শেয়ারবাজারে আসছে র‌্যাডিসন ওয়াটার গার্ডেন হোটেল

শেয়ারবাজারে আসছে পাঁচ তারকা র‌্যাডিসন ওয়াটার গার্ডেন হোটেল, ঢাকা। প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে বাজারে শেয়ার বিক্রি করবে প্রতিষ্ঠানটি। অভিহিত মূল্যে যার পরিমাণ ৩০ কোটি টাকা। শেয়ার সংখ্যা তিন কোটি। শেয়ারের অভিহিত মূল্য ১০ টাকা। শেয়ার বিক্রি থেকে সংগৃহীত অর্থে চট্টগ্রামে নতুন একটি হোটেল স্থাপন করা হবে। র‌্যাডিসনের আইপিও ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পালন করবে ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) সহযোগী প্রতিষ্ঠান আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড। আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট এ ছাড়াও আরও পাঁচটি কোম্পানিকে শেয়ারবাজারে নিয়ে আসার প্রক্রিয়া চালাচ্ছে।
র‌্যাডিসন ওয়াটার গার্ডেন হোটেল ঢাকার বর্তমান পরিশোধিত মূলধন ৬০ কোটি টাকা। শিগগিরই প্রতিষ্ঠানটি রাইট শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে মূলধন দ্বিগুণে অর্থাৎ ১২০ কোটি টাকায় উন্নীত করবে। কোম্পানির উদ্যোক্তা আর্মি ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট এবং সেনাকল্যাণ সংস্থা। এর মধ্যে আর্মি ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট ৮০ শতাংশ এবং সেনাকল্যাণ সংস্থা ২০ শতাংশ শেয়ারের মালিক। কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ ইতিমধ্যে শেয়ার ইস্যু এবং আইসিবিকে ইস্যু ম্যানেজারের দায়িত্ব দেওয়ার প্রস্তাব অনুমোদন করেছে। শিগগিরই আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক চুক্তি স্বাক্ষর হবে বলে জানিয়েছেন আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্টের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুর রউফ।
রাজধানীর এয়ারপোর্ট রোডে অবস্থিত র‌্যাডিসন ওয়াটার গার্ডেন হোটেল ঢাকা দেশের অপেক্ষাকৃত নবীন ও সর্বাধুনিক হোটেল। এর পরিচালনার দায়িত্ব পালন করছে আন্তর্জাতিক হোটেল চেইন র‌্যাডিসন, যারা বিশ্বব্যাপী ২৪০টি হোটেল পরিচালনা করছে।
র‌্যাডিসন ছাড়া সরকারি-বেসরকারি আরও পাঁচটি কোম্পানির শেয়ার ইস্যুর কাজ করছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট। কোম্পানিগুলো হচ্ছে_ ওরিয়ন ল্যাবরেটরিজ, এনার্জি প্রিমা, নাভানা রিয়েল এস্টেট, হোটেল শেরাটন, সাবমেরিন কেবল, বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন (বিএসসি) এবং প্রগতি ইন্ডাস্ট্রিজ।
রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড (বিএসসিসিএল) বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে বাজারে শেয়ার বিক্রি করবে। প্রতিষ্ঠানটির বর্তমান পরিশোধিত মূলধন ৬৭ কোটি টাকা। শেয়ার সংখ্যা ছয় কোটি ৭০ লাখ। শেয়ারের অভিহিত মূল্য ১০ টাকা। কোম্পানিটি আইপিওর মাধ্যমে ত্রিশ কোটি টাকা মূল্যের তিন কোটি শেয়ার ইস্যু করবে। কোম্পানির আইপিও পরবর্তী মূলধন হবে ৯৭ কোটি টাকা।
সাবেক টেলিগ্রাফ অ্যান্ড টেলিফোন বোর্ডের সহযোগী প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল ২০০৮ সালে একটি স্বতন্ত্র প্রতিষ্ঠান হিসেবে যাত্রা শুরু করে। এর ব্যান্ডউইথ (তথ্য আদান-প্রদান) ক্ষমতা সেকেন্ডে ৪৪ দশমিক ৬০ গিগাবাইট। বর্তমানে এ ক্ষমতার মাত্র ২৫ ভাগ ব্যবহৃত হচ্ছে। দেশে তথ্যপ্রযুক্তির অগ্রগতির কারণে দ্রুতই এর কার্যক্ষমতার ব্যবহার বাড়বে বলে সংশ্লিষ্টদের ধারণা। কার্যক্ষমতার মাত্র ২৫ শতাংশ ব্যবহার সত্ত্বেও ২০০৮-০৯ অর্থবছরে প্রতিষ্ঠানটি ১১ কোটি টাকা নিট মুনাফা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।
বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে বাজারে শেয়ার বিক্রি করবে ওরিয়ন ল্যাবরেটরিজ লিমিটেড। দেশের অন্যতম শীর্ষ এই ওষুধ প্রস্তুতকারক কোম্পানি আইপিওর মাধ্যমে সংগৃহীত অর্থ দিয়ে শতভাগ রফতানিমুখী একটি নতুন ইউনিট স্থাপন করবে। কোম্পানির ভাষ্য অনুসারে বিনিয়োগের পরিমাণ, ফ্যাক্টরি এলাকা এবং উৎপাদিত ওষুধের সংখ্যার দিক থেকে এটি হবে দেশের সবচেয়ে বড় ওষুধ কারখানা। ওষুধ মান নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠান যুক্তরাষ্ট্রের এফডিএ, যুক্তরাজ্যের এমএইচআরএ, কানাডার হেলথ কানাডা, অস্ট্রেলিয়ার টিজিএর গ্রহণযোগ্য মান নিশ্চিত করা হবে কোম্পানিটির নতুন প্রকল্পে। এছাড়া সংগৃহীত অর্থের একটি অংশ বিনিয়োগ করা হবে ২০০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন একটি বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে।
আলোচিত কোম্পানিগুলোর শেয়ার ইস্যু বিষয়ে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্টের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুর রউফ বলেন, বাজারে শেয়ার সরবরাহ বাড়াতে তার প্রতিষ্ঠান সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। একসঙ্গে অনেক প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ইস্যুর প্রক্রিয়া এগিয়ে নিচ্ছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট। নিয়ন্ত্রক সংস্থার অনুমোদন পেলে একে একে এসব কোম্পানি বাজারে আসবে।

Source: The Daily Samakal, 21 Nov, 2010

This entry was posted in News on by .

About bdipo Team

Started our journey in Jan 2009. A simple idea is getting bigger. A baby born and learning to walk, talk, imitate and express. This page is dedicated to that eternal urge of expression. The humane and emotional side of bdipo.