Monthly Archives: October 2010

SEC backpedals on pre-IPO rules

Kayes M Sohel

The securities regulator has shelved its plan to tighten private placement regulations after theFinance Ministry poured cold water on it, officials said.

The Securities and Exchange Commission (SEC) had planned a new guideline under which no company would be allowed to sell pre-IPO placement to more than 50 institutions or individuals.

If a firm exceeds the cutoff point, the pre-IPO placement–capital mobilisation before the initial offers–will be treated as public offering.

“The commission has put the plan on ice as the finance minister AMA Muhith has opposed the move,” said a high official of the SEC who asked not to be named.

“The minister verbally voiced his reservation about the move,” the official added.

Experts also flayed the SEC’s plan saying it will create discrepancy in selecting investors for the distribution of pre-IPO placement shares.

Currently, there is no bar on the number of individuals or institutions chosen for private placement.

In early September, the SEC moved ahead with introducing the guideline in an attempt to stem the abuse of private placement.

Pre-IPO placement is a portion of an IPO placed with private investors before the IPO is scheduled to hit the market.

The price paid for shares in a pre-IPO placement is usually less than the prospective IPO price. But there is a lock-in period for one year for those investors.

Mirza Azizul Islam, ex-finance adviser to the caretaker government, said, “I see no strong rationale behind such an SEC move as there is lock-in period for such investors for one year.”

“More participation in private placement means the proper distribution. The commission with the help of CDBL (central depository of Bangladesh Ltd) can rather monitor that the locked shares are not traded before one year,” he said.

In April, the SEC slapped some conditions on private sale of mutual funds under which an individual can buy a maximum of Tk 1.0 million worth of units in the private placement of a mutual fund.

A listed company will be able to buy Tk 10 million worth of units and a non-listed company Tk 5.0 million worth of units.

Source: The financial express, 30 October, 2010

We are hiring programmer

Nascenia IT, the team behind bdipo, is looking for a fresh talent to fill its growing need.

Are you passionate about programming? Do you have pretty good idea about object oriented programming? Do you know about web technologies? Did you ever code in Java, .NET, RoR, PHP, or any other server side scripting language? If your answers are yeses, you may read through.

If you are a CSE graduate, you are fine. If you are not, but have hands on experience in programming, you are okay, too. If you dream to bring changes in your life and in all of the people around you, not by fighting, or by talking, but by coding — we must be looking for you.

If you wanna build something greater than yourself, something greater than all of us, you won’t regret clicking the link here. Go ahead!

পিএইচপি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের আইপিও লটারি আজ

আবেদনকারীদের মধ্যে ইউনিট বরাদ্দের জন্য পিএইচপি ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) লটারির ড্র আজ (বৃহস্পতিবার) সকাল ১০টায় রাজধানীর ট্রাস্ট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে। ফান্ডটির আইপিওতে নির্ধারিত ২০০ কোটি টাকার ইউনিটের শেয়ারের বিপরীতে ১ দশমিক ৭ গুণের মতো আবেদন জমা পড়েছে বলে সংশিস্নষ্ট সূত্রে জানা গেছে।
পিএইচপি ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মোট আকার ২০০ কোটি। এরমধ্যে স্পন্সর প্রতিষ্ঠান পিএইচপি পাওয়ার জেনারেশন লিমিটেড ২০ কোটি টাকার যোগান দিয়েছে। এছাড়া প্রাক-আইপিও প্লেসমেন্টের মাধ্যমে ৮০ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হয়েছে। আইপিওর মাধ্যমে বাকি ১০০ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হচ্ছে। এরমধ্যে প্রবাসীদের জন্য ১০ কোটি টাকা, অন্যান্য মিউচ্যুয়াল ফান্ডের জন্য ১০ কোটি টাকা এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের জন্য ৮০ কোটি টাকার ইউনিট বরাদ্দ দেয়া হবে।
আইপিওর মাধ্যমে পিএইচপি ফার্স্ট মিউচু্যয়াল ফান্ডের ইউনিট বরাদ্দের জন্য গত ৩-৭ অক্টোবর স্থানীয় বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে আবেদনপত্র জমা নেয়া হয়। এছাড়া প্রবাসীদের কাছ থেকে ১৬ অক্টোবর পর্যনত্ম আবেদন জমা নেয়া হয়েছে। নির্ধারিত ইউনিটের তুলনায় অতিরিক্ত আবেদন জমা পড়ায় নিয়ম অনুযায়ী লটারীর মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে মিউচু্যয়াল ফান্ডটির ইউনিট বরাদ্দ করা হবে। ফান্ডটির সম্পদ ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে রয়েছে রেইস এ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড|

Source: The Daily Janakantha, 28 Oct 2010

SEC to examine IPO proposals of power, energy cos soon

The Securities and Exchange Commission (SEC) at a meeting Tuesday decided to examine the proposals of power and energy companies to allow them to float IPOs under book building method, officials said.

It also asked the bourses to submit a developmentreport on the proposed uniform index by November 15.

The SEC approved the prospectuses of three mutual funds, and issued licence to an asset management company at the same meeting, chaired by its Chairman Ziaul Haque Khandker.

After the meeting SEC Executive Director Anwarul Kabir Bhuiyan briefed the newsmen on the decisions taken at the meeting.

The commission discussed the importance of power and energy companies for the capital market, following a joint proposal of Bangladesh Association of Publicly Listed Companies and Bangladesh Energy Companies Association.

Earlier, the power and energy companies sought exemption from some book building regulations to raise fund from the stock market for financing new power plants or expanding the existing ones.

“The commission will take decision on the proposed IPOs of the power and energy companies soon,” Mr Bhuiyan said.

Besides, he said, “The SEC feels the urgency of launching a uniform index for the bourses. That’s why the regulator has asked the bourses to submit the report by November 15.”

“A uniform index is a must for the country’s future derivative market,” he added.

The stock exchanges were supposed to submit a report on setting up a uniform index to the SEC by September 1. But the bourses have failed to do so in accordance with the standard of International Organisation of Securities Commissions.

As per the SEC’s final approval, Sandhani Life Insurance Unit Fund will go public with an IPO worth Tk 500 million, where the sponsors will contribute Tk 50 million. Per unit price of the fund will be Tk 10. Alif Asset ManagementCompany is working as its fund manager.

As a close-end mutual fund Mercantile Bank Limited 1st Mutual Fund is going public with an IPO worth Tk 1.0 billion. Among Tk 1.0 billion, the fund will offload the units worth Tk 500 million in the IPO.

The sponsors will contribute Tk 100 million, and the remaining Tk 400 million will be fulfilled through pre-IPO placement. Per unit price of this fund will be Tk 10. L R Global Asset Management Company Bangladesh limited has been appointed as the asset manager of the fund.

NCC Bank NRB Mutual Fund, another close-end mutual fund of Tk 1.0 billion, will offload units worth Tk 500 million in the IPO. The sponsors will contribute Tk 100 million, and the remaining Tk 400 million will be collected through pre-IPO placement. Per unit price of this fund will be Tk 10.

Venture Investment Partner Bangladesh (VIPB) is working as its fund manager.

At present the mutual funds account for 4.47 per cent of the DSE’s total market capitalisation, and seven per cent of the turnover.

Besides, the SEC has issued licence to Universal Financial Solutions Limited to act as a fund manager.

Source: The financial express, 27 October, 2010

শেয়ারবাজারে আসছে ২৫০ কোটি টাকার তিন ফান্ড – এসইসির সভায় অনুমোদন

শেয়ারবাজারে আসছে ২৫০ কোটি টাকার তিনটি নতুন মিউচ্যুয়াল ফান্ড। ফান্ডগুলো হলো_ সন্ধানী লাইফ ইউনিট ফান্ড, মার্কেন্টাইল ব্যাংক (এমবিএল) ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড এবং এনসিসি ব্যাংক এনআরবি মিউচ্যুয়াল ফান্ড। মঙ্গলবার সিকিউরিটিজ এ্যান্ড একচেঞ্জ কমিশনের (এসইসি) সভায় এসব ফান্ড অনুমোদন করা হয়। এরমধ্যে সন্ধানী লাইফ ইউনিট ফান্ড ও এনসিসি ব্যাংক এনআরবি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ট্রাস্ট চুক্তি এবং এমবিএল মিউচ্যুয়াল ফান্ডের প্রসপেক্টাস অনুমোদন করা হয়েছে।
এসইসির চূড়ান্ত অনুমোদন পাওয়া এমবিএল ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মোট আকার হবে ১০০ কোটি টাকা। মোট তহবিলের মধ্যে উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেড ১০ কোটি যোগান দেবে। এছাড়া প্রি-আইপিও পেস্নসমেন্টের মাধ্যমে ৪০ কোটি টাকা এবং আইপিওর মাধ্যমে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৫০ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে। ১০ বছর মেয়াদী ফান্ডটির সম্পদ ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে রয়েছে এলআর গেস্নাবাল বাংলাদেশ।
অন্যদিকে এনসিসি ব্যাংক এনআরবি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ট্রাস্ট চুক্তি অনুমোদন করেছে এসইসি। এই ফান্ডের মোট আকার ১০০ কোটি টাকা। এরমধ্যে স্পন্সর প্রতিষ্ঠান এনসিসি ব্যাংক লিমিটেড ১০ কোটি টাকা দেবে। এছাড়া প্রি-আইপিও পেস্নসমেন্টের মাধ্যমে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৪০ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হবে। ফান্ডটির ২৫ কোটি টাকার ইউনিট প্রবাসী ব্যাংলাদেশীদের (এনআরবি) জন্য সংরৰিত থাকবে। বাকি ২৫ কোটি টাকার মধ্যে ২০ কোটি টাকা সাধারণ বিনিয়োগকারী এবং ৫ কোটি টাকা অন্যান্য মিউচু্যয়াল ফান্ড থেকে সংগ্রহ করা হবে। ১০ বছর মেয়াদী এই ফান্ডটির ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করছে বিআইটিবি।
এছাড়া সন্ধানী লাইফ ইউনিট ফান্ডের প্রাথমিক তহবিলের পরিমাণ ৫০ কোটি টাকা। এরমধ্যে স্পন্সর প্রতিষ্ঠান সন্ধানী লাইফ ইন্সু্যরেন্স কোম্পানি ৫ কোটি টাকা দেবে। বাকি ৪৫ কোটি টাকার ইউনিট সাধারণ বিনিয়োগকারীদের বিক্রি করা হবে। মেয়াদহীন এই ফান্ডের আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক ফার্স্ট ইসলামী মিউচু্যয়াল ফান্ডের অনুমোদন দিয়েছে এসইসি। ফান্ডটির স্পন্সর হিসেবে আল-আরাফা ইসলামী ব্যাংক ১০ কোটি টাকা দেবে। ৪০ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হবে পেস্নসমেন্টের মাধ্যমে। বাকি ৫০ কোটি টাকা আইপিওর মাধ্যমে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে সংগ্রহ করবে। ফান্ডটির সম্পদ ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে রয়েছে আলিফ এ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি।

Source: The Daily Janakantha, 27 Oct 2010

Investors cold to MFs, managers feel listless – subscriptions kept in abeyance

The investors’ poor response is forcing the fund managers to take time to float new mutual funds for subscription despite the fact that SEC has approved their trust deeds.

The situation has unfolded recently as some of the mutual funds have experienced poor subscriptions compared to other issues, which went public earlier.

“By observing the investors’ lukewarm response to the mutual funds (MFs), the fund managers are not in a hurry to go for subscription,” an SEC official said.

As per securities rules, a mutual fund will be registered after the SEC approves its trust deed. After the registration, the SEC will set the time-line for a mutual fund to go for subscription.

“After the registration, the fund managers are bound to go for subscription according to the time-line, set by the SEC. But they are not getting registration due to the investors’ poor response,” the SEC official said.

When asked, a fund manager asking not to be named, said, “it’s true that we are taking time for subscription because of the present situation.”

The SEC is now approving two mutual funds every month saying that it would help stabilise the market. But the inflow of new issues is not sufficient compared to that of mutual funds.

Professor Abu Ahmed, an economist and teacher at Dhaka University, said the country’s market is not capable of absorbing so many mutual funds.

“In our country, a wrong perception regarding the mutual funds has taken root from the very beginning. We have to remember that the units of mutual funds will be traded around their NAVs,” Professor Ahmed told the FE.

“So the fund managers should not expect high prices and they will have to achieve the investors’ confidence with their performance,” he added.

The mutual funds, which are at the moment awaiting subscription are Southeast Bank First Mutual Fund, National Life Mutual Fund, Rupali Life Insurance First Mutual Fund, LR Global Bangladesh Mutual Fund One, Agrani Bank First Mutual Fund, Mercantile Bank Limited First Mutual Fund, NBL First Mutual Fund, NCC Bank Limited NRB Mutual Fund and Sonali Bank First Mutual Fund.

The initial public offering (IPO) lottery draw of IFIL Islamic Mutual Fund will be held on October 26 and its IPO has been over-subscribed only 3.31 times, whereas the funds — EBL First Mutual Fund, Phoenix Finance First Mutual Fund — were subscribed 18 times.

EBL First Mutual Fund had been subscribed by 17.19 times, ICB AMCL 2nd Mutual Fund by 8.29 times, ICB Employees Provident Mutual Fund One : Scheme One by 7.91 times, Trust Bank 1st Mutual Fund by 10.28 times, DBH 1st Mutual Fund 10.77 times, Prime Bank 1st ICB AMCL Mutual Fund by 10.77 times, IFIC Bank 1st Mutual Fund 17.59 times and Phoenix Finance 1st Mutual Fund 19.23 times.

On the other hand, the mutual funds, which recently went public, were also traded at prices well below the investors’ expectation.

Source: The financial express, 26 October, 2010

SEC urges merchant bankers to help boost new shares supply

The Securities and Exchange Commission (SEC) has urged merchant bankers to encourage more firms to be listed in the stock markets, which can keep the market from overheating.

The regulator’s made the appeal Monday in a meeting with merchant bankers, requesting them to mount awareness programme among investors, too.

Chief executive officer Dhaka Stock Exchange Satipoti Moitraa and representatives of the Chittagong Stock Exchange and Merchant Bankers Association of Bangladesh were also present at the meeting, chaired by the SEC member Monsur Alam.

Anwarul Kabir Bhuiyan, executive director with the SEC, said the meeting was arranged as a part of the SEC’s regular activities.

“We’ve stressed again the need for fresh supply of shares in the market and asked merchant bankers to organise more investors’ awareness programme,” he said.

A source said the SEC right now is not considering taking new decisions with regard to margin loans and share transaction.

But he added the SEC would step up its surveillance and told merchant bankers to stem irregularities in netting facilities.

The stock market watchdog also asked merchant banks to abide by securities rules while giving margin loans.

Source: The financial express, 26 October, 2010

SEC approves 3 mutuals worth Tk 2.5bln

Dhaka, Oct 26 (bdnews24.com) — The Securities and Exchange Commission has approved three new mutual funds worth Tk 2.5 billion.

“The commission has approved investment prospectus of Sandhani Life Unit Fund, Mercantile Bank First Mutual Fund and NCC Bank NRB Mutual Fund at a meeting on Tuesday,” SEC executive director Anwarul Kabir Bhuiyan told a press briefing.

Sandhani Life Unit Fund plans to raise Tk 500 million from the market with this ‘open-end’ mutual fund by floating shares with a face value of Tk 10 each.

Sponsors of the fund will hold five percent of shares and the rest would be collected through initial public offerings (IPO).

Sandhani Life Insurance Company is the sponsor of the mutual fund and Alif Asset Management will act as asset manager.

SEC also okayed the proposal of Mercantile Bank First Mutual Fund which plans to raise Tk 1 billon and the ‘close end’ fund will run for 10 years.

Sponsors of the fund will provide Tk 100 million, Tk 400 million would be collected through pre-IPO and Tk 500 million through IPO.

Mercantile Bank is the sponsor of the fund and LR Global would work as the asset manager.

NCC Bank NRB Mutual Fund plans to raise Tk 1 billion by floating shares with face value of Tk 10 each.

Sponsors of the fund would provide Tk 100 million, Tk 400 million would be collected through pre-IPO while 25 percent of the fund is reserved for non residential Bangladeshis, Tk 200 million would come from the local investors and the remaining 5 percent would be reserved for other mutual funds.

The fund would be operated for 10 years and VIPB will manage its assets.

Source: bdnews24.com

পুঁজিবাজারে আসছে জিবিবি পাওয়ার – আইপিও’র মাধ্যমে মূলধন সংগ্রহের জন্য এসইসিতে আবেদন

পুঁজিবাজারে ২ কোটি ৫ লাখ শেয়ার ছাড়বে বেসরকারী খাতে বিদ্যুত উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান জিবিবি পাওয়ার লিমিটেড। প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে বিক্রির জন্য কোম্পানির ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের প্রতিটি শেয়ারে ৬০ টাকা প্রিমিয়ামসহ মোট ৭০ টাকা মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। সব মিলিয়ে কোম্পানিটি পুঁজিবাজার থেকে ১৪৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা সংগ্রহ করবে। আইপিও অনুমোদনের জন্য গতকাল সোমবার কোম্পানির পক্ষ থেকে সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনে (এসইসি) আবেদন জমা দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।
জানা গেছে, জিবিবি পাওয়ার ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের ২ কোটি ৫ লাখ শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে মূলধন সংগ্রহ করবে। নির্দিষ্ট মূল্যের (ফিঙ্ড প্রাইস) ভিত্তিতে আইপিওর মাধ্যমে এসব শেয়ার বিক্রি করা হবে। এজন্য প্রতিটি শেয়ারের জন্য ৬০ টাকা প্রিমিয়ামসহ ৭০ টাকা মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যেই কোম্পানিটি প্রাইভেট পেস্নসমেন্টের মাধ্যমে ৪৫ লাখ শেয়ার বিক্রি করে ৩১ কোটি ৫০ লাখ টাকা সংগ্রহ করেছে। শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্তির জন্য আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেড জিবিবি পাওয়ারের ইস্যু ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করছে।
জানা গেছে, দেশে বেসরকারী খাতে প্রথম রেন্টাল পাওয়ার পস্ন্যান্ট নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান জিবিবি পাওয়ার একটি প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি হিসেবে ২০০৬ সালের অক্টোবরে যাত্রা শুরু করে। ২০০৮ সালের ১৭ জুন কোম্পানির বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু হয়। ওই বছরের ৮ এপ্রিল কোম্পানিকে পাবলিক লিমিটেডে রূপান্তর করা হয়। কোম্পানিটি বিদ্যুত কেন্দ্র স্থাপন করে পিডিবি ও পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডকে বিদ্যুত সরবরাহ কার্যক্রম পরিচালনা করে। কোম্পানির অনুমোদিত মূলধন ১ হাজার কোটি টাকা এবং বর্তমানে পরিশোধিত মূলধনের পরিমাণ ৩০ কোটি ৫০ লাখ টাকা। আইপিও প্রক্রিয়া শেষ হলে পরিশোধিত মূলধন ৫১ কোটি টাকায় দাঁড়াবে।
কোম্পানিটি বর্তমানে বগুড়ায় ২৩.২৬ মেগাওয়াট উৎপাদন ক্ষমতাসম্পন্ন বিদ্যুত কেন্দ্র পরিচালনা করছে। এই কেন্দ্র থেকে প্রতিদিন জাতীয় গ্রিডে কমপৰে ২১.০৩ মেগাওয়াট বিদু্যত সরবরাহ করা হয়। নতুন বিদু্যত কেন্দ্র স্থাপনের মাধ্যমে কোম্পানির বাণিজ্যিক কর্মকা- সম্প্রসারণের লৰ্যে পুঁজিবাজার থেকে অর্থ সংগ্রহ করা হচ্ছে।
সর্বশেষ আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী, জিবিবি পাওয়ারের বর্তমান সম্পদের মূল্যমান ১৩৪ কোটি ২৪ লাখ ২৪৫ টাকা। ২০০৯-১০ অর্থবছরে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১৫ টাকা ৪৮ পয়সা_ যা এর আগের অর্থবছরে ছিল ৯ টাকা ৩৫ পয়সা।

Source: The Daily Janakantha, 26 Oct 2010