Monthly Archives: September 2010

Cable Shilpa Ltd to launch IPO by Dec

Bangladesh Cable Shilpa Limited, a concern of the Telecommunications Ministry, is going to offload it shares by end of this year to finance optical fibre and electrical cable plants.

“We have decided to raise Tk 1.0 billion from the market to expand our business,” post and telecommunications secretary Sunil Kanti Bose told the FE.

The step is part of the government’s broader initiative to list 26 state firms in the stock markets.

The company started its business in 1972 and it never incurred any loss as it has a strong product line, the secretary said.

Bangladesh is now reliant on the import of optical fibre but Mr Bose said if the company sets up plant and goes into operation, it will be able to supply wires in the local market.

“The optical fibre plant will be set up in November and it will start pilot production from December,” he told the FE. “The market is growing and in the future we will have to expand the production base,” he said.

The company is going to diversify its product range to cater to the need of the market, said an official of the company.

The company produces copper cable used in telephone line but the demand for the product is on the decline due to massive rise in demand for cell phone, he said.

The electrical cable plant will produce power cable used for transmission line and electrical wire used in households, he added.

The company has almost completed reevaluation of its asset and liabilities and is going to appoint an issue manager to handle the initial public offering process by October, the official said.

The company ran its operation under ‘no profit no gain’ policy up to 1994 but after that it started working on a commercial basis, he said.

During the 1990s, the state enterprise’s annual profit ranged from Tk 40 to 60 million but profits jumped to Tk 60 million and Tk 100 million in the last decade.

Source: The Financial Express

নভেম্বরে পুঁজিবাজারে আসছে জিএমজি এয়ারলাইন্স

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডি

ঢাকা : বেসরকারি বিমান পরিবহন সংস্থা ‘জিএমজি এয়ারলাইন্স’ এ বছরের নভেম্বরের মধ্যে পুঁজিবাজারে আসছে।

বুধবার রাজধানীর একটি হোটেলে কোম্পানির ১৩তম বার্ষিক সাধারণ সভায় এ তথ্য জানানো হয়।

কোম্পানির চেয়ারম্যান শায়ান এফ রহমান বার্ষিক সাধারণ সভায় সভাপতিত্ব করেন। কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহাব সাত্তার, পরিচালক ওকে চৌধুরী, পরিচালক  লুৎফর রহমান, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ক্রিশ্চিয়ান হেইঞ্জম্যান, কোম্পানি সচিব আসাদ উল্লাহ এবং চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার মিশেল মরিয়াটি প্রমুখ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ১৯৯৭ সালে প্রতিষ্ঠিত জিএমজি এয়ারলাইন্স ১৯৯৮ সালের ৬ এপ্রিল অভ্যন্তরীণ রুটে যাত্রী পরিবহন শুরু করে। ২০০৪ সালের ৮ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম-কলকাতা রুটে ফাইট চালুর মাধ্যমে প্রথম আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে পা দেয় এ এয়ারলাইন্স।

বেক্সিমকো গ্র“প জিএমজি এয়ারলাইন্সের অধিকাংশ শেয়ার অধিগ্রহণের পর একে আরও আধুনিকায়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়। এই আধুনিকায়ন প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে গত মে মাসে এয়ারলাইন্সটি নতুনরূপে যাত্রা শুরু করে।

সম্প্রতি চালু হওয়া ঢাকা-জেদ্দা রুটে যাত্রী পরিবহনের জন্য জিএমজি এয়ারলাইন্সের বহরে যোগ করা হয়েছে বোয়িং ৭৬৭-৩০০ ইআর বিমান। ঢাকা-জেদ্দা রুটে সপ্তাহে বর্তমানে ছয়টি ফাইট চালু রয়েছে এবং খুব শিগরিই ঢাকা-রিয়াদ রুটেও ফাইট পরিচালনা করবে এই এয়ারলাইন্স।

সভায় জানানো হয়, ২০০৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কোম্পানির নিট মুনাফা ছিল ২ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। এ বছরের জুনে নিট লাভের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩৬ কোটি ৮৭ লাখ টাকা এবং এ সময় শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হচ্ছে ৮ দশমিক ৩৮ টাকা।

উদ্যোক্তাদের মূলধন বৃদ্ধির পর আইপিওর অনুমতি পাবে বীমা কোম্পানি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ নতুন বীমা আইন অনুযায়ী পরিশোধিত মূলধনে উদ্যোক্তাদের অংশ বাড়ানোর পর বীমা কোম্পানিগুলোর প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) আবেদনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এঙ্চেঞ্জ কমিশন (এসইসি)। জীবন বীমা কোম্পানিগুলোর তালিকাভুক্তির ক্ষেত্রে প্রয়োজনে পরিশোধিত মূলধনের শর্ত করা হবে। গতকাল মঙ্গলবার অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। দেশের বাইরে অবস্থানরত অর্থমন্ত্রী আবুল মাল মুহিতের সম্মতি পাওয়ার পর এসব সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করা হবে। ‘পুঁজিবাজার পরিস্থিতি পর্যালোচনা’ সম্পর্কিত বৈঠকে শেয়ারবাজার স্থিতিশীল রাখতে এসইসি গৃহীত সাম্প্রতিক পদক্ষেপগুলোকে যথাযথ আখ্যায়িত করা হয়।
ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান সূত্রে জানা গেছে, বৈঠকে পুঁজিবাজারের সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হলেও বীমা কোম্পানির তালিকাভুক্তির ৰেত্রে পরিশোধিত মূলধন জটিলতাই ছিল মূল আলোচ্য বিষয়। শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্তির জন্য কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন কমপৰে ৪০ কোটি টাকা হওয়া বাধ্যতামূলক করার কারণে বীমা কোম্পানিগুলোর তালিকাভুক্তি নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। নতুন বীমা আইনে জীবন বীমা কোম্পানির ন্যুনতম পরিশোধিত মূলধন ৩০ কোটি টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। ফলে বীমা আইনের শর্ত পূরণ করলেও পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির যোগ্যতা অর্জন করতে পারবে না।

Source: The Daily Janakantha

South Asia Ins to float IPO

South Asia Insurance Company Ltd will float shares in the stock markets.

A decision was taken in this regard at the 53rd board meeting of the company in the city recently, said a press release.

Chairman of the company Ghulam Akbar Chowdhury presided over the meeting.

South Asia Insurance Vice-chairman AHM Mahtabuddin, directors Anwar Ali Khan, Abu Mohd Chowdhury, Shahdab Akbar, Masud Ahmed, Nasiruddin Chowdhury, Kamaluddin and Shahabuddin Chowdhury, Adviser Abu Saleh and Managing Director Md Monjurul Haque attended.

Source: The Financial Express

Govt to offload shares of two BSEC firms by March

FE Report

The government will offload shares of two profitable concerns of Bangladesh Steel & Engineering Corporation (BSEC) in the capital market by early next year, industries minister Dilip Barua said.

“Our plan to complete listing by March next year,” he said.

“The companies might be Progati Industries Ltd and Eastern Tubes Ltd. We’ve not taken any decision on it,” he added.

He said this while talking to the US ambassador James F Moriarty at his officeMonday.

The US ambassador said the new industrial policy will help give a further boost to the country’s industrialisation.

The meeting focussed on the issues related to friendly work environment, coal-based power generation, investment in specialised industrial zones and establishment of hi-tech industrial park.

Mr Moriarty emphasised on a tripartite interaction where workers, owners and the government will communicate on different issues to ensure a better environment in the industrial units.

“Bangladesh can set up hi-tech industrial park for the development of industrial sector,” the envoy said.

In response, Mr Barua said the government is moving ahead with the establishment of coal-based power plants in Chittagong and Khulna to address the current power crisis in industrial belts.

He said that the government would ensure equal opportunities for domestic and foreign investors in special zones.

‘We will also create a congenial atmosphere for our expatriates,” he told the envoy.

Responding to a question, Mr Barua said state sugar mills produced 62,000 tonnes of sugar this year and the production would be more than double next year.

Industries secretary KH Masud Siddiqui and high officials of the US Embassy in Dhaka were present in the meeting.

Trading of Green delta mutual fund from today

Trading of the units of Green Delta Mutual Fundwill start at DSE with effect from today (Tuesday). DSE Trading Code for the fund is ‘GREENDELMF’ and DSE company code is 12179.

Meanwhile, SEC has accorded its consent to the proposed change in the denomination of share value (face value) of Green Delta Insurance Co Ltd from Tk 100 to Tk 10 each as well as market lot from 10 to 100 shares. — DSE website

IPO subscription of IFIL Islamic Mutual Fund-1 from tomorrow

IPO Subscription of IFIL Islamic Mutual Fund-1 will begin tomorrow, 25 September 2010 and close on 30 September, 2010. For NRB it will be open till 09 October, 2010.

It’s face value 10/= per unit and market lot is 500. It is a Close-end Mutual Fund of 10 (Ten) years tenure.

For more information you can visit http://www.bdipo.com/companies/15

Source: Own correspondence, bdipo.com

Road show for price discovery of Generation Next Fashions Limited

Road show for price discovery of Generation Next Fashions Limited will be held in Radisson Utshab Hall on 6 octobber 2010. Eligible Institutinal Investors can participate in the road show to discover the indicative price for issuance of 30,000,000 ordinary shares of Generation Next Fashions Limited through IPO under book building method.

BRAC EPL Investment Limited is the issue manager of this IPO.

The details of the road show are as follows:

OFFERING SUMMARY:
Public Offer  : 30,000,000 Ordinary shares
Face Value    : Tk. 10/- each share

DETAIL OF ROAD SHOW:
Vanue : Radisson Utshab Hall
Date  : 6 October 2010
Time  : 4:00 P.M. to 6:00 PM

Source: bdipo.com

বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজারে আসছে জনতা ব্যাংক

এসএম গোলাম সামদানী, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডি

ঢাকাঃ অবশেষে বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজারে আসছে জনতা ব্যাংক লিমিটেড। প্রিমিয়াম নির্ধারণ নিয়ে অনাকাঙ্ক্ষিত বিতর্ক এড়াতে গত বৃহস্পতিবার ফিক্সড প্রাইসের পরিবর্তে বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে জনতা ব্যাংকের শেয়ারের মূল্য নির্ধারণের নির্দেশনা দিয়েছে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি)। ফলে বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে মূল্য নির্ধারণের পরই প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ব্যাংকটি শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হবে।

এসইসির সদস্য মোহাম্মদ ইয়াসিন আলী  বাংলানিউজকে বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এ ব্যাপারে জনতা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এসএম আমিনুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজারে আসার জন্য এসইসি সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে। তাই আপাতত আমরা বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে আসার কথা ভাবছি। তবে আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সভায় এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে। তিনি আরো বলেন, বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে বাজারে এলে আমরা হয়ত ৯০০ টাকার পরিবর্তে ১৫০০ টাকা প্রিমিয়াম পেতে পারি।

জানা গেছে, জনতা ব্যাংক লিমিটেড ১ কোটি  সাধারণ শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে ১০০০ কোটি টাকা সংগ্রহের জন্য এসইসিতে আবেদন করেছে। ১০০ টাকা অভিহিত মূল্যের প্রতিটি শেয়ারের জন্য ৯০০ টাকা প্রিমিয়ামসহ ১০০০ টাকা সংগ্রহ করার প্রস্তাব করা হয়েছিল। মূলত প্রিমিয়ামের পরিমাণ বেশি দাবি করায় জনতা ব্যাংকের আইপিও প্রক্রিয়া বিলম্বিত হচ্ছিল।

জনতা ব্যাংক ২০০৮ সালের আর্থিক প্রতিবেদনের ভিত্তিতে সামগ্রিক বিবরণী তৈরি করে এসইসিতে জমা দিয়েছিল। পরে ওই হিসাব হালনাগাদ করে ২০০৯ সালের আর্থিক প্রতিবেদনের ভিত্তিতে গত ২৫ এপ্রিল বিবরণী জমা দেওয়া হয়। এর আগে ব্যাংকের পরিচালনা বোর্ড ২০০৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে আইপিও’র মাধ্যমে পুঁজিবাজারে শেয়ার ছাড়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়। পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির জন্য ব্যাংকটির ইস্যু ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

এ মুহূর্তে জনতা ব্যাংকের অনুমোদিত মূলধন ২০০০ কোটি টাকা। ব্যাংকটির বর্তমান পরিশোধিত মূলধন ৫০০ কোটি টাকা। ২০০৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত আর্থিক হিসাব অনুযায়ী ব্যাংকের শেয়ারপ্রতি আয় ১০০ টাকা ৬২ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদের পরিমাণ ২৭৭ টাকা ২০ পয়সা।

২০০৮ সালে জনতা ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা ছিল ৭০০ কোটি টাকা ও নিট মুনাফা ৩১৯ কোটি টাকা। অপরদিকে ব্যংকের আমানতের পরিমাণ ২২ হাজার ১৩৩ কোটি টাকা ও  বিতরণকৃত ঋণের পরিমাণ ১৪ হাজার ৪৬৭ কোটি টাকা হয়েছে । ২০০৮ সালে খেলাপি ঋণ আদায়ের পরিমাণ ছিল ৯২৪ কোটি টাকা।

উল্লেখ্য, স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালে তৎকালীন ইউনাইটেড ব্যাংক ও ইউনিয়ন ব্যাংককে একত্রিত করে জনতা ব্যাংক নামে নতুন ব্যাংক চালু করা হয়। বর্তমানে সারা দেশে ব্যাংকটির প্রায় ৮৮০টি শাখা এবং ১৩ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন। বিশ্বব্যাংকের পরামর্শে ২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বর জনতা ব্যাংককে পাবলিক লিমিটেড কোম্পানিতে রূপান্তর করা হয়।