Monthly Archives: September 2011

Regulator alters share pricing system

The Securities and Exchange Commission (SEC) yesterday modified the book building method, removing the much-talked-about clause on stock valuation.

The clause was related to determining the indicative price of shares of a company, which will use the book building system for an initial public offering, based on the company’s earnings per share (EPS) and net asset value (NAV).

The removal of the clause underlines the importance of the mechanism of discovering demand and price of shares by market forces.

The clause that attracted criticism from analysts prescribed that indicative price does not exceed the following yardsticks: 15 times of weighted average EPS of the preceding three years, or three times of NAV, or whichever is lower but no less than NAV of a share.

The stockmarket regulator finalised the amendment at a meeting chaired by Prof M Khairul Hossain, chief of the SEC.

“The commission removed the proposed clause on valuation after scrutinising stakeholders’ observation and opinions and taking into account international practices on the method,” Saifur Rahman, a spokesperson for the SEC, told reporters after the meeting.

After the stockmarket debacle in January, the government directed the SEC to suspend the book building method. But following recommendations by a high-profile probe committee on the share market crash, the government later instructed the regulator to alter book-building rules, instead of suspending the system, as it is practised in other countries.

In line with the final modification, Rahman said, directors and sponsors of an issuer company would not be an issue manager for their own company under the system.

An issuer company will have to run advertisements in five national dailies with a 10-day notice about holding a road-show, and within next three workdays of the road-show, the issuer company must set the indicative price of its shares and submit it to the SEC, according to the rules.

In the bidding for price discovery, at least 20 institutions from six categories will have to participate. From each category, at least three institutions will have to take part in the bidding, said Rahman, also an executive director of the SEC.

The asset management companies would be allowed to become institutional investors, and they can participate in the bidding, he said.

Ten percent shares of an IPO will be reserved for the institutional investors who will set the indicative price, and the ratio of eligible institutional investors would be 40 percent. An eligible institutional investor can bid for the highest 5 percent share, he said.

The lock-in period for the eligible institutional investors would be six months, the SEC official said.

The SEC also finalised a draft on amendment of right issue rules and it will be published in the daily newspapers for public opinion. The regulator further completed a guideline on placement, and a notification will be issued soon to this effect, Rahman added.

Source: The Daily Star,  September 28, 2011

GMG postpones IPO release

Private carrier GMG Airlines Ltd has postponed its plan to float shares to the public due to poor financial performance of the airlines, the chief executive officer (CEO) of GMG said Tuesday.

“The release of initial public offering (IPO) plan has been postponed because the financial performance of the airlines declined,” Sanjiv Kapoor, the newly appointed CEO, told reporters at a press briefing Tuesday at a city hotel.

GMG, one of the leading private airlines in the country, will carry 14,000 hajj pilgrims to Saudi Arabia starting from September 29.

GMG Airlines declared to release its IPO on September 29, 2009.

source: The Daily Star, September 27, 2011

Westin owner submits fresh IPO proposal

Unique Hotel and Resorts Ltd, the owner of The Westin Dhaka, has submitted its IPO prospectus to the stockmarket regulator revising its listing plan from book building to a fixed price method, officials said.

Under the revised plan, the five-star hotel will float 2.60 crore ordinary shares of Tk 10 each at an offer price of Tk 115, using the fixed price method.

Previously, under the book building method, the indicative price was fixed at Tk 185 per share.

The number of shares was also reduced from previously planned three crore primary shares under the book building method.

“Our IPO (initial public offering) process got stuck after the suspension of the book building system, although we had received institutional bidding consent from the regulator,” said Gazi Shakhawat Hossain, director (Finance) of Unique Hotel and Resorts.

The Securities and Exchange Commission, being instructed by the government, suspended the book building method in January this year following a price debacle in share prices.

Later, a high-profile government probe committee on the share market scam recommended modifying the book building rules, instead of scrapping it, as the system is well practised in other countries.

However, at that time analysts including the probe committee members alleged that the book building method was misused by many issuer companies in connivance with the regulator, auditors and issue managers.

Since the suspension, Unique Hotel has been waiting for the resumption of the book building system. “Pre-IPO private placement holders have also been waiting since then,” said Hossain.

“Seeing the delay in resumption of the book building method, we have decided to go public using the fixed price method, and already submitted the IPO prospectus to the regulator for consent,” he said.

Hossain said the IPO (initial public offering) proceedings will be used for business expansion and loan repayment.

Earnings per share of Unique Hotel, whose existing paid-up capital is Tk 230 crore, is Tk 5.85, while net asset value per share is Tk 77.62.

Set up in 2007, The Westin has emerged as one of the leading 5-star hotel in the capital city. The hotel, managed by the US chain hotels operator Starwood, has 241 rooms, six restaurants and five meeting venues.

Presently, the two state-owned entities — Bangladesh Services and Bangladesh Hotels — are listed on the Dhaka Stock Exchange. Bangladesh Services owns Dhaka Sheraton and Bangladesh Hotels owns the Purbani International.

Source: The daily star, 25 September, 2011

IPO subscription of Zahintex Industries Ltd from 18 September, 2011

IPO subscription of Zahintex Industries Ltd will be started from 18 September, 2011 and will be closed on 22 September, 2011. For, NRB applicants it will be open till 01 October, 2011.

Market lot for the IPO is 500, Face value is 10/= and offer price is 25/= including a premium of 15/=

Forms are available for download at http://new.bdipo.com/companies .

You can also generate automated IPO form by logging with your bdipo account.

Source: bdipo.com

Sheltech to go public by 2013

Sheltech, one of the leading realtors, has planned to go public by 2013.

Sheltech managing director Toufiq M Seraj disclosed this Tuesday at a press conference.

The company will turn 25 in 2013, Sheltech managing director said.

Source: The financial express, 14 September, 2011

IPO subscription of Rangpur Dairy & Food Products Limited from 11 September, 2011

IPO subscription of Rangpur Dairy & Food Products Limited will be started from 11 September, 2011 and will be closed on 15 September, 2011. For, NRB applicants it will be open till 24 September, 2011.

Market lot for the IPO is 200, Face value is 10/= and offer price is 18/= including a premium of 8/=

Forms are available for download at http://new.bdipo.com/companies .

You can also generate automated IPO form by logging with your bdipo account.

সেপ্টেম্বরে বুকবিল্ডিং পদ্ধতি চূড়ান্ত করবে এসইসি

সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে বুকবিল্ডিং পদ্ধতি চূড়ান্ত করবে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি)। ইতোমধ্যে এ পদ্ধতির নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে এসইসি। জনমত যাচাইয়ের পরই তা চূড়ান্ত করা হবে বলে এসইসি সূত্রে জানা গেছে।
জানা গেছে, বুকবিল্ডিং পদ্ধতি সংশোধন বিষয়ক খসড়া জনমত যাচাইয়ের জন্য সংবাদপত্রে বিজ্ঞপ্তি আকারে প্রকাশ করা হয়েছে। সর্বসাধারণের থেকে প্রাপ্ত মতামত পর্যালোচনা শেষে আগামী মাসের মধ্যেই পাবলিক ইস্যু বিধিমালা ২০০১-এর নতুন সংশোধন অনুমোদন করার পরিকল্পনা রয়েছে এসইসির। জনমত যাচাইয়ের জন্য ১৫ দিন সময় হাতে রাখা হয়েছে।
উল্লেখ্য, বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে মূল্য নির্ধারণে অতিমূল্যায়িত হচ্ছে এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে সরকারের নির্দেশনায় গত ২০ জানুয়ারি এসইসি এ পদ্ধতি স্থগিত করে। বুকবিল্ডিং পদ্ধতির খসড়ায় উল্লেখ করা হয়েছে, নির্দেশক মূল্য কোনক্রমে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয়ের (ইপিএস) ১৫ গুণ বা শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্যের (এনএভি) তিন গুণ বা উভয়ের মধ্যে যেটি কম, তার থেকে বেশি হবে না। তবে নির্দেশক মূল্য কোম্পানির এনএভির কম হতে পারবে না। এছাড়া প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের দরপ্রস্তাব (বিডিং) প্রক্রিয়ার মধ্যে বরাদ্দ শেয়ার বিক্রির নিষেধাজ্ঞা (লক ইন) ১৫ দিন থেকে বৃদ্ধি করে ৪ মাস করা হয়েছে।
এর আগে প্রণীত খসড়ায় লক ইনের মেয়াদ ৬ মাস নির্ধারণের প্রস্তাব করা হয়েছিল। বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে মূল্য প্রস্তাব ও বিডিংয়ে অংশগ্রহণ করতে পারবে মার্চেন্ট ব্যাংক, বাণিজ্যিক ব্যাংক, সম্পদ ব্যবস্থাপনা কোম্পানি, ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি, ব্রোকারেজ হাউস ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান। কমপক্ষে ২০টি যোগ্য প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর অংশগ্রহণে নির্দেশক মূল্য নির্ধারণ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

Source: Sangbad

৪৫০০ কোটি টাকার আইপিও আসছে

পুঁজিবাজারে শেয়ারের সঙ্কট কাটাতে আসন্ন ঈদের পর আসছে সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকার আইপিও। এর মধ্যে তিনটি কোম্পানি ও দুটি মিউচুয়াল ফান্ড রয়েছে। বাজারে চাহিদার তুলনায় শেয়ারের সরবরাহ অনেক কম। এছাড়া সামপ্রতিক সময়ে বাজারে যে ব্যাপক ধস নেমেছিল, শেয়ার সরবরাহ কম থাকা অন্যতম কারণ বলে মনে করেন বাজার সংশ্লিষ্টরা। পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি) ইতিমধ্যে ওইসব কোম্পানির প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) অনুমোদন দিয়েছে। এছাড়া সরকারি কোম্পানির তালিকাভুক্তির জন্য এসইসি মূল্যায়নকারী নিয়োগ দিয়েছে বলে জানা গেছে। পুঁজিবাজারে ব্যাপক ধসের পরে পুনর্গঠিত করা হয় এসইসি। নতুন কমিশন আসার চার মাস পরে টেক্সটাইল খাতের জাহিন টেক্স ও খাদ্য খাতের কোম্পানি রংপুর ডেইরি অ্যান্ড ফুড প্রডাক্ট লিমিটেডের প্রাথমিক আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়। এসইসি সূত্রে জানা গেছে, কোম্পানি দু’টি বাজার থেকে আইপিও’র মাধ্যমে যথাক্রমে ৫০ কোটি ও ৩০ কোটি টাকা তুলবে। এর মধ্যে জাহিন টেক্স ২ কোটি শেয়ার ছাড়বে। শেয়ারের প্রতি মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২৫ টাকা। এর মধ্যে ফ্যাস ভ্যালু ১০ টাকা ও প্রিমিয়াম ১৫ টাকা। কমিশনে সর্বশেষে জমা দেয়া আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ১.৮৩ টাকা এবং শেয়ারপ্রতি মোট সম্পদমূল্য (এনএভি) ৪৬.০১ টাকা। রংপুর ডেইরি অ্যান্ড ফুড প্রডাক্ট লিমিটেড আইপিও’র মাধ্যমে ১ কোটি ৬৩ লাখ ৪১ হাজার ৪০০ শেয়ার বাজারে ছেড়ে ২৯ কোটি ৪১ লাখ ৪৫ হাজার ২০০ টাকা সংগ্রহ করবে। অবহিত মূল্য ১০ টাকা এবং প্রিমিয়াম নির্ধারণ ৮ টাকা। ওই দুই কোম্পানি ছাড়াও গত ফেব্রুয়ারি মাসে গঠিত বাংলাদেশ ফান্ড বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা সংগ্রহ করবে। জানা গেছে, আগামী ঈদুল ফিতরের পরই বাংলাদেশ ফান্ডের আইপিও কার্যক্রম শুরু হবে। তবে এ আইপিওর পর কোন লটারি হবে না। আবেদনকারী সবাই বাংলাদেশ ফান্ডের ইউনিট পাবেন। গত ১৭ই আগস্ট এসইসি এ ফান্ডের অনুমোদন দেয়। সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা আইপিও মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে সংগ্রহ করা হবে। বেসরকারি খাতের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে এ টাকা সংগ্রহ করা হবে। এর আগে ৫ হাজার কোটি টাকার মধ্যে দেড় হাজার কোটি টাকা নিয়ে ফান্ডের যাত্রা শুরু হয়েছিল। এ বছরের প্রথম দিকে শেয়ারবাজারে ভয়াবহ ধসের পরিপ্রেক্ষিতে তড়িঘড়ি করে উদ্যোক্তা অংশ দিয়ে কার্যক্রম শুরু করে। বাংলাদেশ ফান্ড সম্পর্কে প্রধান উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. ফায়েকুজ্জামান বলেন, আমরা উদ্যোক্তারা পাঁচ হাজার কোটি টাকা থেকে দেড় হাজার কোটি টাকা দিয়ে কার্যক্রম শুরু করেছি। বাকি সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা সংগ্রহের অনুমোদন দিয়েছে এসইসি। ঈদের পর একটি রোড শো করা হবে। এরপর আইপিওর মাধ্যমে টাকা সংগ্রহ করা হবে। বাংলাদেশ ফিক্সড ইনকাম মিউচুয়াল ফান্ডের ৫শ’ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে, যা গত চলতি মাসের শুরুতে এসইসি অনুমোদন দিয়েছে। ৫শ’ কোটি টাকার ফান্ডের মধ্যে উদ্যোক্তাদের কাছ থেকে সংগ্রহ করা হবে ২০০ কোটি টাকা। আর অবশিষ্ট ৩০০ বিনিয়োগকারীদের থেকে সংগ্রহ করা হবে। তবে বিনিয়োগকারীদের ৩০০ কোটি টাকার মধ্যে ৫০ কোটি টাকা প্লেসমেন্টের মাধ্যমে এবং ২০০ কোটি টাকা সাধারণ  মানুষের কাছ থেকে তোলা হবে। ফান্ডটির প্রতি ইউনিটের অভিহিত মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ টাকা। অন্যদিকে, বর্তমানে বাজারে তালিকাভুক্ত সুহূদ ইন্ডাস্ট্রিজ ১৪ কোটি টাকা ও সরকারি মালিকানাধীন বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন ৩১৩ কোটি টাকা আরপিও’র মাধ্যমে সংগ্রহ করবে। এছাড়াও পুঁজিবাজারে সরকারি মালিকানাধীন কোম্পানিগুলোকে তালিকাভুক্তির লক্ষ্যে সম্পদ ও দায় পুনঃমূল্যায়নের জন্য ভ্যালুয়ার নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ১১টি কোম্পানির দ্বারা পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির লক্ষ্যে সরকারি কোম্পানিগুলোর সম্পদ ও দায় পুনঃমূল্যয়ন করা হবে। সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জে কমিশনের (এসইসি) গত ৩৯৪তম (জরুরি) কমিশন সভায় ভ্যালুয়ার কোম্পানিগুলোর নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বাজারে শেয়ারে চাহিদা অনুযায়ী সরবরাহ না থাকাটা পুঁজিবাজারের
সূচক ব্যাপক ওঠানামার জন্য দায়ী বলে মনে করেন বাজার বিশেষজ্ঞরা। এ ব্যাপারে অধ্যাপক আবু আহমেদ বলেন, বাজার প্রতিদিন বড় হচ্ছে। বিনিয়োগকারীদের ডেকে আনা হচ্ছে। কিন্তু শেয়ার সরবরাহ করা হচ্ছে না। বর্তমান কমিশন যে আইপিও’র অনুমোদন দিয়েছে তা অপ্রতুল। তিনি বলেন, বড় বড় কোম্পানিকে বাজারে নিয়ে আসতে হবে। তাছাড়া বাজার স্থিতিশীল করা যাবে না। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ সভাপতি ফখর উদ্দিন আলী আহমেদ বলেন, বাজারের স্থিতিশীলতা রক্ষা করতে নতুন আইপিও’র কোন বিকল্প নেই। সরকারকে উদ্যোগী হয়ে সরকারি ও বেসরকারি কোম্পানিকে বাজারে নিয়ে আসার ব্যবস্থা করতে হবে। শিল্পায়নের জন্য পুঁজিবাজারই উত্তম জায়গা বলে তিনি মন্তব্য করেন।

 

Source: Manabzamin