC approved an IPO prospectus of Saiham Cotton Mills Ltd, which will raise Tk 95 crore from the public.

The SEC spokesperson said the company will float 4.75 crore ordinary shares of Tk 10 each through the IPO (initial public offering) at an offer price of Tk 20 each, including a Tk 10 premium.

LankaBangla Finance Ltd is the issue manager for the IPO, said Rahman, who is also an executive director of the commission.

As per the latest published financial statement of Saiham Cotton, the company’s net asset value per share was Tk 14.73, he said.

Source: The Daily Star, December 8, 2011

পদ্মার আইপিও আবেদন গ্রহণ শুরু ২২ জানুয়ারি

পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাব বা আইপিও আবেদন আগামী ২২ জানুয়ারি থেকে সংগ্রহ করা হবে। আগামী ২৬ জানুয়ারি পর্যন্ত বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে এ আবেদন সংগ্রহ করা হবে। তবে প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য এ সুযোগ থাকছে আগামী ৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

শেয়ারবাজার থেকে টাকা উত্তোলনের জন্য গত ২২ নভেম্বর সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি) এ কোম্পানিকে আইপিও অনুমোদন দেয়।

আইপিওর মাধ্যমে পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি এক কোটি ২০ লাখ শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে ১২ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে। এ ক্ষেত্রে প্রতিটি শেয়ারের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ টাকা। এ ছাড়া ৫০০টি শেয়ারে একটি মার্কেট লট নির্ধারণ করা হয়েছে।

গত ৩১ ডিসেম্বর শেষ হওয়া অর্থবছরের হিসাব অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদমূল্য (এনএভি) ১৪.৩৭ টাকা। আইপিওর মাধ্যমে উত্তোলিত অর্থ প্রতিষ্ঠানটির বিদ্যমান ঋণ পরিশোধে ব্যয় করা হবে।

Source: banglanews24.com, December 5, 2011

অনুমোদনের অপেক্ষায় ৬১ মিউচ্যুয়াল ফান্ড

সাড়ে ৬ হাজার কোটি টাকার এসব ফান্ড পর্যায়ক্রমে অনুমোদন দেবে এসইসি
পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ কার্যক্রম শুরম্নর জন্য সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এলেঞ্জ কমিশনে (এসইসি) ৬১টি মিউচু্যয়াল ফান্ডের আবেদন জমা রয়েছে। অনুমোদনের অপেৰায় থাকা এসব মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মোট মূলধনের পরিমাণ প্রায় সাড়ে ৬ হাজার কোটি টাকা। বিপুল পরিমাণ এই তহবিল গঠিত হলে বিনিয়োগকারীদের পুঁজির নিরাপত্তা ব্যাপক মাত্রায় বাড়াবে। পুঁজিবাজারের গভীরতা বাড়াতে এখন থেকে নিয়মিতভাবে নতুন মিউচ্যুয়াল ফান্ড বাজারে আনার অনুমোদন দেয়া হবে বলে এসইসি সূত্রে জানা গেছে।
কমিশনের একজন উর্ধতন কর্মকর্তা বলেন, শেয়ারবাজারে মিউচ্যুয়াল ফান্ডের পরিমাণ যত বাড়বে বাজার তত বেশি স্থিতিশীল ও ঝুঁকিমুক্ত হবে। কারণ মিউচু্যয়াল ফান্ডের ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠানগুলো সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে মূলধন নিয়ে তহবিল গঠন করে তা আবার শেয়ারবাজারেই বিনিয়োগ করে। এ ৰেত্রে নিয়মিত পর্যবেৰণের মাধ্যমে কোম্পানির মৌলভিত্তি এবং বাজার পরিস্থিতি বিবেচনা করে মিউচু্যয়াল ফান্ডগুলো কোন শেয়ারে বিনিয়োগ করে। শেয়ারের অতিমূল্যায়ন বা অবমূল্যায়ন রোধে মিউচ্যুয়াল ফান্ডগুলো প্রধান হাতিয়ার হিসেবে কাজ করে। শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের মাধ্যমে ফান্ডগুলো যে মুনাফা অর্জন করে তার পুরোটাই আনুপাতিক হারে বিনিয়োগকারীদের মাঝে বিতরণ করা হয়। ফলে মিউচ্যুয়াল ফান্ডের পুরো অর্থ ঘুরেফিরে শেয়ারবাজারেই বিনিয়োগ হয়।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, এসইসিতে বর্তমানে প্রায় সাড়ে ৬ হাজার কোটি টাকার মোট ৬১টি মিউচ্যুয়াল ফান্ড গঠনের আবেদন জমা রয়েছে। এরমধ্যে ১৪টি ফান্ডকে ইতোমধ্যেই নিবন্ধন দিয়েছে এসইসি। নিবন্ধন অনুমোদিত ফান্ডগুলোর মধ্যে এবি ব্যাংক ফার্স্ট মিউচু্যয়াল ফান্ডের আইপিওর মাধ্যমে ইউনিট বরাদ্দ সম্পন্ন হয়েছে। শীঘ্রই দুই শেয়ারবাজারে এই ফান্ডের ইউনিট লেনদেন শুরু হবে। ফার্স্ট বাংলাদেশ ফিঙ্ড ইনকাম ফান্ডের আবেদনপত্র জমা নেয়ার পর বরাদ্দ প্রক্রিয়া চলছে। এছাড়া এনএলআই ফার্স্ট মিউচু্যয়াল ফান্ডের আইপিও আবেদন আগামী ১১ ডিসেম্বর শুরম্ন হবে। নিবন্ধন পাওয়ার পর এসইসিতে প্রসপেক্টাস জমা দিয়েছে সোনালী ব্যাংক ও অগ্রণী ব্যাংক মিউচু্যয়াল ফান্ড। আর নিবন্ধনের অনুমোদন পেলেও প্রসপেক্টাস জমা দেয়নি এনসিসিবি-১, রূপালী ইন্স্যুরেন্স, প্রাইম ফাইন্যান্স সেকেন্ড, এঙ্মি ব্যাংক ফার্স্ট, পদ্মা ইসলামী লাইফ ফার্স্ট, সন্ধানী লাইফ গ্রোথ ফান্ড, এমটিবি ফার্স্ট, কন্টিনেন্টাল ইন্সু্যরেন্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড এবং এমটিবি ইউনিট ফান্ড।
এসইসির কাছ থেকে ট্রাস্ট চুক্তির খসড়া অনুমোদনের পর নিবন্ধনের প্রক্রিয়ায় রয়েছে সাতটি মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এগুলো হলো ভিআইপিবি এনআরবি গ্রোথ ফান্ড, এনসিসিবি এনআরবি মিউচ্যুয়াল ফান্ড, উত্তরা ফাইন্যান্স ফার্স্ট, ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্সু্যরেন্স ফার্স্ট, বিজিআইসি, এমটিবি ইউনিট ফান্ড এবং ইউসিবি ইনফ্রাস্ট্রাকচার ফান্ড। সন্ধানী লাইফ, আইডি্লসি-৫০ ইনডেক্স ফান্ড এবং এমটিবি ইনডেঙ্ ফান্ডের উদ্যোক্তাদের ঋণ সংক্রান্ত বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন (সিআইবি রিপোর্ট) সংগ্রহ করেছে এসইসি। আর এসজেআইবিএল ফার্স্ট ইসলামিক মিউচু্যয়াল ফান্ড, এসজেআইবিএল ফার্স্ট এনআরবি মিউচ্যুয়াল ফান্ড এবং আইএফআইসি ইনফ্রাস্ট্রাকচার ফান্ডের সিআইবি প্রতিবেদন সংগ্রহ প্রক্রিয়া চলছে। আর ৪টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের সিআইবি প্রতিবেদনে সমস্যা থাকায় তা দূর করার জন্য আবেদনকারীদের বলা হয়েছে।
বাকি ৩০টি মিউচু্যয়াল ফান্ডের আবেদন এসইসিতে প্রাথমিক পর্যায়ে পরীৰাধীন রয়েছে। এগুলো হলো আইসিবি এমএমসিএল সোস্যালি রিসপনসেবল, আইসিবি এএমসিএল গ্রোথ, ইউসিএল, এসআইবিএল ফার্স্ট, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক ফার্স্ট, ট্রাস্ট ব্যাংক ফার্স্ট ক্লায়েন্ট, ট্রাস্ট ব্যাংক ফার্স্ট এনআরবি, প্রিমিয়ার ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক সেকেন্ড, প্রাইম ব্যাংক ফাউন্ডেশন, ফিনিঙ্ ফাইন্যান্স সেকেন্ড, জিএসপি ক্যাপিটাল গ্রোথ, মেঘনা লাইফ স্কিম-১, যমুনা ব্যাংক ফার্স্ট আইসিবি এএমসিএল, ফিনিঙ্ ইন্সু্যরেন্স, আইসিবি এমসিএল এনআরবি ইউনিট ফান্ড, ইউসিবি এমপস্নয়িজ প্রভিডেন্ট, ভিআইপিবি ফিঙ্ড ইনকাম, প্রাইম ব্যাংক ইনফ্রাস্ট্রাকচার, আইসিবি এমপস্নয়িজ সুপার এনুয়েশন স্কিম-১, এনবিএল ইনফ্রাস্ট্রাকচার, এনবিএল ফার্স্ট, অগ্রণী ইউএসএ-কানাডা এনআরবি, অগ্রণী আফ্রিকা-গালফ-মিডল ইস্ট এনআরবি, অগ্রণী এশিয়া-ইউরোপ এনআরবি, এবি ব্যাংক টপ-১০০ ইনডেঙ্, জনতা এমপস্নয়িজ, আইসিবি এনআরবি এনার্জি, আইসিবি মাল্টি সেক্টরাল, প্রাইম ফাইন্যান্স ফার্স্ট এনআরবি এবং ইউসিএল ফার্স্ট মিউচু্যয়াল ফান্ড।

সূত্র: দৈনিক জনকণ্ঠ, ২ ডিসেম্বর, ২০১১

জিবিবি পাওয়ারের আইপিও আবেদনের তারিখ পরিবর্তন

প্রাথমিক শেয়ার বরাদ্দের জন্য সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে আবেদনপত্র গ্রহণের তারিখ পরিবর্তন করেছে জিবিবি পাওয়ার লিমিটেড। আগ্রহী বিনিয়োগকারীরা আগামী ১৮ ডিসেম্বর থেকে ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত আবেদনপত্র জমা দিতে পারবেন। তবে প্রবাসী বাংলাদেশী (এনআরবি) বিনিয়োগকারীদের জন্য ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কোম্পানির প্রধান কার্যালয়ে আবেদনপত্র পৌঁছানোর সুযোগ থাকবে। এর আগে কোম্পানির পৰ থেকে ৪ থেকে ৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত আবেদনপত্র গ্রহণের ঘোষণা দেয়া হয়েছিল।
পুঁজিবাজার থেকে অর্থ সংগ্রহের জন্য বেসরকারী খাতের বিদু্যত উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান জিবিবি পাওয়ার গত ১৮ অক্টোবর এসইসির কাছ থেকে আইপিও অনুমোদন লাভ করে। পুঁজিবাজারে ২ কোটি ৫ লাখ শেয়ার ছেড়ে কোম্পানি মোট ৮২ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে। আইপিওর মাধ্যমে বিক্রির জন্য কোম্পানির ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের প্রতিটি শেয়ারে ৩০ টাকা প্রিমিয়ামসহ মোট ৪০ টাকা মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। ২০০টি শেয়ার নিয়ে নির্ধারিত প্রতি লটের জন্য বিনিয়োগকারীদের মোট ৮ হাজার টাকা জমা দিতে হবে। শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্তির জন্য আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেড জিবিবি পাওয়ারের ইসু্য ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করছে।
কোম্পানির অনুমোদিত মূলধন ১০০ কোটি টাকা এবং বর্তমানে পরিশোধিত মূলধনের পরিমাণ ৩০ কোটি ৫০ লাখ টাকা। আইপিও প্রক্রিয়া শেষ হলে পরিশোধিত মূলধন ৫১ কোটি টাকায় দাঁড়াবে। সর্বশেষ আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী, জিবিবি পাওয়ারের বর্তমান সম্পদের মূল্যমান ১৩৪ কোটি ২৪ লাখ ২৪৫ টাকা। ২০১০-১১ অর্থবছরে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ২ টাকা ৮৩ পয়সা। এর আগের বছর এই কোম্পানির ইপিএস ১ টাকা ৫৫ পয়সা ছিল।
দেশে বেসরকারী খাতে প্রথম রেন্টাল পাওয়ার পস্ন্যান্ট নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান জিবিবি পাওয়ার একটি প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি হিসেবে ২০০৬ সালের অক্টোবরে যাত্রা শুরম্ন করে। ২০০৮ সালের ১৭ জুন কোম্পানির বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরম্ন হয়। ওই বছরের ৮ এপ্রিল কোম্পানিকে পাবলিক লিমিটেডে রূপানত্মর করা হয়। কোম্পানি বিদু্যত কেন্দ্র স্থাপন করে পিডিবি ও পলস্নী বিদু্যতায়ন বোর্ডকে বিদু্যত সরবরাহ কার্যক্রম পরিচালনা করে।
কোম্পানি বর্তমানে বগুড়ায় ২৩.২৬ মেগাওয়াট উৎপাদন ৰমতাসম্পন্ন বিদু্যত কেন্দ্র পরিচালনা করছে। এই কেন্দ্র থেকে প্রতিদিন জাতীয় গ্রিডে কমপৰে ২১.০৩ মেগাওয়াট বিদু্যত সরবরাহ করা হয়। নতুন বিদু্যত কেন্দ্র স্থাপনের মাধ্যমে কোম্পানির বাণিজ্যিক কর্মকা- সম্প্রসারণের লৰ্যে পুঁজিবাজার থেকে অর্থ সংগ্রহ করা হচ্ছে।

সূত্র: দৈনিক জনকণ্ঠ, ২ ডিসেম্বর, ২০১১

GBB Power reschedules IPO subscription period

The GBB Power Limited has decided to reschedule its initial public offering (IPO) period due to unavoidable reason, an official of the company said.

He also said the Securities and Exchange Commission (SEC) has already given consent in this regard.

As per the new schedule, IPO subscription will start from December 18 and will close on December 22 while the subscription will continue for the NRB investors until December 31. The company will float 20.49 millions ordinary shares of Tk 10 each at an offer price of Tk 40, including Tk 30 as premium.

GBB Power Limited plans to utilise the proceeds of the IPO to meet long term loan refund, IPO expenses and working capital requirements.

The company has reported Net Asset Value per Share of Tk 22.52 as on December 31, 2010. The company has also reported EPS of Tk 2.83 for the year.

GBB Power Limited is engaged in generating electricity and supplying it to BPDB through Power Grid Company of Bangladesh’s 33 KV regional transmission grid line in Bogra.

Source: Daily Sun, December 2, 2011